দেশ বিদেশের খবর

২৫টি এজেন্সির মাধ্যমে ওমরাহ করতে গিয়ে কয়েক হাজার লোক ভিসার মেয়াদের মধ্যে দেশে ফেরেননি

২৫টি এজেন্সির মাধ্যমে ওমরাহ করতে গিয়ে কয়েক হাজার লোক ভিসার মেয়াদের মধ্যে দেশে ফেরেননি। এ কারণেই সৌদি সরকার বাংলাদেশকে ওমরাহ ভিসা দেয়া বন্ধ করে দিয়েছে। বাংলাদেশের জন্য অনলাইন সিস্টেম লক করে দেয়া হয়েছে। এরই মধ্যেই সৌদি কর্তৃপক্ষ বিষয়টি জেদ্দাস্থ বাংলাদেশ হজ মিশনকে জানিয়েছে। জেদ্দা বাংলাদেশ হজ মিশন থেকে ধর্ম মন্ত্রণালয়ে এ-সংক্রান্ত একটি চিঠি পাঠানো হয়েছে। তাতে ২৫টি এজেন্সির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার অনুরোধ জানিয়ে বলা হয়েছে, এর ফলে আগামী বছরের ওমরা ও সুষ্ঠু হজ ব্যবস্থাপনা ব্যাহত হতে পারে। পাশাপাশি বাংলাদেশের ভাবমর্যাদা ক্ষণœ হতে পারে।
জেদ্দাস্থ বাংলাদেশ হজ মিশন থেকে ওমরাহ সংক্রান্ত একটি চিঠি পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ধর্ম মন্ত্রণালয়ের উপসচিব (হজ) ফয়জুর রহমান ফারুকী। কারণ হিসেবে চিঠিতে উল্লেখ করা হয় যে, প্রতি বছরই হজে গিয়ে ফিরে না আসার সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে বাংলাদেশিদের মধ্যে ফলে সৌদি সরকার তাদের উমরা ভিসা বন্ধ করেছে । তবে তাদের কতসংখ্যক যাত্রী ফিরে আসেনি তা জানা যায়নি। এজেন্সিগুলো হলো- সিটি নিউন ট্রাভেলস, মল্লিক ট্রাভেলস, ইজিওয়ে ট্রাভেলস, পিপলস এভিয়েশন ট্রাভেলস, মাসুদ ট্রাভেলস, এভারগ্রীন ট্রাভেলস। এর মধ্যে মল্লিক ট্রাভেলসের সাথে যোগাযোগ করা হলে এর ম্যানাজার জানান, তারা ওমরাহ কার্যক্রম পরিচালন করছেন। তাদের সব যাত্রীই ফিরে এসেছে বলে তিনি জানান। অন্য কয়েকটি এজেন্সির সাথে ফোনে যোগযোগের চেষ্টা করে পাওয়া যায়নি।
প্রসঙ্গ, গত এক মাসেরও বেশি সময় ধরে বাংলাদেশের ওমরাহ যাত্রীদের ভিসা দেয়া বন্ধ রেখেছে সৌদি আরব। এ বিষয়ে এতদিন সৌদি সরকার কিংবা বাংলাদেশস্থ সৌদি দূতাবাস থেকেও কিছু জানা যাচ্ছিল না। সর্বশেষ গতকাল ধর্ম মন্ত্রণালয়ে আসা চিঠি থেকে জানা গেল মূলত ওমরাহর নামে মানবপাচারের কারণেই সৌদি আরব ওমরা ভিসা দেয়া বন্ধ করে দিয়েছে।
ধর্ম মন্ত্রণালয়ের উপসচিব (হজ) ফয়জুর রহমান ফারুকীর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, পরিসংখ্যান আমরাও জানি না। যেহেতু সৌদিআরবের ওমরাহ পরিচালনাকারি এজেন্সিগুলোর অভিযোগের ভিত্তিতে চিঠিটি এসেছে সেহেতু ওমরাহ যাত্রী ও না ফেরা ওমরাহ যাত্রীর সংখ্যাও পরে জানা যেতে পারে।
তিনি বলেন, আমরা এখন এজেন্সিগুলোর কাছে কারণ জানতে চাইব। এ জন্য তাদের আজকালের মধ্যেই চিঠি দেয়া হবে।
বাংলাদেশ থেকে প্রতিবছর ৪০ হাজারেরও বেশি মানুষ ওমরাহ পালন করতে যান। এর মধ্যে রমজান মাসেই যায় ২০ হাজারেরও বেশি মানুষ। গত ফেব্রুয়ারি মাস থেকে ওমরাহ শুরু হওয়ার পর এ পর্যন্ত ২০ হাজারের বেশী লোক বাংলাদেশ থেকে ওমরাহ পালন করেছেন। আসন্ন রমজানে বাংলাদেশের ধর্মপ্রাণ মানুষ ওমরাহর ভিসা পাবেন কি না তা এখনো পরিষ্কার নয়। এখন পর্যন্ত ওমাহর জন্য সৌদি আরবে অনলাইন সিস্টেম বন্ধ আছে।

