মাসিক সংরক্ষণাগার: November ২০১২

রামাযান ও জীবনের পরিশুদ্ধি : ড. আ ফ ম খালিদ হোসেন

পবিত্র মাহে রামাযানের এক মাস সিয়াম সাধনা মানব জীবনে শুদ্ধতা লাভের এক সুবর্ণ সুযোগ এনে দেয়। মহত্তর চারিত্রিক গুণাবলী অর্জন ও সত্যবোধকে জাগ্রত করার জন্য সংযম ও কৃচ্ছতার ভূমিকা ব্যাপক। সওম মানে বিরত থাকা। কুকর্ম ও কুচিন্তা ও ইন্দ্রিয় পরিচর্যা পরিহার করে সংযমী হওয়াই রোযার শিক্ষা। রামাযান-এর শাব্দিক অর্থ দগ্ধ করা। সিয়াম সাধনার উত্তাপে; ধৈর্যের

ইসলামী শিষ্টাচার : বাস্তবতা ও বৈশিষ্ট্য : মাওলানা আব্দুস সাত্তার

মানুুষের ব্যক্তিগত ও সামাজিক জীবনে সভ্যতা একটি অভ্যাসজাত এবং অত্যাবশ্যকীয় বিষয়। দু’জন মানুষের পারস্পরিক দাম্পত্য সম্পর্কে যে বাচ্চাটির জন্ম হয় তার পরিপূর্ণতা লাভের জন্য প্রয়োজন মায়ের কোল। আবার তার লালন-পালন, বৃদ্ধি ও ক্রমবিকাশের জন্য জরুরী একটি পরিবার, বাসস্থান ও শিক্ষাঙ্গন। নাগরিকত্ব হলো মানুষের প্রাকৃতিক বিষয় আর সভ্যতা তার মূলনীতি।Civilization (সভ্যতা) কে আপনি শব্দগতভাবে লক্ষ করেন

কবীরা গুনাহসমূহের বর্ণনা : এ, এস, এম, রফিকুল ইসলাম নোমান

প্রকাশিতের পর… ১২৬. পতিতালয় প্রতিষ্ঠা করা বা তার সহযোগিতা করা। [মুসলিম, মিশকাত : ৩৩, কিতাবুল ঈমান : ৮৯] ১২৭. আমানতের খেয়ানত করা। [সূরা আনফাল : ২৭, তিরমিযি : ২/১৫] ১২৮. ওয়াদা ভঙ্গ বা বিশ্বাসঘাতকতা করা। [তিরমিযি : ২/১৫] ১২৯. সত্য সাক্ষী গোপন করা। [সূরা বাকারা : ১৪০] ১৩০. বিনা ওজরে ফরজ, ওয়াজিব নামাজ আদায় না

সৃষ্টি জগতের সূচনা : সাগর ও নদ-নদী : সংগ্রহে: আব্দুল্লাহ মোঃ জুবায়ের

সাগর ও নদ-নদী: আল্লাহ তা’আলা বলেন : ‘তিনিই সমুদ্রকে অধীন করেছেন যাতে তোমরা তা থেকে তাজা মাছ খেতে পার এবং তা থেকে আহরণ করতে পার রতœাবলী, যা তোমরা ভূষণরূপে পরতে পার এবং তোমরা  দেখতে পাও, তার বুক চিরে নৌযান চলাচল করে এবং এ জন্য যে, তোমরা  যেন তার অনুগ্রহ সন্ধান করতে পার এবং তোমরা যেন

ইসলাম এক নূর যে নূর আলো দান করে দুই জীবনে : এইচ. এম. আবূ সালেহ্

আমরা মুসলিম, আমাদের ধর্ম ইসলাম, কিন্তু আমরা কোন স্তরের মুসলমান? যে ইসলাম রশ্মির দ্বারা কলুষিত হৃদয়ের কদর্যতা বিদূরিত হয়, যে ইসলাম নূরের ঝলকানীতে উদ্ভাসিত হয়ে মানব হৃদয় নৈকট্য লাভ করে তার একমাত্র প্রতিপালকের, প্রেমময়, করুণাময় বিশ্বকর্তার, সেই নূর কি আমাদের হৃদয়ে আলো জ্বেলেছে? আমরা কি সেই নূরের সন্ধান পেয়েছি? অথবা পেতে চাই কি? যদি আমরা

