বিভাগ : মে – ২০১৩

ইসলামি বিধানই মালিক-শ্রমিকের অধিকার রক্ষা করে

সমস্ত প্রশংসা একমাত্র আল্লাহ তাআলার জন্য। অসংখ্য দরূদ ও সালাম বর্ষিত হোক সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ মহামানব মুহাম্মদ সা. এর ওপর এবং তাঁর অনুসারীদের উপর । প্রতি বছরের মতো এবারও ফিরে এলো মে মাস। ১ লা মে আন্তর্জাতিক শ্রম-দিবস। তাই প্রতি বছর যথারীতি তা উদযাপিত হয়। সভা-সেমিনার, বক্তৃতা-টক শো এবং বিভিন্ন ‘সাংস্কৃতিক’ অনুষ্ঠান হচ্ছে যে কোনো দিবস-উদযাপনের

আপনি খাচ্ছেন! দাওয়াত পেয়েছেন?

মাকসুদুর রহমান মারুফ : মুসলমানদের ব্যক্তিক, পারিবারিক ও সামাজিক জীবনে নবীজি সা. এর অনেক আদর্শই আজ অবহেলিত। অবশ্য আলেমগণের র্দস, বক্তৃতা ও লিখনীতে অবিরাম গতিতে তা চালু রয়েছে। তবে দু’একটি বিষয় ইদানীং যেন লিখনী-বক্তৃতা থেকেও দূরে রয়ে যাচ্ছে। মনে পড়ে সেই সুপরিচিত প্রবাদÑ “সারা শরীর ক্ষত, মলম লাগাবে কত।” এ রুগ্ন সমাজে রাসুলুল্লাহ সা. এর

জবান হেফাজতের গুরুত্বজবান হেফাজতের গুরুত্ব

আবু ওয়াফা মানসুর আহমাদ : আল্লাহপাক মানুষকে বাকশক্তি দান করেছেন। নিজের কথা অপরকে বুঝানোর জন্য মানুষ হাজার রকমের শব্দ উচ্চারণ করতে পারে। এ যোগ্যতা অন্য কোনো প্রাণীর নেই। গরু, ছাগল, কুকুর, বিড়াল সব সময় একই রকম শব্দ উচ্চারণ করে। মানুষের প্রতি এই নেয়ামতের কথা আল্লাহপাক সূরায়ে রহমানের শুরুভাগে আলোচন করছেন। ইরশাদ হচ্ছে-‘তিনি মানুষকে সৃষ্টি করেছেন

রাসুল সা. এর বিস্ময়কর মুজিজাসমূহ

জাকির হোসাইন আজাদি : রাসুল সা. ছিলেন সর্বকালের সকল মানবতার জন্য শ্রেষ্ঠ পয়গম্বর। তাঁর ওপর যে ধর্ম আল ইসলাম দান করা হয়েছে তা কেয়ামত পর্যন্ত অনুকরণীয়, অনুসরণীয় হিসেবে টিকে থাকবে। কেয়ামত অবধি যত মানুষ পৃথিবীতে আসবেন সবাই রাসুল সা. এর আদর্শ মোতাবেক জীবন যাপন করবেন। এটাই নির্ধারিত। আল্লাহ সুবহানাহু ওয়াতা’আলা মুহাম্মদকে সা. দান করেছেন বিশ্বের

হাশরের ময়দানে উপস্থিতদের বিভিন্ন অবস্থা

সংকলনে : সৈয়দা সুফিয়া খাতুন : ভিখারীর অবস্থা হযরত আবদুল্লাহ ইবনে ওমর রা. থেকে বর্ণিত, রাসুলুল্লাহ সা. ইরশাদ করেছেন, মানুষ অন্য মানুষদের কাছে ভিক্ষা চাইতে চাইতে এমন অবস্থায় উপনীত হয় যে, কেয়ামতের দিন সে এমন অবস্থায় উপস্থিত হবে, যখন তার চেহারায় গোশতের কিছুই থাকবে না।  [বুখারি, মুসলিম] অর্থাৎ ভিখারীদের লাঞ্ছিত, অপমানিত করার জন্যই এমন অবস্থায়

