বিভাগ : মে -16

শাবান রমযানের প্রস্তুতির মাস || আল্লামা মুফতী তাকী উসমানী

শাবান মাস শরয়ী বিধি-বিধানের দৃষ্টিতে মাহে রমযানের ভূমিকা। কেননা, এর পরপরই রমযানের পবিত্র মাস আগত। এ মাসে প্রিয় নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম-এর কিছু বিশেষ আমল রয়েছে। প্রথম আমল হলো, শাবানের চাঁদ দেখা দিলে নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এই দোয়া পড়তেন— اللهم بارك لنا في رجب وشعبان وبلّغنا رمضان অর্থ : ‘হে আল্লাহ! আমাদেরকে রজব

শবেবরাত-সম্পর্কিত হাদীসসমূহ

১। হযরত মুয়াজ ইবনে জাবাল রা. থেকে বর্ণিত, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন  : ‘আল্লাহ তায়ালা অর্ধ শাবানের রাতে সৃষ্টির দিকে রহমতের দৃষ্টি দেন এবং মুশরিক ও বিদ্বেষ পোষণকারী ব্যতীত অন্য সবাইকে মাফ করে দেন। [বায়হাকী, শুয়াবুল ঈমান, হাদীস : ৩৬৭৪; তাবারানী, আলমু’জামুল কাবীর, হাদীস : ২১৫, আলমু’জামুল আওসাত, হাদীস : ৬৯৬৭; মুসনাদুশ শামিয়ীন, হাদীস

শবে বারাআতের ফজিলত ও আমল ।। মুহাম্মদ শরীফুল আলম

ভূমিকা মহান আল্লাহ অত্যন্ত করুণাময় ও দয়ালু। আর এ কারণেই বান্দা বারবার অবাদ্ধ হওয়া সত্ত্বেও তিনি বারবার ক্ষমা করে দেন। অগণিত রহমতের মাঝে তাকে ডুবিয়ে রাখেন। বান্দা যাতে অবাদ্ধতা ছেড়ে দেয় এবং অন্যায়ের পথ থেকে সত্য ও ন্যায়ের পথে আসে সে জন্য তিনি বিশেষ বিশেষ সময়ে বড় ধরনের ক্ষমা ঘোষণা করেন। আর শবে বারাআত তারই

ইসলামের দৃষ্টিতে শ্রমিক-মালিক সম্পর্ক ।। মাওলানা শিব্বীর আহমদ

‘শ্রমিকের ঘাম শুকানোর পূর্বেই তার মজুরি দিয়ে দাও।’[সুনানে ইবনে মাজাহ, হাদীস : ২৪৪৩] ‘যে গোলাম আল্লাহ তাআলার হক আদায় করে এবং তার মনিবের হকও আদায় করে তার জন্যে রয়েছে দুইটি প্রতিদান।’ [সহীহ বুখারী, হাদীস : ২৫৪৭, সহীহ মুসলিম, হাদীস : ১৬৬৬] উল্লিখিত দুইটি বাক্য রাসূলে কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের মুখ নিঃসৃত দুইটি হাদীসের বাংলা অনুবাদ।

জান্নাতবাসীদের মর্যাদা ।। সৈয়দা সুফিয়া খাতুন

জান্নাতবাসীদের মর্যাদা সৈয়দা সুফিয়া খাতুন জান্নাতে প্রবেশকারী আরেকজন জাহান্নামীর ঘটনা হযরত আনাস রা. থেকে বর্ণিত, নবী করিম সা. এরশাদ করেন, এক ব্যক্তি জাহান্নামে এক হাজার বছর পর্যন্ত ইয়া হান্নানু ইয়া মান্নানু বলে ডাকতে থাকবে। আল্লাহ পাক হযরত জিব্রাইল আ.-কে বলবেন, যাও তো আমার সে বান্দাকে আমার নিকট নিয়ে এসো। হযরত জিব্রাইল আ. গিয়ে জাহান্নামীদেরকে অধঃমুখী

