দৈনিক সংরক্ষণাগার: April ১৬, ২০১৮

সম্পাদকীয়

মানুষ সত্তাগতভাবেই স্বাধীন। প্রতিটি মানুষ তার স্বাধীনতা নিয়েই এই পৃথিবীতে আসে। পৃথিবীর বুকে প্রতিটি মানুষের রয়েছে স্বাধীনতা ভোগ করার সমান অধিকার। আল্লাহ তাআলা মানুষকে এক সহজাত স্বাধীনচেতা সত্তা দিয়ে গঠন করেছেন, তাই মানবসত্তা একমাত্র মহান সৃষ্টিকর্তা ছাড়া অন্য মানুষের সামনে নতি স্বীকার করা বা অপরের অধীন হওয়া মেনে নিতে পারে না। আল্লাহ তাআলা ইরশাদ করেছেন

ভ্রাতৃত্ব সম্পর্কিত নির্বাচিত আয়াত

১। “কিভাবে তোমরা সত্য প্রত্যাখ্যান করবে যখন আল্লাহর আয়াতসমূহ তোমাদের নিকট পঠিত হয় এবং তোমাদের মধ্যে তাঁর রাসূল রয়েছেন? কেউ আল্লাহকে দৃঢ়ভাবে অবলম্বন করলে সে অবশ্যই সরল পথে পরিচালিত হবে। হে মুমিনগণ! তোমরা আল্লাহকে যথার্থভাবে ভয় কর এবং তোমরা আত্মসমর্পণকারী না হয়ে কোন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করো না। তোমরা সকলে আল্লার রজ্জু দৃঢ়ভাবে ধর এবং পরস্পর

ভ্রাতৃত্ব সম্পর্কিত নির্বাচিত হাদিস

১। হযরত আবু আইয়ুব আনসারী রা. হতে বর্ণিত, তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, কোন মুসলমান ব্যক্তির জন্য এটা বৈধ নয় যে, সে তিন দিনের বেশি সময় অপর কোনো মুসলমান ভাইকে ত্যাগ করে। অর্থাৎ তারা কোথাও একে অপরের সম¥ুখীন হলে একজন এদিকে মুখ ফিরিয়ে নেবে এবং অপরজন ওদিকে মুখ ফিরিয়ে নেবে। তাদের দুজনের মধ্যে

পরকাল ভাবনা : মাওলানা আহমদ মায়মূন

আল্লাহ তাআরা তওবাকারীকে পছন্দ করেন। পবিত্র কুরআনে আল্লাহ তাআলা বলেন, নিশ্চয় আল্লাহ তাওবাকারীদেরকে ভালোবাসেন, আর ভালোবাসেন পরিচ্ছন্নতা অবলম্বনকারী লোকদেরকে। [সূরা বাকারা : আয়াত ২২২] যখন কারও অন্তরে পরকালের ভয় জাগ্রত হয় তখন সে বাহ্যিকভাবে এবং মানসিকভাবে আল্লাহ তাআলার অনুগত হওয়ার চেষ্টা করে। এ জন্য সে নিজের জীবনে কৃত অন্যায় অপরাধ ও ভুলত্রুটির জন্য অনুতপ্ত হয়

জীবন হোক আল্লাহতে সমর্পিত : ড. মুহাম্মদ ঈসা শাহেদী

এক দরবেশ আশ্রয় নিয়েছিলেন গহীন বনে। লোকালয় ছেড়ে নির্জন সাধনায় তার একমাত্র সাথী ছিল নিদ্রা। তার সব প্রয়োজন-চাহিদা মিটে যেত আল্লাহর পক্ষ হতে। তাই মানুষের সংশ্রবে তিনি অস্বস্তিবোধ করতেন। লোকালয়ের স্বাভাবিক জীবন ছেড়ে নির্জন সাধনা কীভাবে কারো ভাল লাগে, এ প্রশ্ন কারো মনে জাগতে পারে। মওলানা রূমী র. জবাবে বলেন, যাকে যে কাজের জন্য সৃষ্টি