পোশাক পরলেই অদৃশ্য
একবার মাথা গলিয়ে পরে ফেলতে পারলেই কেল্লাফতে। একেবারে গায়েব হয়ে যাবেন পরিধানকারী। রূপকথার প্লট নয়। বাস্তবে অদৃশ্য হয়ে যাওয়া যাবে এমন পোশাক বানানোর কাজ শুরু করছে মার্কিন সেনাবাহিনী। পোশাকটির পরীক্ষামূলক ব্যবহার ১৮ মাসের মধ্যে শুরু করার কথা

জানিয়েছে মার্কিন সেনাবাহিনী।
ক্যামেলিয়ন নামের এক প্রজাতির গিরগিটি পরিপার্শ্বিকতার সঙ্গে তাল মিলিয়ে দ্রুত গায়ের রঙ বদলে ফেলে আত্মগোপন করতে পারে। সেই নিয়ম মেনেই তৈরি হচ্ছে এই পোশাক। নানা পরিপার্শ্বিকতায় যেন কাজ করতে পারে এবং রঙ ও নকশা পরিবর্তনের কাজে শক্তি বা বিদ্যুৎ ব্যবহারের প্রয়োজন যেন না হয়- এই পোশাক নির্মাণের সময় সে দিকে গুরুত্বা দিয়েছে মার্কিন বাহিনী।
মার্কিন সেনাবাহিনী সূত্রে খবর, এমন পোশাক নির্মাণ করার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে কয়েকটি সংস্থাকে। তাদের নাম-ধাম গোপন রাখা হয়েছে। আগামী এক বছর মেয়াদের মধ্যে ১০টি করে পরীক্ষামূলক ইউনিফর্ম মার্কিন সেনাবাহিনীকে সরবরাহ করতে হবে। রোদ, বৃষ্টি, তুষারপাতসহ সব ধরণের আবহাওয়ায় ব্যবহার উপযোগী হতে হবে এই পোশাক। এ ছাড়া, এতে সেনাদের স্বাভাবিক দায়িত্ব পালনের যেন বিঘ্ন না ঘটে তাও নিশ্চিত করতে হবে। পোশাকের রঙ ও নকশা পরিবর্তনের জন্য যদি বিদ্যুৎ ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দেওয়া তবে পোশাক থেকেই তা সরবরাহ হবে। এই বিশাল চমকপ্রদ পোশাটির জন্য আমাদের আরো কিছু সময় অপেক্ষা করতে হবে।
মোগল স্থাপত্য ইদ্রাকপুর কেল্লায় ৪০০ বছরের পুরনো শত শত কলসি উদ্ধারউৎসুক জনতার ভিড়
মুন্সীগঞ্জের ইদ্রাকপুর কেল্লা থেকে ৪০০ বছরের পুরনো শত শত কলসি পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটে মুন্সীগঞ্জ শহরের প্রাণকেন্দ্র কাচারি চত্বরের সামনে মোগল আমলের স্থাপত্য ইদ্রাকপুর কেল্লায়। তারপর থেকে উৎসুক জনতার ভিড় লেগেই আছে সেখানে। দিনরাত বিভিন্ন বয়সী লোকের সমাগমে মুখর ইদ্রাকপুর কেল্লা। মুন্সীগঞ্জ জেলা জুড়ে সবার মুখে একটি কথাই ঘুরেফিরে আসছে, ইদ্রাকপুর কেল্লায় মণিমুক্তা ভরা কলসি পাওয়া গেছে। ভিড়ের কারণে কেল্লায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।
গত মঙ্গলবার ইদ্রাকপুর কেল্লার উপরের মেঝেতে সংস্কার কাজের জন্য পাকা ফ্লোর  খোঁড়ার কাজ শুরু হয়। খননকাজ করতে গিয়ে ফ্লোরের নিচে শত শত কলসির সন্ধান পান শ্রমিকেরা। আর তাতেই চারদিকে ছড়িয়ে পড়ে মণিমুক্তা ভরা শত শত কলসির সন্ধান পাওয়া গেছে ইদ্রাকপুর কেল্লায়। সেই থেকে উৎসুক জনতার ভিড় প্রতিদিন বাড়ছেই। এমনকি দেশি বিদেশি পর্যটকদেরও আনাগুনা চোখে পরার মাত। এ দিকে শত শত কলসি পাওয়া খবরটি প্রশাসনের কাছে পৌঁছলে প্রশাসন থেকে কাজ বন্ধের নির্দেশনা দেয়া হয়। বর্তমানে খননকাজ বন্ধ রয়েছে। চারদিকে বাঁশের বেড়া দিয়ে আটকানো হয়েছে স্থানটিকে।  জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে উদ্ধার হওয়া কিছু কলসি গবেষকদের কাছে পাঠানো হবে। তাদের মতামতের ভিত্তিতে পরবর্তী কার্যক্রম পরিচালিত হবে।
খবরটি শুনে ইতোমধ্যে প্রত্মতত্ত্ব অধিদফতরের শীর্ষ কর্মকর্তারা ইদ্রাকপুর কেল্লা পরিদর্শন করেছেন। উদ্ধার হওয়া কলসি পরীক্ষা-নিরীক্ষা করছেন। ইতি মধ্যে জায়গাটিতে প্রশাসনিক ব্যক্তিত্ব ও বিভিন্ন গভেষকদেরও পা পড়া শুরু হয়েছে।উল্লেখ্য, ইতিহাসের একাধিক বই থেকে জানা যায়, ১৬৬০ সালে ঈশা খাঁর সময় ঢাকাকে মগ জলদস্যুদের কবল থেকে সুরক্ষার জন্য তৎকালীন ইছামতি নদীর তীরে ইদ্রাকপুর  কেল্লাটি নির্মাণ করা হয়। মীর জুমলা ছিলেন এখানকার প্রধান সেনাপতি। প্রায় ৪০০ বছরের পুরনো এই কেল্লাটিকে ১৯০৯ সালে প্রতœতত্ত্ব অধিদফতর সংরক্ষণের আওতায় আনা হয়। বর্তমানে এটিকে জাদুঘরে রূপান্তরের কাজ চলছে।

