দেশ-বিদেশের খবর

মাদকাসক্ত সন্তানের হাতে
মা খুন
কুমিল্লা সদরের ৬ নম্বর জগন্নাথপুর ইউনিয়নের বাজগড্ডা এলাকায় অহিদা বেগম নামে এক নারীকে গলাটিপে হত্যা করেছেন তার মাদকাসক্ত ছেলে আশিক।
নিহত অহিদা বাজগড্ডা এলাকার আব্দুস সাত্তারের স্ত্রী বলে জানা যায়।
জানা যায়, আশিক মায়ের কাছে ৫ হাজার টাকা চান। টাকা না দেয়ায় আশিক তার মাকে গলাটিপে হত্যা করেন। টের পেয়ে স্থানীয়রা আশিককে আটকে রাখে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে আশিককে আটক করে এবং লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।
কোতোয়ালি থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সামসুজ্জামান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

পৃথিবীর মতো
আরেকটি গ্রহের সন্ধান
বিজ্ঞানীরা পৃথিবীর মতো আরেকটি গ্রহের সন্ধান পেয়েছেন । এ পর্যন্ত পৃথিবীর মতো যত গ্রহ আবিষ্কৃত হয়েছে, তাদের মধ্যে পৃথিবীর সঙ্গে নতুন আবিষ্কৃত গ্রহটির সবচেয়ে বেশি মিল রয়েছে বলে দাবি করছেন বিজ্ঞানীরা। সায়েন্স সাময়িকীতে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছেন বিজ্ঞানীরা।
বিজ্ঞানীরা জানান, পাথুরে এ গ্রহটির নাম রাখা হয়েছে কেপলার ১৮৬এফ। প্রায় পৃথিবীর সমান এ গ্রহটিতে জীবনধারণের আবশ্যিক উপাদান পানি থাকার সম্ভাবনা আছে বলে দলটি জানিয়েছে।
যুক্তরাষ্ট্রের সান ফ্যান্সিসকো স্টেট ইউনির্ভাসিটির অধ্যাপকপদার্থবিজ্ঞানী স্টিফেন কেন বলেন, ‘বাসযোগ্য যতগুলো গ্রহের সন্ধান পেয়েছি, তার মধ্যে এই গ্রহটিই সবচেয়ে ছোট।’
গবেষকদের ধারণা, গ্রহটি পৃথিবীর ব্যাসার্ধের চেয়ে ১০ শতাংশ বড়। আকৃতির জন্যই গ্রহটিকে পাথুরে বলে মনে করছেন বিজ্ঞানীরা।

মায়ের ক্ষমায়  খুনির মুক্তি
ফাঁসির সব কাজ চূড়ান্ত। খুনির চোখ দুটি কালো কাপড়ে বেঁধে দেয়া হয়েছে, গলায় ফাঁস লাগানো হয়েছে, এখন কেবল চেয়ারটা ঠেলে দেয়া বাকি। সেটা করবেন খুন হওয়া তরুণের মা ও বাবা। কিন্তু না। চেয়ারটি ঠেলে দেয়ার বদলে নিহত ছেলেটির মা খুনির মুখে চপেটাঘাত করে তাকে ক্ষমা করার কথা ঘোষণা করলেন। নিশ্চিত মৃত্যু থেকে রেহাই পেল এক তরুণ। ক্ষমার এই অবিশ্বাস্য ঘটনায় সেখানে জড়ো হওয়া সবাই মোহিত হয়ে  যায়। আনন্দের কান্নায় ভেঙে পড়ে সবাই। খুনির মা পর্যন্ত হতবাক হয়ে  গেছেন। তিনিও ছেলেকে ফিরে পেয়ে দৌড় দিয়ে ক্ষমাকারী মাকে জড়িয়ে  ধরেছেন। ঘটনাটি ঘটেছে ইরানে। ক্ষমাকারী মা জানিয়েছেন, স্বপ্নে ছেলেকে দেখার পর তিনি সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করেছেন।
ব্রিটেনের ডেইলি মেইল পত্রিকায়  খুনের শিকার তরুণের বাবা আবদুল গনি হোসেইনজাদেহর উদ্ধৃতি দিয়ে  জানিয়েছে যে, স্বপ্নে তাদের ছেলে বদলা না নেয়ার অনুরোধ করেছিল।
খুনির নাম বেলাল। সাত বছর আগে ইরানের রোয়োন শহরে রাস্তায় মারামারির একপর্যায়ে তিনি আবদুল্লাহ হোসেইনজাদেহ জুনিয়রকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করেছিলেন।
বাবা হোসেইনজাদেহ বিশ্বাস করেন,বেলাল আসলে তার ছেলেকে হত্যার কথা ভাবেনি।
ইরানে ধর্মীয় আইনে হত্যার বদলা হত্যা এবং সেটা করতে হয় নিহতের পরিবারের সদস্যদের। এখানে কারাদণ্ডের কোনো ব্যবস্থা নেই।