হযরত খালেদ ইবনে ওলীদ রা. এর ইসলাম গ্রহণ, সংকলন : সৈয়দা সুফিয়া খাতুন

হযরত খালেদ ইবনে ওলীদ রা. বলেন, আল্লাহ তাআলা যখন আমার মঙ্গলের ইচ্ছা করলেন তখন আমার অন্তরে ইসলামের প্রতি আগ্রহ সৃষ্টি করলেন এবং আমার সামনে হেদায়েতের পথ উন্মুক্ত করে দিলেন। আমি মনে মনে ভাবতে লাগলাম যে, আমি হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের বিরুদ্ধে সকল যুদ্ধে অংশগ্রহণ করেছি, কিন্তু যুদ্ধ হতে ফেরার পর প্রত্যেক বারই মনে হয়েছে

ক্ষুদ্রঋণের কালো থাবা, বিকল্প হতে পারে করযে হাসানা : মুফতী পিয়ার মাহমুদ

সুদভিত্তিক অর্থনৈতিক ব্যবস্থার পাগলা ঘোড়া তাবৎ দুনিয়া দাবড়িয়ে বেড়াচ্ছে বেদম গতিতে। এর লাগাম টেনে ধরার বা একে থামানোর আপাতত বৈষয়িক কোনো শক্তি আছে বলে মনে হয় না। অবস্থা এই দাড়িয়েছে যে, সুদী লোন ছাড়া বড় মাপের কোনো কিছু করার কল্পনাই করা যায় না। ফলে অভিশপ্ত এ অর্থনৈতিক ব্যবস্থার নাগপাশে আবদ্ধ হয়ে পড়েছে সকল মানুষের জীবন।

ইসলামে ইবাদত-বন্দেগীর স্বরূপ : ড. মোহাম্মদ আরিফুর রহমান

ইবাদত সম্পর্কে ইসলামের দৃষ্টিভঙ্গি : ইসলামের শিা অনুযায়ী মহান আল্লাহ তায়ালা হচ্ছেন সমগ্র বিশ্ব জগতের মহান শ্রষ্টা এবং প্রভু। তিনিই সমস্ত বিশ্ব জাহানের নিয়ন্ত্রতা ও সার্বভৌম মতার মালিক। তিনি একক ও অদ্বিতীয়, তাঁর কোনো অংশীদার নেই এবং তাঁর জাতের সমক কোনো সত্ত্বাও নেই। একটি সুনির্দিষ্ট ল্য এবং উদ্দেশ্য তিনি নিয়ে বিশ্বজগত সৃষ্টি করেছেন। আর এ

বৈধ উপায়ে অর্জিত সম্পদে দারিদ্র বিমোচন : মমিনুল ইসলাম মোল্লা

রাসুলে আকরাম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন প্রতিটি মানুষকেই উপার্জন করতে হয়। আল্লাহতায়ালা তার সমগ্র সৃষ্টিকে মানুষের খেদমতে নিয়োজিত করেছেন। মানুষ আল্লাহর নির্দেশিত পথে সম্পদ উপার্জন করতে পারে। উপার্জনের ক্ষেত্রে মানুষের জন্য হালাল-হারামের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। হারাম উপায়ে অর্জিত সম্পদ কোন কাজে আসবে না। মদের ব্যবসা হারাম। বর্তমানে বিভিন্ন দেশে মদকে ভিন্ন নামে পরিচিত করে মুসলমানরা

স্বাধীনতার অপব্যাখ্যা : মানবতা আজ কোথায়? জামিল আহমদ

ঐতিহাসিক ২৬ শে মার্চ বাংলাদেশের স্বাধীনতা দিবস। ১৯৭১ সালের এই দিনে বাংলাদেশের স্বাধীনতা ঘোষিত হয়। ২৫ শে মার্চের সূর্য চোখ বন্ধ করে আঁধার নামিয়ে আনল। এ সময় পাকিস্তানী সেনাবাহিনী বাংলাদেশে প্রবেশ শুরু করল। ঘড়ির কাটা বারটায় পা রাখলে আন্তর্জাতিক নিয়ম অনুসারে তারিখ বদলে গেল। শুরু হয়ে গেল ঐতিহাসিক ২৬ শে মার্চ। এর বেশ কয়েক মিনিট