ইসলামে নারীর মর্যাদা জাতীয় নেতৃত্ব

নাজমা সুলতানা : ইসলাম একটি পূর্ণাঙ্গ জীবন ব্যবস্থা। এ জীবন ব্যবস্থা মানুষের শুধু ব্যক্তিগত নয় বরং সকল মানুষের সমন্বিত জীবন ব্যবস্থা । আর এ জীবন ব্যবস্থা মানুষের ব্যক্তিজীবন থেকে শুরু করে রাষ্ট্রীয় এবং আন্তর্জাতিক জীবন পর্যন্ত বিস্তৃত। আল্লাহ রাব্বুল আলামীন আল কুরআনে ইরশাদ করেছেন,  “যে কেউ ইসলাম ছাড়া অন্য কোনো মতাদর্শ অবলম্বন করবে, তার থেকে

সফলতা ও ব্যর্থতা

ফুআদ ছফিউল্লাহ : বহুদূরে। নীরবে নির্বিঘেœ ইবাদত করব আল্লাহর। নিবিড় ও গভীর ভালোবাসার বন্ধন রচনা করব প্রভুর সাথে। কিন্তু রাজ্যের সাম্ভাব্য বিশৃঙ্খলা এবং বিভক্তির আশংকায় আমি এ দায়িত্ব গ্রহণ করি। যখন সিংহাসনে বসি তখন রাজার পোশাক পরে থাকি। আর যখন অন্দর মহলে চলে যাই তখন চট-ছালার মোটা পোষাক পরে আল্লাহর ইবাদতে ডুবে থাকি। সারারাত ইবাদত

সালাম ও মুসাফাহা আদব ও মাসায়েল

মুফতি পিয়ার মাহমুদ : ইসলাম একটি সার্বজনীন ধর্ম। মানবজীবনের এমন কোনদিক নেই যার পূর্নাঙ্গ বিবরণ দেয়নি ইসলাম। ব্যক্তিজীবন, পারিবারিকজীবন, সামাজিকজীবন, আর্ন্তজাতিক পরিমন্ডল সকল ক্ষেত্রেই চলার জন্য ইসলাম দিয়েছে বিস্তারিত ও ভারসাম্যপূর্ণ বিধান। পরস্পরে দেখা-সাক্ষাত মানবজীবনের অপরিহার্য অনুষঙ্গ। প্রত্যেক গোত্র, জাতি ও ধর্মালম্বীই মেনে চলে সেই দেখা-সাক্ষাতের শিষ্টাচার ও রীতি-নীতি।  একে-অপরের সঙ্গে সাক্ষাত হলে ব্যবহার করে

মেওয়াত যেখানে জ্বলে উঠেছিল হেদায়েতের মশাল

জসিমউদদীন আহমাদ : দিল্লি অভিজাত শহর। অভিজাত মানুষের বসবাস এখানে। শিক্ষাদীক্ষা, অর্থবিত্তে পুরোদুস্তর আধুনিক এখানকার বাসিন্দারা। ভোগ্যসামগ্রী ও বিলাসব্যসনের কোনো অভাব নেই এখানে। মোঘলআমলের রাজনবর্গের বসতি ছিল দিল্লি। ঐতিহাসিক লালকেল্লার অবস্থানও এখানে। উচ্চপদস্থ কর্মকতা, আমির-ওমারা ও উচ্চপদস্থদের বাস যে শহরে তাতো আর দশটা অঞ্চল থেকে ভিন্ন হবেই। এখানে আছে বৃহদাকার শিক্ষায়তন। আছে অভিজাতশ্রেণির আবাসিক বসতি।

অকাল মৃত্যু বলে কিছু নেই

আলী হাসান তৈয়ব : মিডিয়ার বদৌলতে আজকাল অকাল মৃত্যু শব্দের সঙ্গে কমবেশি সবাই পরিচিত। মিডিয়ায় শব্দটির ব্যবহার এতই অবিরল যে সচেতন অনেক মুসলিমও শব্দটি অবচেতনে উচ্চারণ করে বসেন। রাজনৈতিক নেতা বা কোনো অঙ্গনের তারকার অপ্রত্যাশিত মুহূর্তে বা অপরিণত বয়সে মারা গেলেই সেটাকে অকাল মৃত্যু হিসেবে আখ্যায়িত করা হয়। দীর্ঘদিন যাবৎ শব্দটি আমাকে পীড়া দিয়ে আসছিল।

সমাজের মানুষের সাথে প্রিয় নবীজি সা.

মাওলানা শিব্বীর আহমদ : সমাজের মানুষ ছিলেন প্রিয় নবীজি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম। সামাজিকতার সবগুণই বিদ্যমান ছিল তাঁর চরিত্রে। তিনি আল্লাহর নবী, এবং সর্বশেষ নবী। এদিক থেকে তাঁর সমকক্ষও কেউ নেই। কিন্তু তাই বলে তিনি জনবিচ্ছিন্ন হয়ে কিংবা সাধারণ মানুষ থেকে কোনো দুরত্ব বজায় রেখে চলাফেরা করেননি কখনো। ছোট-বড় ধনী-গরিব কেউ তাঁকে পর মনে করার সুযোগ

স্মৃতির মিনারে কীর্তিমান মহাপুরুষ শায়খে বালিয়া রহ.