জান্নাতের পরিচয় : সংকলনে : সৈয়দা সুফিয়া খাতুন

জান্নাতে পবিত্র সঙ্গী আল্লাহ তা’আলা এরশাদ করেন- যারা তাকওয়া অবলম্বন করে চলে, তাদের জন্য রয়েছে জান্নাতসমূহ, যার পাদদেশে নদী প্রবাহিত থাকবে আর সেখানে তারা স্থায়ী হবে, তাদের জন্য পবিত্র সঙ্গী এবং আল্লাহর কাছ থেকে সন্তুষ্টি রয়েছে, আল্লাহ বান্দাদের সম্পর্কে সম্যক দ্রষ্টা। পবিত্র বিবি, অর্থাৎ বাহ্যিক ময়লা-আবর্জনা এবং বদভ্যাস, মোনাফেকী, ধোঁকাবাজি, অনর্থক কথা এবং সর্বপ্রকার কষ্টদায়ক

জাহান্নামের পরিচয় : সংকলনে : মাওলানা আব্দুল মতিন

পূর্ব প্রকাশিতের পর.. জাহান্নামীরা তাদের নেতাদের জন্য দ্বিগুণ আযাব এবং বড় অভিশাপের দরখাস্ত করবে। আল্লাহ তা’আলা বলেন- – ‘সেদিন তাদের মুখমণ্ডল আগুনে উলটপালট করা হবে, তারা বলতে থাকবে, হায়! আমরা যদি আল্লাহ এবং (আল্লাহর) রাসূলের অনুসরণ করতাম।’ [সূরা আহযাব : ৬৬] – ‘তারা বলবে, হে আমাদের প্রতিপালক! আমরা আমাদের নেতা ও বড় লোকদের আনুগত্য করেছিলাম

হীলা-বাহানা : শয়তানের ভয়ঙ্কর ফাঁদ : মুফতী আবূ বকর সিদ্দীক

৬. আলিমদের মতবিরোধের আশ্রয় নিয়ে আমল বর্জন করা যুক্তিসংগত কি? অনেক এমন ব্যক্তি আছে আমল না করার জন্য আলিমদের মতবিরোধকে বাহানা হিসেবে ব্যবহার করে। বলে, ভাই, কি আমল করব? এক মাওলানা এক কথা বলে, আর অন্য মাওলানা ভিন্ন কথা বলে। আমরা কোনটা মানব? আমরা এজাতীয় লোকদের উদ্দেশ্যে বলব, আচ্ছা, যে সকল বিষয়ে কোন আলিমের মতবিরোধ

কুরআন-হাদিসের আলোকে কিয়ামতের বর্ণনা : মাওলানা আলী উসমান

يَا أَيُّهَا النَّاسُ اتَّقُوا رَبَّكُمْ إِنَّ زَلْزَلَةَ السَّاعَةِ شَيْءٌ عَظِيمٌ. يَوْمَ تَرَوْنَهَا تَذْهَلُ كُلُّ مُرْضِعَةٍ عَمَّا أَرْضَعَتْ وَتَضَعُ كُلُّ ذَاتِ حَمْلٍ حَمْلَهَا وَتَرَى النَّاسَ سُكَارَى وَمَا هُم بِسُكَارَى وَلَكِنَّ عَذَابَ اللَّهِ شَدِيدٌ ‘হে মানুষ, তোমরা তোমাদের রবকে ভয় কর। নিশ্চয় কিয়ামতের প্রকম্পন এক ভয়ঙ্কর ব্যাপার। যেদিন তোমরা তা দেখবে সেদিন প্রত্যেক স্তন্য দানকারিণী আপন দুগ্ধপোষ্য

ইসলামী মূল্যবোধ সমৃদ্ধ সংস্কৃতির বিকাশ একটি পর্যালোচনা : মাও. আবুল ফাতাহ মুহা. ইয়াহইয়া

বাংলা সংস্কার শব্দ থেকে সংস্কৃতি শব্দটির উদ্ভব। সংস্কার শব্দটির মূল আভিধানিক অর্থ হল শুদ্ধায়ন, নবায়ন, পরিশোধন, পবিত্র করণ, পতিত অবস্থা থেকে উদ্ধার করা, জঞ্জালমুক্ত করা, পরিচ্ছন্ন করা, মেরামত করা, অপূর্ণতাকে দূরীভূত করা, উন্নয়ন করা, অপবিশ্বাসকে দূরীভূত করা, অমূলক চিন্তা-ভাবনা ও ধ্যান-ধারণার অপনোদন করা, উৎকর্ষ বিধান করা ইত্যাদি। বস্তুত: মানুষের চিন্তায় বিশ্বাসে, আচার-আচরণে, ধ্যান-ধারণায় সামাজিক কর্মকাণ্ডে,

