স্বাস্থ্যসচেতনতা

র্ষার অঝর বর্ষণ শেষে স্মৃতি বিধুর অনুভূতি নিয়ে হাজির হয় শরৎ। বর্ষার কালো মেঘ সরে গিয়ে আকাশ হয়ে ওঠে ফর্সা, কাশ ফুলের মতো সাদা মেঘ ভেসে বেড়ায় আকাশে। গাছের পাতার রং বদলে থাকে। শিউলি ফুলের মতন জাগানো গন্ধে ভরে ওঠে বাতাস। দিনের শেষে কিছুটা কুয়াশা নামে, রাতে গাছের ঝোঁপের মাথায় ওড়ে জোনাকির দল। স্বপ্নময় এই ঋতু শরতের ব্যাপ্তি ভাদ্র থেকে আশ্বিন মাস পর্যন্ত।
হেলথ টিপস ১
পানি চিকিৎসা নিন। দিনে বিভিন্ন বিরতি দিয়ে আট গ্লাস পানি পান করুন। প্রথম গ্লাসটা নেবেন সকালে ঘুম থেকে ওঠার পর, সবচেয়ে ভালো হয় আপনি যদি কুসুম গরম পানি নেন। দ্বিতীয় গ্লাসটা নেবেন ঠা-া পানির, আর সেটা সকালে নাশতার পর পান করতে পারেন। সকালে, আরো কিছু পরে আপনি আপনার তৃতীয় গ্লাস পানি পান করুন। আর চুতুর্থ গ্লাস পানি পান করুন দুপুরের খাবারের পনেরো মিনিট আগে। পঞ্চম গ্লাসটা নিন খাবারের পরে তবে খাবারের মধ্যে নয়। বিকেলে ষষ্ঠ গ্লাস এবং রাতে খাবারের আগে সপ্তম গ্লাস পান করুন। আর আপনার শেষ গ্লাসটি পান করুন রাতে বিছানায় যাবার আগে।
হেলথ টিপস ২
যদি আপনি নিয়মিত প্রচুর পরিমাণ খনিজ পানি বা মিনারেল ওয়াটার পান করেন, তাহলে দেখবেন কয়েক সপ্তাহ পর আপনার ত্বক খুব কোমল ও মসৃণ হয়ে উঠেছে।
হেলথ টিপস ৩
আপনি কি কাজের মধ্যে ক্লান্ত হয়ে পড়েন? চোখের সামনে দুলতে থাকে পর্দা? ঘুরতে থাকে পৃথিবী? ¯্রফে পেছনে হেলান দিন, কাঁধ দুটো উঁচু করুন এবং একই সময়ে গভীরভাবে শ্বাস নিন। এরপর সোজা শ্বাস ছাড়–ন এবং কাঁধ দুটো নামান। এই ব্যায়াম দুবার করুন। দেখবেন যে সবকিছু আপনার জন্য হঠাৎ করে হয়ে সহজ হয়ে উঠেছে।
হেলথ টিপস ৪
যদি আপনি কাজে থাকার কারণে দুুপুরে ঘুমানোর সুযোগ না পান, তাহলে এক ফাঁকে দশ মিনিটের জন্য তাজা বাতাসে হেঁটে আসুন, এটা আপনাকে নতুন করে শক্তি যোগাবে এবং আপনার চাপ দূর করবে।
হেলথ টিপস ৫
যদি আপনি অধিক ব্যায়াম না করেন এবং বাড়ির বাইরে যেতে ইচ্ছুক না হন তাহলে বাড়িতে ব্যবহার করার জন্য ফিটনেস সরঞ্জামের একটা ক্যাটালগ জোগাড় করুন। এটা অন্তত আপনাকে ব্যায়াম করার জন্য উৎসাহিত করবে। যদি আপনার দৈনন্দিন বরাদ্দকৃত পানির স্বাদ একঘেয়ে মনে হয় তাহলে আপনি ছোট এক টুকরো আদা আপনার দিনের প্রয়োজনীয় পানির সঙ্গে পাঁচ মিনিট ফুটিয়ে নিতে পারেন। এরপর ঠা-া করে পানিটুকু একটা পাত্রে ঢেলে নিন। এটাই ওই দিনের জন্য আপনার বরাদ্দৃকৃত পানি। এ সময়ের মধ্যে আপনি পরিবর্তনের জন্য এক গ্লাস মিনারেল ওয়াটার পান করতে পারেন।
হেলথ টিপস ৬