ধূমপানের অর্থ জমা করে দুইবার হজ করা সম্ভব

হেফাজতে ইসলামের আমির ও দেশশীর্ষ আলেম আল্লামা শাহ আহমদ শফী বলেছেন, ধূমপানকারী দোজখির সমতুল্য। দোজখির নাকমুখ দিয়ে ধোঁয়া বের হয়। আর ধূমপায়ীর অবস্থাও সমপরিমাণ। একজন ধূমপায়ী ধূমপান ছেড়ে দিয়ে ওই অর্থ জমা রাখলে অন্তত দুইবার পবিত্র হজ করা সম্ভব।
যৌন নিপীড়নের প্রতিবাদ কর্মসূচীতে তরুণীদের ওপর পুলিশের হামলাঃ তিন বিশ্ববিদ্যালয়ে সর্বাত্মক ধর্মঘটের ডাক
পহেলা বৈশাখে টি.এস.সি তে ঘটে যাওয়া যৌন নিপীড়নের প্রতিবাদ কর্মসূচীতে তরুণীদের ওপর পুলিশের হামলার প্রতিবাদে জাহাঙ্গীরনগর ও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে মঙ্গলবার সর্বাত্মক ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে ‘নিপীড়নের বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর’ সংগঠনটির সংগঠক সুজা-উদ-দোলা স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ তথ্য জানানো হয়। বর্ষবরণের দিনে যৌন নিপীড়নের ঘটনার বিচার দাবিতে এবং আন্দোলনকারী শিক্ষর্থীদের ওপর হামলা,  গ্রেফতারের প্রতিবাদে ও হামলাকারীদের দ্রুত বিচারের দাবিতে সর্বাত্মক ছাত্র ধর্মঘট আহ্বান করেছে ‘নিপীড়নের বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর’।     বাজেট অধিবেশন আগামী ১         জুন থেকে শুরু
দশম জাতীয় সংসদের ষষ্ঠ ও বাজেট অধিবেশন আগামী ১ জুন সোমবার বিকাল ৪টায় শুরু হবে।
সোমবার রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ সংবিধানের ৭২ অনুচ্ছেদের এক দফায় প্রদত্ত ক্ষমতাবলে এ অধিবেশন আহ্বান করেছেন।
এর আগে গত ১৯ জানুয়ারি দশম জাতীয় সংসদের পঞ্চম অধিবেশন শুরু হয়ে গত ২ এপ্রিল শেষ হয়।
বছরের প্রথম অধিবেশন হিসাবে সংবিধান অনুযায়ি রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ওই দিন সংসদে ভাষণ দেন। রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর ৩৭ কার্য দিবসে প্রায় ৬০ ঘন্টা ৩০ মিনিট আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। এতে সরকারি ও বিরোধী দল মিলিয়ে মোট ২৩৬ জন সংসদ সদস্য আলোচনায় অংশ গ্রহণ করেন। পঞ্চম অধিবেশনে সরকারি বিল জমা পড়েছে ১১টি। এর মধ্যে ৮টি সরকারি বিল পাস হয়।