প্রযুক্তির ইতিকথা : সৈয়দা সুফিয়া খাতুন

‘বিশ্ব নারী মুক্তির উপায়’ বই হতে : স্যাটেলাইট আমাদের মানব জাতির জন্য একটি নিয়ামত স্বরূপ। সাধনা করতে আল্লাহ নিষেধ করেন নাই, মনযোগ সহকারে সাধনা করলে আল্লাহ তা‘আলা সফলতা দিবেন। যাদের কষ্টের ও ত্যাগের বিনিময়ে আমরা বিজ্ঞানের আবিষ্কৃত মূল্যবান যন্ত্রগুলো পেয়েছি তাদের প্রতি আমরা কৃতজ্ঞ। আমি ভেবে বিস্মিত! প্রযুক্তির এই বিস্ময়কর রকমারি আবিষ্কৃত যন্ত্রগুলি দেখে আমার

রমযান মাসে কিছু প্রচলিত ভুলত্রুটি : আবদুস সাত্তার আইনী

রমযান মুসলমানদের জীবনে এক মহিমান্বিত মাস। এই মাসব্যাপী ইসলামের পাঁচটি রোকনের একটিÑ রোযা আদায় করা ফরয। সব ইবাদতের প্রতিদান আল্লাহপাক সরাসরি না দিলেও রোযার প্রতিদান তিনি সরাসরি দেবেন। রমযান মাসের যেমন অনেক ফযিলত বর্ণিত হয়েছে তেমনি রয়েছে এই মাসের পবিত্রতা ও পরিশুদ্ধতার গুরুত্ব। মুসলমানদের জীবনে রমযান মাসের পবিত্রতা ও পরিশুদ্ধতা দিন দিন হ্রাস পাচ্ছে; রমযান

অযতেœ ঝরে পড়ছে কত বেহেশতি ফুল! : যোবায়ের বিন জাহিদ

পুষ্পোদ্যানে যেমন আগমন করে পুষ্পকলি তেমনি মাতৃ উদ্যানে জন্মগ্রহণ করে পুষ্পতুল্য ফুটফুটে সন্তান। সন্তান-সন্তুতি পিতামাতার জন্য আল্লাহ তা’আলার এক অনন্য দান। পবিত্র কোরআনে আল্লাহ তা’আলা বলেন, ‘তিনি যাকে ইচ্ছা কন্যা সন্তান দান করেন এবং যাকে ইচ্ছা পুত্র সন্তান দান করেন, অথবা দান করেন পুত্র কন্যা উভয়ই আর যাকে ইচ্ছা নিঃসন্তান করে দেন। তিনিই সর্বজ্ঞ মহাপ্রজ্ঞাময়।

দশটি চমৎকার ফুল : সালওয়া বিনতে তাহের

মূল : আয়িয আল ক্বরনী : পবিত্র জীবন যাপন করতে ইচ্ছুক ব্যক্তির জন্য রয়েছে দশটি চমৎকার ফুল। যেগুলো সংগ্রহ দ্বারা নিজেকে দ্বীনের সাজে সুসজ্জিত করার তাওফীক হবে (ইনশা আল্লাহ) ১। শেষ রাতে ওঠে আল্লাহর দরবারে ক্ষমা প্রার্থনা করা। আল্লাহ তা’আলার বাণী : الصَّابِرِينَ وَالصَّادِقِينَ وَالْقَانِتِينَ وَالْمُنفِقِينَ وَالْمُسْتَغْفِرِينَ بِالأَسْحَارِ অর্থ : তারা ধৈর্যধারণকারী, সত্যবাদী, নির্দেশ সম্পাদনকারী,

বিশ্বভ্রমণ : ইসলামী ফেকাহ একাডেমী : আল্লামা জাস্টিস তাকী উসমানী

পূর্ব প্রকাশিতের পর… ‘তানজীমে ইসলামী কনফারেন্স’ মুসলিম দেশসমূহের সেই একক সংগঠন যা বিগত কয়েক বৎসর যাবৎ আলমে ইসলামের একটি সম্মিলিত প্লাটফরমের কাজ করে আসছে। এ সংগঠনের অধীনে বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্র প্রধানদের কনফারেন্স এবং মুসলমান পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের কনফারেন্সনসমূহ অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে। এবং তা মুসলিম দেশগুলোকে একত্রে বসে চিন্তা-ভাবনা করার সুযোগ করে দেয়, যা অনৈক্য ও বিশৃংখলার বর্তমান