যারা খুব ভোরে ঘুম থেকে উঠেন, তারা সারাদিন খুব ভালো বোধ করেন। সুতরাং খুব ভোরে ঘুম থেকে ওঠার অভ্যাস করুন। যখন আপনার ঘড়ির অ্যালার্ম বাজবে, আপনি আবার পাশ ফিরে শোবার চেষ্টা করবেন না। বিছানা থেকে উঠুন। ওঠার পরে হাত-পা প্রসারণ করুন। জানালার পর্দাগুলো সরিয়ে দিন, দিনের আলো প্রবেশ করতে দিন ঘরের মধ্যে। আর যদি বাইরে তখনো অন্ধকার থাকে, বেডরোমের সব আলো জ্বেলে দিন। আলো আপনার শরীরের মেলাটোনিন আপনাকে ঘুমোতে সাহায্য করে।
হেলথ টিপস ৭
হাসুন। প্রাণ খুলে হাসুন। গাড়ি চালানোর সময়, কেনাকাটা করার সময়, কাজের মধ্যে হাসুন। চেষ্টা করুন সব সময় নিজেকে হাস্যমুখী রাখতে। হাসি আপনাকে সুখী করবে, আর সুখী মানুষ জীবন ও কাজের মধ্যে খুঁজে পায় তার স্বাচ্ছন্দতা। আপনি আপনার মুখ টেনে বিস্তৃত করে হাসতে পারেন। এরপর গাল দুটো শক্ত করুন। এভাবে বেশ কয়েকবার করুন। এতে মুখের পেশি ভালো থাকবে।
হেলথ টিপস ৮
মাঝে মধ্যে কিছু চকোলেট খেলে বিবেকের দংশনে ভুগবেন না। এই ‘মিষ্টি বিষ’ ক্ষতিকর নয়, সত্যি কথা বলতে কী, এটা উল্টোও করে। এটা রক্তনালিগুলোর উপকার করে এবং সেইসব হরমোনের মাত্রা বাড়ায় যা সুখকে বৃদ্ধি করে। আপনি তখনই মোটা হবেন যখন আপনি অতিরিক্ত পরিমাণ চকোলেট খাবেন।
হেলথ টিপস ৯
নিউজিল্যান্ডের ফলমূল অত্যন্ত সুস্বাদু এবং এতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন সি। বর্তমানে আমাদের দেশের ফলের দোকানগুলোতে নিউজিল্যান্ডের বিভিন্ন ফল পাওয়া যায়। মাঝে মাঝে নাশতা হিসেবে দুই প্রধান খাবারের মাঝখানে একটি নিউজিল্যান্ডের ফল খান, এটা ফ্লুর ঋতুতে আপনাকে সুস্থ রাখবে।
হেলথ টিপস ১০
একটা ব্লেন্ডারে দুটো কমলা লেবুর রস, ৬ থেকে ৭ আউন্স টক বাঁধা কপির রস এবং ৩ আউন্স আনারসের রস মিশ্রণ করুন। এটা একটা শক্তিশালী পানীয় যা আপনার শরীরে শক্তি যোগাবে।
হেলথ টিপস ১১
একটা কলা, একটা আম ও ৪ আউন্স গাজরের রস দিয়ে একটা নন-অ্যালকোহলিক ড্রিংক তৈরি করুন। এই পানীয়তে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন বি এবং এটা আপনার মানসিক চাপের বিরুদ্ধে খুবই কার্যকর।
হেলথ টিপস ১২
আপনার কি হজমজনিত সমস্যা হচ্ছে? চিন্তা করবেন না। আপনি আপনার খাবারে ভুসি কিংবা তিসির বীজ মিশ্রণ করুন। এতে আপনি সহজেই আপনার হজমের সমস্যা কাটিয়ে উঠবেন। ¯্রফে খাঁটি দই খান, এতে কোনো ফল মেশাবেন না। এক চামচ ঘন দই আপনার স্বাস্থ্যের জন্য ভালো। আর এর স্বাদ ফল মিশ্রিত দইয়ের চেয়ে ভালো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Hit Counter provided by Skylight