ইসলামের প্রচার ও প্রতিষ্ঠায় নারীর অবদান : ড. মুহাম্মদ ঈসা শাহেদী

নারী ও পুরুষের সমন্বিত প্রয়াস ও অংশীদারিত্বে মানব জাতির বিকাশ হয়েছে। সমাজ ও সভ্যতা নির্মাণে নারী বা পুরুষ কারো ভূমিকা কোন অংশে কম নয়। কিন্তু ইতিহাসের বাস্তবতা হচ্ছে, সম্পুর্ন পড়তে»

মানবজীবনে মহানবী সা. এর সীরাতের গুরুত: ড. মোহাম্মদ আরিফুর রহমান

মহানবী হযরত মুহাম্মদ সা. হচ্ছেন সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ নবী ও রাসূল। আল্লাহ তায়ালা তাঁকে সর্বশেষ নবী হিসেবে মনোনীত করেছেন। তাঁর মহান আদর্শ ও পূতপবিত্র চরিত্রের জন্য তিনি মানবজাতির ইতিহাসে সম্পুর্ন পড়তে»

খ্রিস্টান ধর্মযাজকদের দৃষ্টিতে নবীজির সত্যতা: শামসুদ্দীন সাদী

পৃথিবীতে আগমনের পূর্বেই বিভিন্ন আসমানি কিতাবে নবীজির আগমনের সুসংবাদ ও আলামত লিপিবদ্ধ ছিল। সর্বপ্রথম যেই রমজানে নবীজির ওপর ওহি অবতীর্ণ হয়, জিবরাইলের প্রচ- চাপায় নবীজি জ্বরে আক্রান্ত হন। সম্পুর্ন পড়তে»

ঈদুল ফিতর উদযাপন : তাৎপর্য ও শিক্ষা / মাওলানা আহমদ মায়মূন

দুনিয়ার সকল সম্প্রদায়ের মধ্যে প্রাচীনকাল থেকে উৎসব দিবস পালনের রেওয়াজ চলে আসছে। লোকেরা উৎসবের দিন সাজগোজ করে বের হয় এবং আনন্দ-ফুর্তি করে। জীবনের কান্তি-অবসাদ দূর করে মন-মেজাজকে প্রফুল্ল সম্পুর্ন পড়তে»

সুখি দাম্পত্য জীবন গড়তে রাসূল সা. এর আদর্শ / ড. মুফতী আবদুল মুকীত আযহারী

বিবাহে সচ্ছলতা বিবাহ করা ও করানো মুসলমানের জন্য একটি কর্তব্য। আল্লাহ তাআলা বলেন, তোমাদের মধ্যে যারা অবিবাহিত (পুরুষ হোক বা নারী) তাদেরকে বিবাহ করিয়ে দাও এবং তোমাদের মধ্যে সম্পুর্ন পড়তে»

আল-কুরআনে সাহাবীদের যত জিজ্ঞাসা : হালাল বস্তুনিচয়-সংক্রান্ত জিজ্ঞাসা / মাওলানা মুজিবুর রহমান

[জুন সংখ্যার পর] পালক পুত্র বধু নিজ পুত্রবধূ হারাম। এ ব্যাপারে কারো কোন দ্বিমত নাই। তদ্রƒপ পালকপুত্রবধূ হালাল এ ব্যাপারে কোন দ্বিমত নাই। কারণ, আল্লাহ তাআলা পালকপুত্রকে নিজ সম্পুর্ন পড়তে»

 

জীবন জিজ্ঞাসা

মা-বাবার খিদমত করতে গিয়ে ফরজে কিফায়া ছেড়ে দেয়া প্রসঙ্গে আবদুল্লাহ আল মামুন, ষোলঘড়, সুনামগঞ্জ। প্রশ্ন : আমরা পাঁচ ভাই ছয় বোন। আমি সবার ছোট। আমি ছাড়া সকলেই বিবাহ করেছে। বড় ভাইয়েরা জমিজমা ভাগ করে নিয়ে পৃথক হয়েছে। একমাত্র আমিই মা-বাবাকে নিয়ে সংসার করছি। মা-বাবা এখন অতি বৃদ্ধ হয়ে গেছে। তারা অন্য ভাই-বোনের সংসারে যাবে না