এক মায়ের বীরত্বের গল্প : এনামুল করীম ইমাম

হযরত আসমা রা. এর জীবনে সর্বাপেক্ষা দুঃখ ও বিষাদময় ঘটনা। যদ্বারা তাঁর অসাধারণ বীরত্ব, ঈমানী শক্তি, ধৈর্য ও স্থৈর্যের পরিচয় পাওয়া যায়, তা হলো তাঁর পুত্র হযরত আবদুল্লাহ ইবনুয যুবায়ের রা. এর শাহাদাৎ। তাঁর এই দৃঢ়তা থেকে আমরা শিক্ষা নিতে পারি। তাই আমরা এবার প্রবেশ করব তাঁর ছেলের শাহাদাৎ বরণের সেই হৃদয়বিদারক গল্পে। হযরত আবদুল্লাহ

দেশ-বিদেশের খবর

আধুনগরে “নাইস হসপিটাল লিঃ”র ভিত্তিপ্রস্তর উদ্বোধন লোহাগাড়ার অসহায়, দরিদ্র ও দুঃস্থদের চিকিৎসাসেবা নিশ্চিত করতে “ইসমাইল আঞ্জুমান আরা ওয়েল ফেয়ার ট্রাষ্টে”র তত্বাবধানে এবং নোমান গ্রুপের অর্থায়নে আধুনগরে নির্মিত হতে যাচ্ছে “নাইস হসপিটাল লিমিটেড”। জানা যায় প্রায় ১০০ কোটি টাকা ব্যয়ে অত্যাধুনিক এই হাসপাতাল নির্মিত হচ্ছে। ২৬ ফেব্রুয়ারি সোমবার উক্ত হসপিটালের ভিত্তিপ্রস্তর উদ্বোধন করেছেন নোমান গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা

কোন সুরে : সৈয়দা সুফিয়া খাতুন

বল-রে পাখি কোন সুরে কোন নামে ডাকিস-রে তুই আমার রব কে ? তুই যে নামে ডাকিস সে নামে ডাকবো আমি তোরই সনে। তোর সুরে সুর মিলিয়ে ডাকবো আমি গাছের ডালে ফুলের বনে, ঐ নামে ডাকবো আমি তোরই সনে। পাখি-রে তুই আয়রে আমার কাছে আয়, তোকে আমি কলা দিব ছোলা দিব, আরো দিব চিড়া মুড়ি। খাবি-রে

তুমিহীনা : ফাতেমাতুয যাহরা স্মৃতি

তোমার কথা বসে বসে ভাবে আমার মন চোখের তারায় তব ছবি ভাসে সারাণ। তোমার তরে জীবন আমার সপে দিতে চাই তোমায় ছাড়া চাওয়ার কিছু এই ধরাতে নাই। তুমি রাহিম তুমি কারিম তুমি আমার সব তুমি হীনা বন্ধ হবে সুখের কলরব। তোমার কথা ভেবে ভেবে উদাস হয়ে যাই বিপদ-আপদ সব কিছুতে তোমায় কাছে পাই।

আম্মু : হুমায়রা সুলতানা

ভালো লাগে আম্মু যখন আদর করে ডাকেন স্নেহের পরশ দিয়ে বুকে আগলে রাখেন। সারাণ আগলে রাখেন স্নেহের পরশ দিয়ে সব কিছু সয়ে যান উচ্ছ্বাস নিয়ে মা যে আমার সবচেয়ে প্রিয় আমার মূল শিরোনাম মনি মুক্তা হীরার চেয়েও মায়ের অনেক দাম।