ক্ষতিগ্রস্ত হজ যাত্রীদের পদযাত্রায় পুলিশের বাঁধা
ইহরামের সেলাইবিহীন সাদা কাপড় পড়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কার্যালয়ের উদ্দেশে শুরু করা ক্ষতিগ্রস্ত হজ এজেন্সির নেতাকর্মীদের পদযাত্রায় বাঁধা দিয়েছে পুলিশ। সোমবার সকালে  প্রেস ক্লাবের মূল ফটক থেকে পশ্চিম পাশের গেট পার হতেই তাদের থামিয়ে দেয় পুলিশ। পুলিশের সঙ্গে আলোচনা সাপেক্ষের এ পদযাত্রা কিছুদূর যাওয়ার পর পুলিশই বলে, সাংবাদিকদের ছবি নেওয়া শেষ, এখন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় অভিমুখে পদযাত্রা হবে অযথা। সোমবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাব এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে। ক্ষতিগ্রস্ত হজ যাত্রীদের জন্য ব্যবস্থা গ্রহণে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মরকলিপি দিতে পদযাত্রা কর্মসূচি পালন করতে ‘ক্ষতিগ্রস্ত হজ্জ এজেন্সিসমূহের’ ব্যানারে জড়ো হয় অনেকে। উল্লেখ, পদযাত্রায় আসা যাত্রীদের ‘আমরা হজ কোটায় সিন্ডিকেট চাই না’, ‘আল্লাহর মেহমানদের সমস্যা সমাধানে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ চাই’, ‘হজযাত্রীদের নিয়ে সৃষ্ট সংকটের মূল হোতা ধর্ম সচিবের অপসারণ চাই’সহ বিভিন্ন দাবি দাওয়া লেখা ফেস্টুন ব্যবহার করতে দেখা গেছে।

সৌদি আরবের ব্লাকলিস্টে উঠেছে বাংলাদেশ, ওমরাহ ভিসা বন্ধ
ঢাকা আদম পাচারের অভিযোগে সৌদি আরবে ব্লাকলিস্টে উঠেছে বাংলাদেশ। এজন্য  সৌদি সরকার প্রায় এক মাস ধরে বাংলাদেশি ওমরাহ হজ যাত্রীদের কোনো ভিসা দিচ্ছে না। কবে নাগাদ-ভিসা পুনরায় চালু হবে সেটিও অনিশ্চিত!
বিভিন্ন সূত্রে রিয়াদ যে অভিযোগ তুলছে তা হলো ওমরা ভিসা নিয়ে সৌদি যাওয়া হাজারও বাংলাদেশি অবৈধভাবে পালিয়ে বেড়াচ্ছে। এদের চিহ্নিত করতে পারছে না সৌদি সরকার।
অভিযোগে প্রকাশ্যে ঢাকা ও চট্টগ্রামের কয়েকটি ট্রাভেল এজেন্সি ওমরা ভিসার নামে সৌদি আরবে আদম পাচার করছে। সিলেটেরও কিছু সংখ্যক এজেন্সি রয়েছে এই তালিকায়। গত ডিসেম্বর থেকে মার্চ মাস পর্যন্ত যারা ওমরাহ পালন করতে সৌদি গিয়েছিলেন তাদের একটি অংশ দেশে ফিরে আসেনি। আর বিষয়টি সৌদি সরকারের নজরে আসা মাত্র তারা বাংলাদেশকে ব্লাকলিস্টেট করেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Hit Counter provided by Skylight