রমযান বারিতে স্নাত হোক আমাদের আত্মা : হাবীবুল্লাহ সিরাজ

রমযান বেসেস্তী উৎসব। আকাশী সৌরভ। সৌরভান্বিত এর প্রতিটি সময়খ-। নূরের ফোয়ারায় চমকিত প্রতিটি প্রহর। স্বর্গীয় মৌতাতে সুবাসিত প্রতিটি সাঁঝ। আসমানী তাগিদে পরিপাটিত তারাবির মিলনমেলা। প্রেমের সরোবরে ডুবন্ত জায়নামাজের মালি। সুন্নতের জয়গান সেহরীরর কোলাহল। আবেগের উচ্ছ্বাসে ভরে উঠা প্রতিটি মুহূর্ত। রহমতের শবনমে শীতল প্রেমিক মুমিনের আত্মা। মাগফিরাতের ফাল্গুনিতে মৌ মৌ হাসিরব পাপীতাপ সকল বান্দা। নাজাতের হাতছানিতে

ঝড়-তুফান : দুর্যোগে যা করার নির্দেশ দেয় ইসলাম : আতিকুর রহমান নগরী

সম্প্রতি সিলেটসহ সারাদেশে এখন প্রবল বেগে বাতাস বইছে, কেউ বলছে ঘূর্ণিঝড় হচ্ছে। কেউ টর্নেডো, আইলা, সিডর আর নার্গিসের থাবার মত গত দু’দিনের ঝড়-তুফানকে মনে করছে। প্রবল বর্ষণ ও ভারী বর্ষণ আর শীলা বৃষ্টিতে আক্রান্ত দেশের মানুষ। দিনে গরম, বিকেলে মেঘলা আকাশ আর রাতে বজ্রের গর্জন শুনা যাচ্ছে। দিনের বেলা রাতের আধার নেমে আসছে। এসবই দুর্যোগের

পবিত্র কুরআন ও বিজ্ঞান : আবদুল হান্নান জুলফিকার

“আমি আমার বন্দার প্রতি যা অবতীর্ণ করেছি, তাতে তোমাদের বিন্দু মাত্র সন্দেহ থাকলে, তোমরা তার অনুরূপ কোন সূরা আনয়ন কর। এবং তোমরা যদি সত্যবাদি হও তাহলে আল্লাহ ব্যাতীত তোমাদের সকল সাহায্যকারীকে নিয়ে আস। যদি আনয়ন না কর তবে সেই আগুনকে ভয় কর, কাফিরদের জন্য যা প্রস্তুত করে রাখা হয়েছে। [সূরা বাকারা : আয়াত ২৩,২৪] এটা

দ্বীনের প্রতি উৎসাহ প্রদান : এস এম আরিফুল কাদের

দ্বীন-ধর্মের উপর আমল করা অবশ্যই কর্তব্য। পাশাপাশি নিজের পরিবারস্থ সকলকে উৎসাহ প্রদান করাও অবশ্য কর্তব্য। নিজেকেসহ পরিবারের সকলকে জাহান্নামের আগুন থেকে বাঁচাতে বলেছেন মহান আল্লাহ। কুরআনের ভাষায়, “হে ঈমানদারগণ! তোমরা নিজেকে এবং পরিবারের সকলকে জাহান্নামের আগুন থেকে বাঁচাও”। পিতা-মাতা, ভাই-বোন, পুত্র, স্বামী সবাইকে আল্লাহর দ্বীনের প্রতি উৎসাহ প্রদান করা অবশ্য কর্তব্য। সে ক্ষেত্রে মেয়েরা এ

কোথায় আজ সভ্যতা মানবতা? আজমল হুসেন

চোখের পানি নয়, এখন প্রয়োজন জিহাদের আগুন! কলমের কালি নয়, এখন প্রয়োজন বুকের তাজা খুন। দুুর্বলের ফরিয়াদ নয়, এখন প্রয়োজন বজ্রের গর্জন। কিন্তু! আমার মত ভীরু-কাপুরুষ ফরিয়াদ ও আর্তনাদ ছাড়া আর কি করতে পারে? আমার বুকে তো নেই ঈমানের কুওয়ত, আমার দিলে তো নেই মুজাহিদের হিম্মত। আমার শিরায় তো নেই রক্তের সেই উচ্ছাস! আমি শুধু