মাহমুদ ইসমাঈল : ১৪২৭ হি./২০০৬ ঈসায়ি। কওমি শিক্ষাবর্ষের শুরুর দিকের কথা। তখন আমি দেশের ঐতিহ্যবাহী দীনী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জামিয়া আবারিয়া মাখযানুল উলূম তালতলা, মোমেনশাহীর তাকমিল মারহালায় অধ্যয়নরত। দীর্ঘদিন যাবৎ জামিয়ার তাকমীল মারহালার ছাত্রদেরকে বুখারি ১ম খণ্ডের দরস দিয়ে আসছিলেন খ্যাতিমান আলেমেদীন শায়খুল হাদিস আব্দুল হক সাহেব দা. বা.। হঠাৎ সংবাদ পেলাম এ বছর তিনি  জামিয়ায়

আব্বার ছিলেন আদর্শ পুরুষের প্রতিচ্ছবি

আলেমা শামীমা : আব্বার তাহাজ্জুদ : আব্বার নিয়ম ছিল তিনি সারা বৎসর প্রতি রাত্রে তাহাজ্জুদের নামাজ আদায় করতেন। তবে মাঝে মাঝে তিনি ওজর বশত তাহাজ্জুদ কাজা করতেন। যেমন অসুস্থতার কারণে, বার্ধ্যক্যের দুর্বলতার কারণে। ডায়বেটিস প্রায় সারা বৎসরই ২০/২২ পয়েন্টে থাকত, তার পরও আমরা দেখতাম শেষ রাত্রে হয়তো আব্বা অজু করতেছেন, না-হয় নামাজে দাঁড়িয়ে আছেন, না-হয়

জিকির দূর করে অন্তরের অস্থিরতা

al-jannatbd.com, আল জান্নাত । মাসিক ইসলামি ম্যাগাজিন, al-jannatbd.com, quraner alo, মাসিক জান্নাত, islamer alo, www.al-jannatbd.com, al-jannat, bangla islamic magazine, bd islam, islamic magazine bd, ব্লগে জান্নাত, জান্নাতের পথ, আল জান্নাত,

এমদাদুল হক তাসনিম : জিকির মানে আল্লাহকে ডাকা, স্বরণ করা। এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ আমল ও ইবাদত। এ আমলটি সর্বদা এবং সবসময় করা যায়। নির্দিষ্ট কোনোদিন বা সময়ের সঙ্গে এর সম্পৃক্ততা নেই। উঠাবসা, চলাফেরা, বাড়িতে-ভ্রমণে এর ওপর আমল করা যায়। প্রত্যেক মুমিন মুসলমানের কর্তব্য আল্লাহ তাআলাকে ডাকা স্মরণ করা। সদা-সর্বদা তার জিকির আজকার করা। জিকিরের নির্দিষ্ট

ফিরআউন কন্যার কেশ বিন্যাসকারিণী দাসীর ঈমানদীপ্ত কাহিনী

al-jannatbd.com, আল জান্নাত । মাসিক ইসলামি ম্যাগাজিন, al-jannatbd.com, quraner alo, মাসিক জান্নাত, islamer alo, www.al-jannatbd.com, al-jannat, bangla islamic magazine, bd islam, islamic magazine bd, ব্লগে জান্নাত, জান্নাতের পথ, আল জান্নাত,

মাওলা আবুল কালাম : মাআলিমুত্ তানযিল গ্রন্থে আছে, মাশেতা নামক একজন মহিলা ফিরআউন কন্যার চুল আঁচড়ানোর কাজে নিয়োজিত ছিল। কোনো একদিন ফিরআউন কন্যার চুল আঁচড়ানোর সময় সহসা চিরুণি হাত থেকে মাটিতে পড়ে গেল। তা ওঠাতে ওঠাতে আনমনে তার মুখ থেকে বের হয়ে পড়ল হে খোদা! তোমাকে অমান্যকারী ধ্বংস হোক। এ কথায় ফিরআউনের কন্যার সন্দেহ হলে

