মাসিক সংরক্ষণাগার: July ২০১৪

সম্পাদকীয় : ভ্রাতৃত্ব বন্ধনই সিয়ামের অন্যতম শিক্ষা

সমস্ত প্রশংসা একমাত্র আল্লাহ তা’আলার জন্য। অসংখ্য দরূদ ও সালাম বর্ষিত হোক সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ট মহামানব মুহাম্মদ সা. এর উপর এবং তার অনুসারীদের ওপর । মাহে রমযানের বহু কল্যাণ, প্রভাব, শিক্ষা ও অবদানের অন্যতম হচ্ছে ভ্রাতৃত্বের বন্ধন। হিংসা, জুলুম ও ক্রোধ পরিহারের এ শিক্ষা গ্রহণ সব রোযাদারের জন্যই সওয়াব ও কল্যাণকর। মাহে রমযানের প্রধান বৈশিষ্ট্যগুলোর প্রতি

বিশ্বাসীদের প্রতি আল কুরআনের দাবি : মাওলানা সিরাজুল মাওলা

আল কুরআন একজন মুসলমানের কাছে পরম সম্মানীয় একটি কিতাব বা গ্রন্থ। আমাদের প্রত্যেকের ঘরে ঘরে আল কুরআনের অন্তত একটি কপি রয়েছে এবং বছরের অন্য মাসে না পারলেও রমযান মাসে অন্তত একবার  তেলাওয়াতের চেষ্টা করি। কিন্তু এ আল কুরআন আমাদের কাছে কেন এসেছে বা এতে কী রয়েছে বা এর মর্মার্থ কী অথবা এর প্রতি আমাদের আচরণ

অর্থ না বুঝে কুরআন পড়া কি অনর্থক? : শাহ জালাল মুহাম্মদ

কুরআনুল কারীম আল্লাহ তাআলার সর্বশ্রেষ্ঠ কালাম তথা সর্বোত্তম কথামালা ও বাণী চিরন্তন। যারা কুরআন পাঠ করে তারা স্বয়ং মহান আল্লাহর সাথে কথোপকথন করে। রাসূল সা. ইরশাদ করেন- ‘তোমাদের কেউ তার প্রতিপালকের সাথে কথা বলতে চাইলে সে যেন কুরআন পড়ে।’ [আল বুরহান ফী তাজবীদীল কুরআন : ৩] অত্যন্ত পরিতাপের বিষয় হলো আমরা নিজেদেরকে আল্লাহপ্রেমিক দাবী করলেও

পবিত্র কুরআনে মুমিনের শান্তনা : তারিক মেহান্না

আল্লাহতা’আলা কুরআনে সুরা আলে ইমরানের ১৮৬ নং আয়াতে বলছেন, “নিশ্চয়ই তোমাদেরকে পরীক্ষা করা হবে তোমাদের ধন-সম্পদ ও জীবনের দ্বারা। এবং অবশ্য তোমরা শুনবে পূর্ববতী আহলে কিতাবদের কাছে এবং মুশরিকদের কাছে বহু অশুভন উক্তি। আর যদি তোমরা ধৈর্য ধারণ কর এবং পরহেযগারী অবলম্বন কর তা হবে একান্ত সৎসাহসের ব্যাপার। [আলে ইমরান : ১৮৬] কিছু লোকের জন্য

দাওয়াতে দীনের তাৎপর্য : মোশাররফ হোসেন পাটওয়ারী

আল কুরআন ও সুন্নাহর আলোকে কাউকে আল্লাহর দীনের প্রতি আহ্বান জানানোকে দাওয়াত বলা হয়। এরই আরেক নাম তাবলীগ। দাওয়াত বা তাবলীগ কেবল মুসলমানদের জন্য একটি ধর্মীয় দায়িত্বই নয়, বরং ইসলামের প্রথম ও প্রধান মৌলিক কর্মসূচির অন্যতম। একবিংশ শতাব্দীর সবচেয়ে ব্যাপক ও গতিশীল একটি ইসলামি আন্দোলনের নাম তাবলীগ, যা ইসলামি চিন্তা-চেতনায় সমগ্র বিশ্বে সমাদৃত একটি নীরব