ডিজিটাল চাল : মাহবুবা আক্তার তামান্না

হরেক রকম মানব-মানবী কারো কর্ম যেন দানব-দানবী। ডিজিটাল হায় কোথা আমি যাই মন চায় কভু দূরে পালাই। সুদ-ঘুষ সেথা কলিযুগ যেন বরকত নেই যে ভাবি আমি হেন। চাকুরী নেই যে ডিগ্রী হলেও ে বেকার বসে থাকে ডিজিটাল কালেও। পর্দা নেই তাই ইভটিজিং ও চলে পথে-ঘাটে সবখানে নোংরামি চলে। রাজনীতি দেখো হায় কেমন যে মন্দ নেতারা-নেত্রীরা

সার্থক জনম : আশানীল

স্বস্তি দাও গো আল্লাহ আমায় শান্তি দাও গো মনে, সরল পথে চলতে চাই যে থেকো আমার সনে। তুমি হলে দয়ার সাগর বড়ই মেহেরবান, তোমার দয়ায় আজো আছে ধরা বহমান। কত শখে মানব জাতি করলে তুমি সৃজন, তোমার নামেই পশু-পাখি করছে শত গুঞ্জন। গাছের পাতা নড়েচড়ে তোমায় শুধু ডাকে, মানবজাতি কেমন করে ভুলে কাজের ফাঁকে ?

পরাধীন স্বাধীনতা : হাজেরা জান্নাহ

জাতির রক্ত পুড়িয়ে প্রদীপ আলো দিয়ে স্বাধীনতার। সেই রক্ত হয়ে গেলে বিক্রি মূল্য কি বেঁচে থাকার। বুকের গহীনে চাঁপা নিশ্বাস হৃদয়ে রক্তরণ। দ্বীনের রাহে কেউবা শহীদ কেউবা কারাবরণ। রাতের আঁধারে হয় রাজপথ দ্বিতীয় কারবালা। সত্য প্রকাশে এখন অপরাধ মিথ্যার জয়মালা। স্বাধীন দেশে পরাধীন জাতি চোখে হতাসার বান। কেমনকরে গাইবো আমি স্বাধীনতার জয়গান।

একটা সময় : আব্দুল্লাহ আল মামুন

একটা সময় ছিল যখন পড়তো নামাজ মা, আমরা সাথে সিজদা দিতাম ছোট্ট সোনার ছা। মায়ের কোলে মাথা রেখে গান কবিতা যত, দোয়া দুরুদ তাশাহুদও শিখে নিতাম শত। এখন যারা মা রয়েছেন হয় না নামাজ পড়া, দিন কাটে তার সিরিয়ালে রিমোট হাতে ধরা।

যৌতুক : আবদুল্লাহ আল মুক্তাদির

কুড়ি বছর চলে গেলেও হচ্ছে না তার বিয়া মা-বাবা যে সখ করে তার নাম দিয়েছে প্রিয়া। রূপে-গুণে বুদ্ধিমতি কম নাহি তার কিছু দারিদ্রতা হাত ছানিয়ে ডাকে শুধু পিছু। আসছে তাকে দেখতে অনেক পছন্দ হয় সবার হয় না বিয়ে শুনে যবে নেই তো টাকা বাবার। লোকে তাকে তুচ্ছ করে দেয় অপবাদ শত নয়ন ডুবে সব সয়ে

জীবন জিজ্ঞাসা

যাকাত তরককারীর পরিণতি প্রসঙ্গে প্রশ্ন : যাকাত আদায় না করলে কি হবে? মুহাম্মদ মামুনুর রশীদ, কচুয়া, চাঁদপুর। উত্তর : যারা যাকাত আদায় করে না, তাদের ব্যাপারে কুরআন ও হাদীসে কঠোর শাস্তির কথা উল্লেখ রয়েছে। যেমন, সূরা তাওবায় আল্লাহ তাআলা ইরশাদ করেছেন, “আর যারা স্বর্ণ-রূপা (ধন-সম্পদ) জমা করে রাখে এবং তা আল্লাহর পথে ব্যয় করে না


Hit Counter provided by Skylight