বিভাগ : মাসলা-মাসায়েল

রমজান, রোযা ও যাকাত-ফিতরার বিস্তারিত মাসায়েল / মাওলানা মুহাম্মদ হেমায়েত উদ্দীন

রমজানের রোজা সুবহে সাদেক থেকে সূর্যাস্ত পর্যন্ত নিয়ত সহকারে ইচ্ছাকৃতভাবে পান, আহার ও যৌন তৃপ্তি থেকে বিরত থাকাকে রোজা বলা হয়। প্রত্যেক আকেল  (বোধ সম্পন্ন), বালেগ (বয়সপ্রাপ্ত) ও সুস্থ নর-নারীর উপর রমজানের রোজা রাখা ফরজ। ছেলে-মেয়ে দশ বৎসরের হয়ে গেলে তাদের দ্বারা (শাস্তি দিয়ে হলেও) রোজা রাখানো কর্তব্য। এর পূর্বেও শক্তি হলে রোজা রাখার অভ্যাস

দৈনন্দিন মাসায়েল : নামাজের মাসায়েল : নামাজের ধারাবাহিক বর্ণনা / মাওলানা শিব্বীর আহমদ

নামাজের ফরজসমূহ নামাজ শুরুর পূর্ব থেকে শুরু করে নামাজের শেষ পর্যন্ত মোট তেরটি কাজ ফরজ। কোনো নামাজে এগুলোর কোনো একটিও যদি ছুটে যায় তাহলে নামাজ হবে না। সেই নামাজ তখন পুনরায় আদায় করতে হবে। নামাজের বাইরে সাত ফরজ। ১. নামাজের জায়গা পবিত্র রাখা; ২. শরীর পবিত্র রাখা; ৩. জামা পবিত্র রাখা; ৪. সতর ঢেকে রাখা;

দৈনন্দিন মাসায়লে : নামাযরে ধারাবাহকি র্বণনা / মাওলানা শিব্বীর আহমদ

  ১. নিয়ত : নামাজের শুরুতে নিয়ত করা জরুরি। তবে মুখে উচ্চারণ করে নিয়ত করা জরুরি নয়। মনে মনে নিয়ত করাও যথেষ্ট। নিয়ত করুন—কোন নামাজ পড়ছেন, কত রাকাত পড়ছেন, তা ফরজ সুন্নত ওয়াজিব না নফল। ইমামের পেছনে হলে সেটিও নিয়ত করতে হবে। ২. তাকবিরে তাহরিমা : নিয়তের পর ‘আল্লাহু আকবার’ বলে নামাজ শুরু করতে হবে।

জীবন-জজ্ঞিাসা

মীলাদের হুকুম ও তার উৎপত্তির ইতিহাস প্রসঙ্গে আলমগীর হোসেন, পূর্ব রাজদিয়া, সিরাজদিখান। প্রশ্ন : বর্তমানে যে মীলাদ ও কিয়াম করা হয় তা জায়িয আছে কি না? যদি জায়িয থাকে তাহলে প্রমাণসহ জানতে চাই। আর যদি জায়িয না থাকে তাহাও দলীল-প্রমাণ দ্বারা জানতে চাই। মীলাদ-কিয়াম সাহাবারা করেছেন কি-না এবং বর্তমানে যে মীলাদ কিয়াম হয়ে থাকে তা

তায়াম্মুমের মাসায়েল / মাওলানা শিব্বীর আহমদ

তায়াম্মুম হলো ওজু-গোসলের বিকল্প। যদি কেউ এমন অসুস্থ হয়―ওজু করলে তার রোগ বৃদ্ধি পাবে কিংবা যদি কেউ ওজু করার মতো পানি না পায় তাহলে ওজুর পরিবর্তে সে তায়াম্মুম করবে। গোসল ফরজ অবস্থায় যদি কেউ এমন সংকটের মুখোমুখি হয় তাহলে সেও তায়াম্মুম করবে। ওজুর পরিবর্তে হোক আর গোসলের পরিবর্তে হোক, তায়াম্মুমের নিয়ম একটাই। তায়াম্মুমের ফরজ তায়াম্মুমের