অন্ধকার থেকে গভীর অন্ধকারে : নুশরাত জাহান রেশমী

স্কুলে যাওয়ার জন্য দু’তিন পা বাড়াল মাত্র, বাবা পেছন থেকে ডাক দেয় রবিন এদিকে আয়। কি হয়েছে বাবা? দেরি হয়ে যাচ্ছে তো। বাবা! এই নে তোর নাস্তার টাকা। প্রতিদিন ব্যাগে রাখো আজ হাতে দিলে যে? বাবা, আমার ইচ্ছে হল আজ নিজের হাতে ছেলেকে নাস্তার টাকা দেব, তাই। ছেলেকে কাছে টেনে আদর করে বাবা হাকিম মিয়া।

লাশ : ফারহানা সিরাজ

সুফিয়া আজই ফেরার কথা। সেই কাক ডাকা ভোরে রওয়ানা হবে। একটু সকাল হলেই আবার জ্যামে পড়তে হবে। এদিকে সুফিয়ার ছোট বোন আয়েশা গতকাল থেকে উল্লাসে উচ্ছ্বাসে বিভোর। বড়বোন আসবে। ঈদের নতুন পোশাক আনবে। জুতা আনবে। সাজগোজের জিনিস আনবে। সেই কি আনন্দ আর মাতামাতি। বারবার মাকে বলে সুফিয়াপু কখন আসবে? কখন আসবে? আমার যে আর ত্বর

র্স্বাথপর মা : মুহাম্মদ দিলখোলাশা জাহিদ খান

বলতো আমি কে? তোমার গর্ভে রাতের আঁধারে লুকিয়ে জন্ম নেয়া আমি সেই হতভাগা সন্তান। আমি সেই যাকে লোক লজ্জার ভয়ে নর্দমায় একটা পাটের ছালার বস্তার ভেতরে করে জীবিত ফেলে এসেছিলে। জানো মা? তুমি চলে আসার পর আমার সাথে কি হয়েছিল? তুমি যখন বস্তা বন্দি করে আমায় ফেলে আসলে, আমি চোখ খুলে দেখি তুমি নেই। এদিক

ভালোবাসা এভাবেই উত্তরোত্তর বৃদ্ধি পায় : আল জান্নাত

সাধারণত ছেলে সন্তানেরা শৈশব থেকেই মাতা-পিতার সাথে যেমন খুশী তেমন জীবন-যাপন করে। তাদের সুন্দর জীবন যাপনের সময় তারা পরিচালকদের সুদৃষ্টির ছায়ায় থাকে। তাই তখন তারা নিজের মনের চাহিদা অনুযায়ী চলতে অভ্যস্ত হয়ে যায়; কিন্তু যখন তারা বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়ে যায় তখন তাদের চিন্তা-চেতনায় পরিবর্তন হওয়া উচিত। আর প্রত্যেককে এদিকে দৃষ্টি রাখা উচিত যেন তার

স্বাস্থসমাচার : শরীর ঠাণ্ডা রাখে পুদিনা পাতা

পুদিনার অনেক গুণ। গরমকালে শরীর ঠা-া রাখতে কাঁচা পুদিনা পাতা বেটে লেবুর রস কাঁচা আম বা তেঁতুল দিয়ে চাটনি তৈরি করা হয় তা খেয়ে শরীর জুড়োয় ও ¯িœগ্ধ হয়। পুদিনার নানা গুণাবলীর জন্যে পুদিনার অনেক নাম আছে। নামেই গুণের পরিচয় যেমন অজীর্ণহর, শাকশোভন, সুগন্ধিপত্র। আয়ুর্বেদের মতে : পুদিনা শুরু, স্বাদু, খাওয়ার রুচি বাড়ায়, খিদে বাড়ায়,