রোযা সংক্রান্ত আধুনিক মাসাইল

১. মস্তিস্ক অপারেশন রোযা অবস্থায় মস্তিস্ক অপারেশন করলে রোযা ভঙ্গ হবে না। যদিও মস্তিস্কে কোন তরল কিংবা শক্ত ওষুধ ব্যবহার করা হয়। কেননা মস্তিস্ক থেকে গলা পর্যন্ত সরাসরি কোন ছিদ্র ও পথ নেই। পূর্ব যুগে ছিদ্র ও পথ আছে ধারণা করেই এতে রোযা ভেঙ্গে যাওয়ার কথা বিভিন্ন কিতাবাদিতে উল্লেখ রয়েছে। ২. কানে ওষুধ বা ড্রপ

ধারাবাহিক উপন্যাস : রাজকুমারী

পূর্ব প্রকাশিতের পর.. তবে দূরদর্শী রাজা শুধু-শুধু এজন্যই এতগুলো নৌকা তৈরি করে এর মাঝিদের ব্যয়ভার বহন করছেন না, বরং এর পিছনে তার আরেকটি গোপন পরিকল্পনাও লুকায়িত আছে। তা হল, যদি কখনও কোনো শত্রু রাজ্য আক্রমণ করে কেল্লা দখল করে নেয়, তা হলে যেন তিনি রাজপরিবারের সবাইকে নিয়ে নৌকাযোগে পালিয়ে দূরে কোনো দ্বীপে গিয়ে আশ্রয় নিতে

শয়তানের ডায়েরি

পূর্ব প্রকাশিতের পর…… হুজুর! এ কথা দ্বারা পরিস্কার প্রমাণিত হয় যে, যদি কোন মানুষ নিজের জন্য অসৎ, অন্যায় ও দুর্নীতিকে পছন্দ করে সে ব্যক্তিকে অসৎ দুর্নীতিপরায়ণ করার জন্য আল্লাহ তায়ালা তাহাকে আমার হাতে ন্যস্ত করেন। ইহা ছাড়া আমি ইচ্ছা করিয়া কাহাকেও গোমরাহ করিতে পারি না। তাই যদি পারতাম তাহা হইলে দুনিয়ার সকল মানুষকে এক মিনিটের

রমজানে ব্যবসায়ীদের কারসাজি রোধে মাঠে নামছে গোয়েন্দারা বিশেষ সংবাদদাতা : ব্যবসায়ীদের কারসাজি রোধে মাঠে নামছে গোয়েন্দা সংস্থা। সংস্থাটি এখন থেকে প্রতি বৃহস্পতিবার এ সংক্রান্ত প্রতিবেদন তৈরি করে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে পাঠাবে। সূত্র জানায়, সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত রমজান উপলক্ষে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য পরিস্থিতি পর্যালোচনা সভায় গোয়েন্দা সংস্থাকে এ নির্দেশ দেয়া হয়েছে। সভায় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মুখ্যসচিব নির্দেশনা দিয়ে

কাব্য-গুচ্ছ : অপরূপ লীলাভূমি সুন্দরবন, রং দিয়েছেন, তোমার অ-শরীরী রূপ, করতে সাধন প্রভুর নামে, আল জান্নাত

রং দিয়েছেন হাফেয মুহাঃ কাওছার বিন কাসেম রং দিয়েছেন সাজানো দুনিয়ার জগৎটি, তার রংয়েতেই সাজানো পবিত্র আল কুরআনটি। তিনি যদি রং না দিত, মানুষের রং কি আর কেউ ভাল করতে পারত? মানুষ যতই খারাপ হয়, আল্লাহ তা’আলার রং ততই ভাল হয়। মানুষ যতই ভুলে থাকে আল্লাহকে, আল্লাহ ভুলেন নাতো কোন মানুষকে। তাইতো আমাদের জন্য দিয়েছিলেন,

জীবন জিজ্ঞাসা ও পরামর্শ

প্রশ্ন :  আমরা জানি মানুষের মৃত্যুর পর তার রূহ আল্লাহ পাকের নিকট চলে যায়। উক্ত ব্যক্তির দাফনের পর রূহকে কবরে এনে সওয়াল-জওয়াব করা হয়? আমার প্রশ্ন হচ্ছে এই যে, তারপর রূহ কি পুনরায় কবর হতে নিয়ে যাওয়া হয়? আর সেখান থেকে রূহ নেয়া না হলে উক্ত রূহ আমাদেরকে দেখতে পায় কি-না? অনেকে বলে, মৃত ব্যক্তির


Hit Counter provided by Skylight