ওজুর মাসায়েল / মাওলানা শিব্বীর আহমদ

(গত সংখ্যার পর) যেসব কারণে ওজু ভেঙ্গে যায় ১)    প্রস্রাব-পায়খানার রাস্তা দিয়ে যে কোনো কিছু বের হওয়া। ২)    শরীরের কোনো স্থান থেকে রক্ত পুঁজ বা পানি বেরিয়ে গড়িয়ে পড়া। ৩)    মুখ ভরে বমি করা। ৪)    দাঁত দিয়ে রক্ত বের হলে তা থুথুর সমান বা বেশি হওয়া। ৫)    চিৎ-কাত হয়ে কিংবা কিছুতে হেলান দিয়ে ঘুমানো। ৬)  

হজ আদায়ে আমরা যে সকল ভুল-ভ্রান্তি করে থাকি / মুফতী পিয়ার মাহমুদ

আল্লাহ তাআলা তাঁর অনুগ্রহে মুমিন বান্দাকে এমন কিছু ইবাদত দান করেছেন যার দ্বারা সে আত্মার প্রশান্তি এবং দুনিায়া ও আখেরাতের সীমাহীন বরকত ও কল্যাণ লাভ করে থাকে। এ জাতীয় ইবাদতেরই একটি হলো হজ। হজের ফযীলত বর্ণনায় আবু হুরায়রা রা. বলেন, আমি রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামকে ইরশাদ করতে শুনেছি, ‘যে ব্যক্তি অশ্লীলতা ও কটূক্তি থেকে

দৈনন্দিন মাসআলা-মাসায়েল : ওজুর মাসায়েল / মাওলানা শিব্বীর আহমদ

ওজুর ফজিলত নামাজকে বলা হয় দীনের স্তম্ভ, আর নামাজের চাবি হলো ওজু। নামাজ পড়তে হলে প্রথমেই ওজু করে পবিত্রতা হাসিল করতে হয়। রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, ‘কারও ওজু ভেঙ্গে গেলে পুনরায় ওজু করা পর্যন্ত তার কোনো নামাজই কবুল করা হয় না।’ [সহীহ বুখারী, হাদীস : ১৩৫] ওজুর ফরজ ওজুর ফরজ চারটিÑ ১. সমস্ত মুখম-ল

জীবনজিজ্ঞসা

মুহাম্মাদ সুলাইমান কেরানিগঞ্জ, ঢাকা প্রশ্ন: গ্রামাঞ্চলে প্রচলিত আছে যে, কারো হাত থেকে বা হাত লেগে কুরআন শরীফ মাটিতে প ড়ে গেলে, কুরআন শরীফের ওজনে খাদ্য-শষ্য সদকা করতে হয়। আবার অনেক এলাকায় কুরআন শরীফের ওজনের কথা নেই, শুধু মসজিদে বা গরীবদের মাঝে দান-সদকা করাকে জরুরী মনে করা হয়। এ ব্যাপারে শরয়ী দৃষ্টিভঙ্গী কী? উত্তর: কারো হাত

যে সমস্ত কারণে রোযা নষ্ট হয় না : মুফতি আলী হোসাইন

রোযা ইসলামের পঞ্চভিত্তির অন্যতম ভিত্তি। বছর ঘোরে মানব জীবনে প্রতিবারই ফিরে আসে এই রমযান মাস। পূর্ণ একমাস রোযা রাখা সকল বালেগ পুরুষ, মহিলার জন্য ফরজ। আর এই সম্পর্কে কিছু মাসআলা যা জানা থাকা আমাদের প্রত্যেকেরই জরুরি। তাই রোযাদার ভাইদের জ্ঞাতার্থে বলছি, এমন কিছু বিষয় আছে, যার দ্বারা রোযা নষ্ট বা মাকরূহ হয় না। এ সমস্ত