সম্পাদকীয়

মানুষ সত্তাগতভাবেই স্বাধীন। প্রতিটি মানুষ তার স্বাধীনতা নিয়েই এই পৃথিবীতে আসে। পৃথিবীর বুকে প্রতিটি মানুষের রয়েছে স্বাধীনতা ভোগ করার সমান অধিকার। আল্লাহ তাআলা মানুষকে এক সহজাত স্বাধীনচেতা সত্তা দিয়ে গঠন করেছেন, তাই মানবসত্তা একমাত্র মহান সৃষ্টিকর্তা ছাড়া অন্য মানুষের সামনে নতি স্বীকার করা বা অপরের অধীন হওয়া মেনে নিতে পারে না। আল্লাহ তাআলা ইরশাদ করেছেন

ভ্রাতৃত্ব সম্পর্কিত নির্বাচিত আয়াত

১। “কিভাবে তোমরা সত্য প্রত্যাখ্যান করবে যখন আল্লাহর আয়াতসমূহ তোমাদের নিকট পঠিত হয় এবং তোমাদের মধ্যে তাঁর রাসূল রয়েছেন? কেউ আল্লাহকে দৃঢ়ভাবে অবলম্বন করলে সে অবশ্যই সরল পথে পরিচালিত হবে। হে মুমিনগণ! তোমরা আল্লাহকে যথার্থভাবে ভয় কর এবং তোমরা আত্মসমর্পণকারী না হয়ে কোন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করো না। তোমরা সকলে আল্লার রজ্জু দৃঢ়ভাবে ধর এবং পরস্পর

ভ্রাতৃত্ব সম্পর্কিত নির্বাচিত হাদিস

১। হযরত আবু আইয়ুব আনসারী রা. হতে বর্ণিত, তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, কোন মুসলমান ব্যক্তির জন্য এটা বৈধ নয় যে, সে তিন দিনের বেশি সময় অপর কোনো মুসলমান ভাইকে ত্যাগ করে। অর্থাৎ তারা কোথাও একে অপরের সম¥ুখীন হলে একজন এদিকে মুখ ফিরিয়ে নেবে এবং অপরজন ওদিকে মুখ ফিরিয়ে নেবে। তাদের দুজনের মধ্যে

পরকাল ভাবনা : মাওলানা আহমদ মায়মূন

আল্লাহ তাআরা তওবাকারীকে পছন্দ করেন। পবিত্র কুরআনে আল্লাহ তাআলা বলেন, নিশ্চয় আল্লাহ তাওবাকারীদেরকে ভালোবাসেন, আর ভালোবাসেন পরিচ্ছন্নতা অবলম্বনকারী লোকদেরকে। [সূরা বাকারা : আয়াত ২২২] যখন কারও অন্তরে পরকালের ভয় জাগ্রত হয় তখন সে বাহ্যিকভাবে এবং মানসিকভাবে আল্লাহ তাআলার অনুগত হওয়ার চেষ্টা করে। এ জন্য সে নিজের জীবনে কৃত অন্যায় অপরাধ ও ভুলত্রুটির জন্য অনুতপ্ত হয়

জীবন হোক আল্লাহতে সমর্পিত : ড. মুহাম্মদ ঈসা শাহেদী

এক দরবেশ আশ্রয় নিয়েছিলেন গহীন বনে। লোকালয় ছেড়ে নির্জন সাধনায় তার একমাত্র সাথী ছিল নিদ্রা। তার সব প্রয়োজন-চাহিদা মিটে যেত আল্লাহর পক্ষ হতে। তাই মানুষের সংশ্রবে তিনি অস্বস্তিবোধ করতেন। লোকালয়ের স্বাভাবিক জীবন ছেড়ে নির্জন সাধনা কীভাবে কারো ভাল লাগে, এ প্রশ্ন কারো মনে জাগতে পারে। মওলানা রূমী র. জবাবে বলেন, যাকে যে কাজের জন্য সৃষ্টি