কবিতাগুচ্ছ

সৃজন সৈয়দা সুফিয়া খাতুন এই পৃথিবীতে পাইনি কোন আপনজন পেয়েছি শুধু একজন যে-জন আমায় করিলেন সৃজন তাঁকেও যে ভুলে আছি আমি যে অধম স্বার্থের পৃথিবীতে পড়ে আছি নির্জনে যাদের জন্য আমি রক্ত-মাংস করিলাম ক্ষয় তাহারা আমায় ভুলে গিয়ে হয়ে গেল পর আমি জেনে-শুনে করেছি বিষপান ক্ষমা করে দিও ওগো হাকিম ও রহমান আকাশে যতগুলি তারা

রাসূল সা. উত্তম আদর্শ : ভালো কাজের আদেশ ও মন্দ কাজে বাধায় রাসূল সা.-এর আদর্শ-২ ।।মুফতী আবদুল মুকীত আযহারী

মানুষকে ভালো কাজে ডাকা এবং খারাপ কাজে নিষেধ করার ক্ষেত্রে বা দাওয়াত দেওয়ার ক্ষেত্রে রাসূল সা. আমাদের জন্য আর্দশ রেখে গেছেন। দাওয়াতের ক্ষেত্রে আরেকটি আদর্শ হলো, যে বিষয়ের দাওয়াত দেব তা সর্বস্বীকৃত বিষয় হতে হবে। এমন যেন না হয় যে, বিষয়টি আমার মনমত হয়নি অথবা আমার দল বা অন্যকারো পছন্দ হয়নি বলে আমি তা থেকে

জ্ঞানের চর্চায় ধর্মীয় উদারতা ।। ড. মুহাম্মদ ঈসা শাহেদী

‘বৃটিশ আমলে একজন ম্যারেজ রেজিস্ট্রার কাজী ছিলেন আমার দাদা মওলানা আব্দুল হাকীম চৌধুরি । মুন্সিগঞ্জের সিরাজদিখানের সাধারণ মানুষ তাদের সুখ-দুঃখের সঙ্গী এই মানুষটিকে প্রাণ দিয়ে ভালোবাসত। তার রেখে যাওয়া কিছু বই আমার সংগ্রহে আছে। সেগুলোর পাতায় তিনি আরবি ফারসিতে অনেক কথা লিখেছেন। এর পাঠোদ্ধারে সাহায্য করলে অত্যন্ত খুব খুশি হব।’ কথাগুলো ছিল সৈয়দা সুফিয়া খাতুনের।

জীবনের শুদ্ধতা ও সুস্থতায় একটুকরো হাসি ।। নাঈমা তামান্না

মহান আল্লাহ তাআলা মানুষকে সর্বোচ্চ শ্রেষ্ঠত্ব দিয়ে সৃষ্টি করেছেন। সৃষ্টির সেরা বলে ঘোষণা করেছেন। মানুষের জন্য এখন জরুরি হল এই শ্রেষ্ঠত্বের মহিমা ধরে রাখা। ধারণ করার জন্য প্রথমত অর্জন করা জরুরি। দীর্ঘ অনুশীলনের পথ ধরে তা অর্জিত হয়। যা প্রকাশ পায় মানুষের কথাবার্তা, আচার-আচরণ ও বিনয়-ন¤্রতার মাধ্যমে। যাকে শিষ্টাচার বলে। আর উত্তম শিষ্টাচার মানুষের জীবরে

আলামে বারযাখ বা কবরের জীবন ।। মোহাম্মদ মাকছুদ উল্লাহ

বারযাখুন আরবী শব্দটির বাংলা অর্থ দু‘টি জিনিসের মধ্যস্থিত আবরণ বা পর্দা। পরিভাষায় মৃত্যুর পর থেকে পুনরুত্থান পর্যন্ত সময়কে আলামে বারযাখ বলা হয়। যেহেতু পার্থিব জীবন ও জান্নাত বা জাহান্নামের মাঝে কবরের জীবন বা আলামে বারযাখ আড় বা পর্দা বিশেষ তাই একে বারযাখ বলা হয়। আর বাহ্যিকভাবে যেহেতু মৃত্যুর পর মানুষকে কবরে দাফন করা হয় এবং