এটাও চুরি : মূল : আল্লামা তাকি ওসমানি

অনুবাদ : মুফতি হুমায়ূন কবির : হাকিমুল উম্মত মাওলানা আশরাফ আলি থানবি রহ. একবার সাহারানপুর থেকে কানপুর যাচ্ছিলেন। রেলগাড়িতে ওঠার জন্য স্টেশনে গিয়ে অনুভব করলেন, তার সাথে নির্দিষ্ট পরিমাণ থেকে বেশি জিনিসপত্র রয়েছে, যা একজন যাত্রী বুক করানো ব্যতিরেকে নিয়ে যেতে পারে না। তাই তিনি সামান বুক করানোর জন্য ওই কাউন্টারে গেলেন, যেখানে জিনিসপত্রের ওজন

ঈমানের যত শাখা-প্রশাখা

মোহাম্মদ মাকছুদ উল্লাহ : জীবনের চেয়ে ঈমানের মূল্য বেশি। মানুষের জীবনের রয়েছে তিনটি স্তর। যথা:- ক. রুহের জগৎ খ. পার্থিব জগৎ গ. পরকালীন জগৎ। পবিত্র কুরআনে ইরশাদ হয়েছে- আর স্মরণ করো যখন তোমার রব আদম সন্তানদেরকে প্রজন্ম পরম্পরায় তাদের পৃষ্ঠদেশ থেকে বের করলেন এবং তাদেরকে নিজেদের সম্পর্কে অঙ্গীকার করালেন, আমি কি তোমাদের রব নই তারা

দেশ-বিদেশের খবর

মোবাইল চার্জ করবে সোলার শার্ট! মোবাইল ফোন ছাড়া এই সময়ে আর একটি দিনও কল্পনা করা যায় না। মোবাইল ফোন যেমন জীবনের অপরিহার্য অংশে পরিণত হয়েছে, তেমনি মোবাইল ফোনের চার্জিং নিয়েও চিন্তার পরিমাণটা বেড়েই চলেছে। কখন কোথায় মোবাইল ফোনের চার্জ শেষ হয়ে যাবে, সেই আশংকা যাদের কাজ করে সবসময়, তাদের জন্য এবারে তৈরি হয়েছে বিশেষ ধরনের

ধারাবাহিক উপন্যাস : রাজকুমারী

সাদেক হোসেন পূর্ব প্রকাশিতের পর…… পরমদেব ও শিকদেব-এর নিকট মহারাজার এই জবাব অপছন্দনীয় হলেও এখন মেনে নেওয়া ছাড়া কোনো উপায় নেই। কারণ, সোমনাথ রক্ষার জন্য এখন লাখ-লাখ যোদ্ধা সেখানে ইপস্থিত। তাই সোমনাথের মহারাজার শক্তি এখন অনেক বেশি। কিছুতেই এখন তাকে কাবু করা যাবে না। রাজকুমুমারী চন্দ্রমুখী অত্যন্ত রূপসী। শুধু এ-কারণেই রাজা পরমদেব রাজকুমারীর সঙ্গে তার

শয়তানের ডায়েরি

মোছাঃ উম্মে হাবিবা : পির আলী- বে-নামাজীকে এত ভাল জান কেন? এবং তাহাদের জন্য এত দোয়াই বা কর কেন? শয়তান-  হুজুর! বেনামাজীরা আমার সকল আত্মীয় স্বজনের চেয়েও বেশি ঘনিষ্ট। ইহারা যে কঠিন দায়ীত্ব সম্পন্ন করিয়া থাকে তাহা অন্য আর কাহারও পক্ষে সম্ভবপর নয় : বে-নামাজীকে আল্লাহ তাআলা বেশি অপছন্দ করেন; আর আমি নামাজীকে অভিশাপ করি।

কাব্যগুচ্ছ : আল্লাহ তুমি দয়াময় , মোসাদ্দাস-ই-হালী

আল্লাহ তুমি দয়াময় সৈয়দা সুফিয়া খাতুন আল্লাহ তুমি যা বলেছো সত্য বলেছো তোমার দেয়া ঐশি বাণী একটিও মিথ্যা নয়। কষ্টি পাথর দিয়ে যাচাই করা হিরা, মনি-মুক্তা দিয়ে সাজিয়ে রাখা হৃদয়ের মাঝে লুকিয়ে রাখা যেমন সত্য তেমন মিষ্টি। হৃদয় নিংড়ানো ভালবাসা ফুলের মতো মিষ্টি ছোয়া, লাল আগুনের ভয় দেখানো আকাশ ছোয়া ক্ষমা করা বিজ্ঞান দিয়ে শিক্ষা


Hit Counter provided by Skylight