জীবন জিজ্ঞাসা

al-jannatbd.com, আল জান্নাত । মাসিক ইসলামি ম্যাগাজিন, al-jannatbd.com, quraner alo, মাসিক জান্নাত, islamer alo, www.al-jannatbd.com, al-jannat, bangla islamic magazine, bd islam, islamic magazine bd, ব্লগে জান্নাত, জান্নাতের পথ, আল জান্নাত,

মুহাম্মাদ শফীকুল ইসলাম, জামিয়া ইসলামিয়া হবিগঞ্জ। প্রশ্ন: হাদীস শরীফে আছে, যে ব্যক্তি একান্ত নিষ্ঠার সাথে আল্লাহর কাছে শাহাদাত কামনা করবে, আল্লাহ তা‘আলা তাঁকে শহীদের মর্যাদা দান করবেন। যদিও সে আপন বিছানায় মৃত্যু বরণ করে। যদি তাই হয়, তাহলে তিনি যে কাপড় পরিহিত অবস্থায় মৃত্যু বরণ করবেন, সেই কাপড় দিয়েই কি দাফন করতে হবে? আর তিনি

জীবন জিজ্ঞাসা

al-jannatbd.com, আল জান্নাত । মাসিক ইসলামি ম্যাগাজিন, al-jannatbd.com, quraner alo, মাসিক জান্নাত, islamer alo, www.al-jannatbd.com, al-jannat, bangla islamic magazine, bd islam, islamic magazine bd, ব্লগে জান্নাত, জান্নাতের পথ, আল জান্নাত,

মুহাম্মাদ সাখাওয়াত হুসাইন, আশুলিয়া, সাভার, ঢাকা। প্রশ্ন : কোনো কাফির মুশরিক জান্নাতে যাবে কি না ? উত্তর : কোনো কাফির মুশরিক ঈমান না আনলে জান্নাতে যাবে না। তারা চিরদিন জাহান্নামে থাকবে। তবে তাদের বিভিন্ন ভালো কাজের বিনিময় পৃথিবীতে বিভিন্নভাবে তাদেরকে দিয়ে দেয়া হবে।-সূরা আল-বাইয়িনাহ  ৬,  সূরা আল-আ‘রাফ: ৪০, তাফসীরে ইবনে কাসীর: ২/২১৩-২১৪। মুহাম্মদ ইউসূফ নাদীম,

মোবাইলের সঠিক ব্যবহার ওজরুরি মাসায়েল : মুফতি নাজমুল হাসান

আধুনিক জ্ঞান-বিজ্ঞানের এক নব আবিস্কার হলো মোবাইল ফোন। বাদশাহ ফকির, নারী-পুরুষ, যুবক-যুবতী, শিশু-কিশোর সকলের হাতেই এখন মোবাইল। কেমন যেন, মোবাইল ফোনটি আজকাল জীবনের একটি অংশ হয়ে দাঁড়িয়েছে। আর মানুষের জীবনকে করেছে গতিময়। আগের যামানায় যে কাজে দীর্ঘ সময়ের প্রয়োজন হত, বর্তমানে তা মুহূর্তের মধ্যে হয়ে যায়। এদিকে লক্ষ করলে বুঝে আসে মোবাইল অত্যন্ত জরুরি একটি

জীবন জিজ্ঞাসা : উত্তর দিচ্ছেন- মুফতি মানসুর আহমাদ

অন্যের নামে কুরবানি প্রসঙ্গ। মুহা. আফজাল হুসাইন, কুমিল্লা। প্রশ্ন : আমার এক ছেলে বিদেশে থাকে। প্রতি বছর কুরবানি করার সময় গরুর এক সপ্তমাংশ তার নিয়তে করে থাকি। কোনো কোনো বছর তাকে জানানো হয়, আবার কোনো কোনো বছর জানানো হয় না। কারণ, আমি মনে করি, তার তো এ ব্যাপারে ধারণা আছেই। ইদানীং একজন আমাকে বলেছেন, বিষয়টা