জীবন

হাফেজ আমিনুল ইসলাম, হাসাড়া, মুন্সিগঞ্জ প্রশ্ন : আমাদের মসজিদে বহুদিন ধরে জুমআর দিন একটি নিয়ম চালু আছে যে, ইমাম সাহেব যখন জুমআর খুতবা দেয়ার জন্য দাঁড়ান তখন সামনের কাতারগুলোতে দানবাক্স চালিয়ে দেয়া হয়। আর পেছনের কাতারগুলোতে খাদেম নিজেই রুমাল বা থলে হাতে হেঁটে হেঁটে টাকা ওঠান। খুতবা চলাকালীন এভাবে দানবাক্স চালানো এবং রুমাল দিয়ে টাকা

সালাম সম্পর্কে দুটি কথা ।। হাজেরা সুলতানা হাসি

সালাম আরবী শব্দ, এর অর্থ শান্তি, প্রশান্তি, কল্যাণ, দোয়া, আরাম, আনন্দ, ইত্যাদি। সালাম একটি সম্মানজনক অভ্যর্থনামূলক ইসলামী অভিবাদন। আল্লাহ তাআলা সর্বপ্রথম হযরত আদম আ.-কে সালামের শিক্ষা দেন। তাঁকে সৃষ্টি করার পর আল্লাহ তাআলা তাঁকে ফেরেশতাদের সালাম দেওয়ার নির্দেশ দেন। তিনি সালাম দিলে ফেরেশতারা এর উত্তর দেন। সালামের মাধ্যমে পরস্পরের জন্য শান্তি ও কল্যাণ কামনা করা

দিনলিপি : একটি ছোট্ট হৃদয়ের আকুতি

দিনলিপি : একটি ছোট্ট হৃদয়ের আকুতি ১৮/৫/২০১৩ ঈ. আজ অঝোরে বৃষ্টি ঝরছে। চারিদিকে ঘনকালো অন্ধকার। উত্তর দিক থেকে ছুটে আসা তীব্র বাতাসের শোঁ শোঁ শব্দে চারদিকে একটি ভীতিকর পরিস্থিতি বিরাজ করছে। আশপাশের গাছগুলো প্রচ- দুলছে। হঠাৎ বিজলি চমকালেই আঁতকে উঠি। এই বুঝি মেঘ গর্জাবে, দালানগুলো কেঁপে উঠবে। পরিবেশটাকে ভীষণ অসহায় মনে হল। আমি আনমনে ভাবছি,

কবরে কে আমার সাথি হবে?

১৭.৭.৩৬ হিজরী আজ সারাটা দিন খুব বিষণœতায় কেটেছে। আম্মু বাসায় নেই। ভাইয়া মাদরাসায় চলে গেছেন। ছোট আপুর কাছে আমার সময় কাটতো। আজ সকালে ছোট আপুটাও চলে গেছে। আমি এখন একা, সম্পূর্ণ একা। কিছুটা ভয় পাচ্ছিলাম। কিছুক্ষণ পর কবরের একাকিত্বের কথা স্মরণ হয়ে গেলো। দুনিয়াতে অল্প সময়ের একাকিত্বে বিচলিত হয়ে পড়ছি, অথচ কবরে কতকাল একা থাকতে

প্রকৃত বোকার পরিচয়

মানুষকে যখন কেউ প্রশংসা করে তখন সে নিজেকে নির্ভরযোগ্য ধরে নিয়ে সত্যি সত্যি নিজেকে ভাল মনে করে। একবারও ভেবে দেখে না যে সে আল্লাহর কাছেও ভাল কিনা। এক নাপিতনী তার প্রতিবেশী এক মহিলাকে নাকের নথ খুলে মুখ ধুতে দেখেছিল। নথ খুলতে দেখে ভাবলো মেয়েটি বিধবা। দৌড়ে গিয়ে তার নাপিতকে বললো, বসে দেখছো কী? তাড়াতাড়ি মেয়েটি

যে স্বপ্ন ঘুমুতে দেয় না! || নাজমুল হুদা

ঝকঝকে সূর্য। ঝলমলে আলো। ঝরঝরে দুপুর। আমার মেজাজটাও ফুরফুরে। আজকের দিনটা অন্যদিনের চেয়ে ভিন্ন রকম লাগছে। শুক্রবার বলেই কী আজ সবকিছু অন্য রকম মনে হচ্ছে? আল্লাহ মালুম। প্রতি শুক্রবারের মত আজো আমরা বন্ধুরা জুমআ পড়ে এসে ভিন্ন ভিন্ন দস্তরখানে বসেছি। দুপুরের খাবার খাচ্ছি। যার যার মত করে বিভিন্ন বিষয়ে কথা বার্তা বলছি। ভাব আদান প্রদান