জীবন জিজ্ঞাসা

মুহাম্মাদ সারওয়ার হুসাইন, কিশোরগঞ্জ, নীলফামারী। প্রশ্ন: সাহরি খাওয়ার উত্তম সময় কোন্টি? উত্তর: এমন সময় সাহরি খাওয়া শুরু করা উত্তম, যাতে স্বাভাবিকভাবে ওয়াক্তের মধ্যেই সাহরি খেয়ে শেষ করা যায় এবং খানা শেষে উযু ইস্তিঞ্জা করে ফজরের নামাযের জামা‘আত ধরা যায়।- ফাতাওয়া শামী: ২/৪১৯, ফাতাওয়া হিন্দিয়া: ১/২০০, মাজমাউল আনহুর: ১/২৪২, আল-বাহরুর রায়িক: ২/২৯২। মুহাম্মাদ মানসূর আহমাদ, সিংগাইর,

যাকাতের উদ্দেশ্য এবং দাতা ও গ্রহীতার জীবনে তার প্রভাব : মুফতি তাকি ওসমানী

যাকাত ইসলামের পঞ্চ ভিত্তির অন্যতম একটি ভিত্তি। যাকাত ওয়াজিব করার দ্বারা ইসলামের লক্ষ্য শুধু ধন-সম্পদ সংগ্রহ করা এবং রাষ্ট্রীয় ভাণ্ডারকে সমৃদ্ধ করাই নয়। অভাবী ও দুঃখী মানুষের শুধু অভাব ও দুঃখ দুর্দশা দূর করা উদ্দেশ্য নয়; বরং তার প্রথম লক্ষ্য দাতার জীবনে বিস্তর কার্যকরি প্রভাব ফেলা, তাকে বস্তুগত চিন্তার ঊর্ধ্বে উঠানো, তার ভিতরকার মানসিকতায় ব্যাপক

হাশরের ময়দানে শাফায়াত ও আমল অনুযায়ী নুরের বণ্টন সংকলন : সৈয়দা সুফিয়া খাতুন

al-jannatbd.com, আল জান্নাত । মাসিক ইসলামি ম্যাগাজিন, al-jannatbd.com, quraner alo, মাসিক জান্নাত, islamer alo, www.al-jannatbd.com, al-jannat, bangla islamic magazine, bd islam, islamic magazine bd, ব্লগে জান্নাত, জান্নাতের পথ, আল জান্নাত,

তাজাল্লি হযরত আবু সাঈদ খুদরি রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, আমরা রাসূলুল্লাহ সা.-এর দরবারে আরজ করলাম, ইয়া রাসূলাল্লাহ, আমরা কি কেয়ামতের দিন আল্লাহ পাককে দেখতে পাব? রাসূলুল্লাহ সা. এরশাদ করেন, হ্যাঁ (অবশ্যই দেখতে পাবে)। আচ্ছা, তোমাদের কি দুপুর বেলায় সূর্য দেখতে কোন কষ্ট হয়? যখন কোন মেঘ থাকে না। আকাশ একেবারে পরিস্কার থাকে। চৌদ্দ তারিখের

কুরআনের বর্ণনা অনুসারে খেজুর এবং এর উপকারিতা আজমেরী মারিয়ম মেরী মহান আল্লাহ আমাদের কল্যাণের জন্য তার সমগ্র সৃষ্টি জগতকে নিয়োজিত করেছেন। মানুষের উপকারের জন্য তিনি দিয়েছেন সবুজ বৃক্ষ, নানা বর্ণের ফুল ও ফল। আল্লাহর দেয়া অসংখ্য নিয়ামতের মধ্যে খেজুর অতি পরিচিত এবং সাধারণ একটি ফল। কিন্তু সাধারণ এই ফলের বর্ণনাই কুরআনে এসেছে বিশেষভাবে। এমনকি একে


Hit Counter provided by Skylight