জীবন জিজ্ঞাসা

প্রশ্ন : করয দেয়া টাকার উপর যাকাত আসবে কি না? আরিফ বিল্লাহ, মাদারগঞ্জ। উত্তর : করয দেয়া টাকা উসুল হওয়ার পর উক্ত টাকার যাকাত দিতে হবে এবং বিগত বছরসমূহে উক্ত টাকার যাকাত না দিয়ে থাকলে সেই যাকাতও দিতে হবে। তবে কেউ যদি করযের টাকার উসুল হওয়ার পূর্বে প্রতি বছর উক্ত টাকার যাকাত দিয়ে দেয়, তাহলেও

জেনে নিই

জেনে নিই হজ্জ ও উমরার ফজিলত ১. রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ইরশাদ করেছেন : যে হজ্জ গোনাহ এবং খারাবী থেকে পবিত্র হয়, জান্নাতই হল তার পুরস্কার। [বুখারী ও মুসলিম] ২. রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ইরশাদ করেছেন : এক উমরার পর আরেক উমরা করলে দুই উমরার মধ্যবর্তী সব গোনাহ মোচন হয়ে যায়। [প্রাগুক্ত] ৩. রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু

জীবন জিজ্ঞাসা

প্রশ্ন : হজ্জের ফরজ, ওয়াজিব, সুন্নাত, নফল ও মুস্তাহাব সম্বন্ধে বিস্তারিত জানতে চাই। মানিক, নেত্রকোণা। উত্তর : হজ্জের ফরজ তিনটি : ১. মীক্বাত হতে ইহরাম বাধা। ২. ৯ই জিলহজ্জ তারিখ জোহরের পর হতে ১০ই জিলহজ্জের সুবহে সাদেকের পূর্ব পর্যন্ত ওকূফে আরাফা তথা আরাফার প্রান্তরে অবস্থান। ৩. ১০, ১১ বা ১২ জিলহজ্জ তারিখ সূর্যাস্তের পূর্বে কাবা

রোযা সংক্রান্ত আধুনিক মাসাইল

১. মস্তিস্ক অপারেশন রোযা অবস্থায় মস্তিস্ক অপারেশন করলে রোযা ভঙ্গ হবে না। যদিও মস্তিস্কে কোন তরল কিংবা শক্ত ওষুধ ব্যবহার করা হয়। কেননা মস্তিস্ক থেকে গলা পর্যন্ত সরাসরি কোন ছিদ্র ও পথ নেই। পূর্ব যুগে ছিদ্র ও পথ আছে ধারণা করেই এতে রোযা ভেঙ্গে যাওয়ার কথা বিভিন্ন কিতাবাদিতে উল্লেখ রয়েছে। ২. কানে ওষুধ বা ড্রপ

জীবন জিজ্ঞাসা ও পরামর্শ

প্রশ্ন :  আমরা জানি মানুষের মৃত্যুর পর তার রূহ আল্লাহ পাকের নিকট চলে যায়। উক্ত ব্যক্তির দাফনের পর রূহকে কবরে এনে সওয়াল-জওয়াব করা হয়? আমার প্রশ্ন হচ্ছে এই যে, তারপর রূহ কি পুনরায় কবর হতে নিয়ে যাওয়া হয়? আর সেখান থেকে রূহ নেয়া না হলে উক্ত রূহ আমাদেরকে দেখতে পায় কি-না? অনেকে বলে, মৃত ব্যক্তির

প্রশ্ন উত্তর ও পরামর্শ

সম্পদ সঞ্চয় ও সংরক্ষণের মাসায়েলঃ ১. জরুরী দায়িত্ব আদায় করার পর সাধারণ অবস্থায় নিজের এবং নিজের সন্তানাদি ও পরিবারের জন্য কিছুটা সঞ্চয় রাখা উত্তম, যাতে পরে নিজেকে ও নিজের সন্তানাদিকে অন্যের কাছে হাত পাততে না হয়। (হায়াতুল মুসলিমীন) ২. সুদ ভিত্তিক ব্যাংকে টাকা রাখা জায়েয নয়। কারণ, এতে সুদ ভিত্তিক কারবারের অন্যায়ে সহযোগিতা করা হয়।


Hit Counter provided by Skylight