একটি প্রজাপতি || ইজহারুল ইসলাম

মন ভাল নেই। বসন্তের এই উদাস দুপুরে আনমনা হয়ে জানালার ধারে বসে আছি। সোনারোদে উজ্জ্বল লাবণ্যে-ভরা গাছের কচি পাতাগুলো দেখতে ভারি চমৎকার লাগছে। জানালার পাশে বরই গাছ থেকে পাখির কিচিরমিচির শোনা যাচ্ছে। সদ্য ফোটা আমেন মুকুলের মন মাতানো গন্ধ ভেসে আসছে বসন্তের শীতোষ্ণ বাতাসে। এমন সময় দেখি একটি প্রজাপতি রঙিন ডানা মেলে বনফুলগুলোর উপর ওড়াউড়ি

তাকওয়া-সম্পর্কিত নির্বাচিত হাদীস

১। হযরত আবু হুরায়রাহ রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, রাসূল সা.-কে জিজ্ঞাসা করা হল, সবচেয়ে সম্মানার্হ ব্যক্তিকে কে? তিনি বললেন, সকলের চেয়ে যে বেশি আল্লাহ্ভীরু। সাহাবীগণ বললেন, আমরা এ সম্পর্কে জিজ্ঞেস করছি না। তিনি বললেন, তাহলে আল্লাহর নবী ইউসুফ আ. যাঁর পিতা আল্লার নবী, তাঁর পিতা আল্লাহর নবী এবং তাঁর পিতা ইবরাহীম খলীলুল্লাহ আ.। সাহাবীগণ

তাকওয়া সম্পর্কিত নির্বাচিত আয়াত

১। এই সেই কিতাব; এতে কোনো সন্দেহ নেই, মুত্তাকিদের জন্য তা পথনির্দেশ, যারা অদৃশ্যে ঈমান আনে, সালাত কায়েম করে এবং তাদেরকে যে জীবনোপকরণ দান করেছি তা থেতে ব্যয় করে, এবং তোমার প্রতি যা নাযিল হয়েছে ও তোমার পূর্বে যা নাযিল হয়েছে তাতে যারা ঈমান আনে ও আখেরাতে যারা নিশ্চিত বিশ্বাসী, তারাই তাদের প্রতিপালক-নির্দেশিত পথে রয়েছে

রাসুলের অনুসরণ ও কেয়ামতে সুপারিশ লাভ ।। মমিনুল ইসলাম মোল্লা

আমাদের প্রিয় নবী হজরত মুহাম্মদ সা.। ইসলামী পরিভাষায় সুন্নত অর্থ হচ্ছে রাসুল সা. এর জীবনাদর্শ, যা তাঁর কথা, কাজ ও অনুমোদনের সমষ্টি। পবিত্র কুরআনে রাসুলকে অনুসরণের ব্যাপারে বহু আয়াতে তাগিদ দেয়া হয়েছে। সহিহ হাদিসের প্রতি অবহেলা প্রদর্শন করা মুসলমানের কর্তব্য নয়। সাহাবাদের নিকট রাসুল সা. কোন বিষয় বর্ণনা করলে সাহাবাগণ বলতেন, আমরা শুনলাম এবং মেনে

হাসিমুখে কথা বলা সদকা ।। আতিকুর রহমান নগরী

‎ মুসলমান একে-অপরের ভাই। কুরআন বলেছে, ‘ইন্নামাল মুমিনুনা ইখওয়াহ’ আর হাদিসে নববীতে উল্লেখ আছে ‘আল-মুসলিমু আখুল মুসলিম’ তথা মুসলিম জাতি পরস্পর ভাই ভাই। এ জগৎসংসারে আমাদের সম্পর্ক, আত্মীয়তার কিছু প্রকারভেদ রয়েছে। তবে সম্পর্ক পাকা হোক বা কাঁচা, দূরের হোক বা কাছের। সবাই তো এক নবীরই উম্মাত। আজকাল আমরা একে অপরের সাথে তুচ্ছ বিষয় নিয়ে বা


Hit Counter provided by Skylight