হযরত খালেদ ইবনে ওলীদ রা. এর ইসলাম গ্রহণ, সংকলন : সৈয়দা সুফিয়া খাতুন

হযরত খালেদ ইবনে ওলীদ রা. বলেন, আল্লাহ তাআলা যখন আমার মঙ্গলের ইচ্ছা করলেন তখন আমার অন্তরে ইসলামের প্রতি আগ্রহ সৃষ্টি করলেন এবং আমার সামনে হেদায়েতের পথ উন্মুক্ত করে দিলেন। আমি মনে মনে ভাবতে লাগলাম যে, আমি হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের বিরুদ্ধে সকল যুদ্ধে অংশগ্রহণ করেছি, কিন্তু যুদ্ধ হতে ফেরার পর প্রত্যেক বারই মনে হয়েছে

ক্ষুদ্রঋণের কালো থাবা, বিকল্প হতে পারে করযে হাসানা : মুফতী পিয়ার মাহমুদ

সুদভিত্তিক অর্থনৈতিক ব্যবস্থার পাগলা ঘোড়া তাবৎ দুনিয়া দাবড়িয়ে বেড়াচ্ছে বেদম গতিতে। এর লাগাম টেনে ধরার বা একে থামানোর আপাতত বৈষয়িক কোনো শক্তি আছে বলে মনে হয় না। অবস্থা এই দাড়িয়েছে যে, সুদী লোন ছাড়া বড় মাপের কোনো কিছু করার কল্পনাই করা যায় না। ফলে অভিশপ্ত এ অর্থনৈতিক ব্যবস্থার নাগপাশে আবদ্ধ হয়ে পড়েছে সকল মানুষের জীবন।

ইসলামে ইবাদত-বন্দেগীর স্বরূপ : ড. মোহাম্মদ আরিফুর রহমান

ইবাদত সম্পর্কে ইসলামের দৃষ্টিভঙ্গি : ইসলামের শিা অনুযায়ী মহান আল্লাহ তায়ালা হচ্ছেন সমগ্র বিশ্ব জগতের মহান শ্রষ্টা এবং প্রভু। তিনিই সমস্ত বিশ্ব জাহানের নিয়ন্ত্রতা ও সার্বভৌম মতার মালিক। তিনি একক ও অদ্বিতীয়, তাঁর কোনো অংশীদার নেই এবং তাঁর জাতের সমক কোনো সত্ত্বাও নেই। একটি সুনির্দিষ্ট ল্য এবং উদ্দেশ্য তিনি নিয়ে বিশ্বজগত সৃষ্টি করেছেন। আর এ

বৈধ উপায়ে অর্জিত সম্পদে দারিদ্র বিমোচন : মমিনুল ইসলাম মোল্লা

রাসুলে আকরাম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন প্রতিটি মানুষকেই উপার্জন করতে হয়। আল্লাহতায়ালা তার সমগ্র সৃষ্টিকে মানুষের খেদমতে নিয়োজিত করেছেন। মানুষ আল্লাহর নির্দেশিত পথে সম্পদ উপার্জন করতে পারে। উপার্জনের ক্ষেত্রে মানুষের জন্য হালাল-হারামের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। হারাম উপায়ে অর্জিত সম্পদ কোন কাজে আসবে না। মদের ব্যবসা হারাম। বর্তমানে বিভিন্ন দেশে মদকে ভিন্ন নামে পরিচিত করে মুসলমানরা

স্বাধীনতার অপব্যাখ্যা : মানবতা আজ কোথায়? জামিল আহমদ

ঐতিহাসিক ২৬ শে মার্চ বাংলাদেশের স্বাধীনতা দিবস। ১৯৭১ সালের এই দিনে বাংলাদেশের স্বাধীনতা ঘোষিত হয়। ২৫ শে মার্চের সূর্য চোখ বন্ধ করে আঁধার নামিয়ে আনল। এ সময় পাকিস্তানী সেনাবাহিনী বাংলাদেশে প্রবেশ শুরু করল। ঘড়ির কাটা বারটায় পা রাখলে আন্তর্জাতিক নিয়ম অনুসারে তারিখ বদলে গেল। শুরু হয়ে গেল ঐতিহাসিক ২৬ শে মার্চ। এর বেশ কয়েক মিনিট


Hit Counter provided by Skylight