সুলতানি আমলের মসজিদের সন্ধান লাভ !
গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার বোয়ালী ইউনিয়নের ঢোলসমুদ্র এলাকার মুটের চালায় প্রাচীন ঐতিহ্যের সন্ধানে রাজবাড়ী খননের কাজ এগিয়ে চলছে। বেরিয়ে এসেছে সুলতানি আমলের একটি মসজিদের ধ্বংসাবশেষ। প্রতœতত্ত্ব অধিদফতরের ঢাকা আঞ্চলিক কার্যালয় এ খনন করছে।
জানা যায়, গাজীপুর উপজেলার সফিপুর বাজার থেকে ২০ কিলোমিটার উত্তরে মুটের চালা গ্রাম। দুই মাস আগে শাল-গজারি আর লালমাটি দিয়ে আবৃত হাজার বছর আগের সুলতানী আমলের রাজপ্রাসাদের অনুসন্ধান শুরু করেন প্রতœতত্ত্ব বিভাগ। খননকারীরা যতই লালমাটির নিচে যাচ্ছেন, ততই বেরিয়ে আসছে একের পর এক ইটের তৈরি নকশায় অলঙ্কৃত নিদর্শন, দেয়ালের বাইরে হাতে কাটা ইটের জালি নকশা ও বিভিন্ন স্থাপনা। প্রায় দেড় মাস পর সন্ধান মিলল বিভিন্ন কারুকাজে তৈরি মসজিদের ধ্বংসাবশেষ। এসব নিদর্শন দেখতে প্রতিদিন শত শত লোক ঢোলসমুদ্র গ্রামে ভিড় করছে।

ভাতিজার হাতে চাচা খুন
জমি নিয়ে বিরোধে ভাতিজার মারপিটে গুরুতর আহত চাচা হাফিজুর রহমান খান (৭৫) মারা গেছেন। পাবনার  ঈশ্বরদী পল্লীতে এই ঘটনা ঘটে।
পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, গোয়ালবাথান গ্রামের হাফিজুর রহমানের সঙ্গে ভাতিজা রিতু খানের (৩৫) দীর্ঘদিন ধরে জমি নিয়ে বিরোধ চলছিল। সোমবার রাতে একই বিষয়ে ভাতিজার সাথে চাচা হাফিজুর রহমানের কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে ভাতিজা চাচাকে বেদম মারপিট করে।
গুরুতর আহত হাফিজুর খানকে দ্রুত রামেকে নেয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায়ই তিনি মারা যান।

বিমানের চাকায় লুকিয়ে
কিশোরের আকাশ ভ্রমণ
হাওয়াই এয়ারলাইন্সের ফ্লাইট ৪৫ বিমানটি যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া থেকে হাওয়াই যাচ্ছিল। ছেলেটিও তখন বিমানের হুইল ওয়েলে লুকিয়ে ভ্রমণ করছিল। বলে রাখা দরকার, বিমানটি তখন ৩৮,০০০ ফিট উপর দিয়ে যাচ্ছিল। এত উপরে তাপমাত্রা খুবই কম হয় এবং অক্সিজেনের ঘাটতি থাকে। এতসব প্রতিকূল পরিস্থিতিতে ছেলেটি একটি পর্যায়ে জ্ঞান হারিয়ে ফেলে। সাড়ে ৫ ঘণ্টার ফ্লাইটে বেশির ভাগ সময়ই সে অজ্ঞান ছিল। কিন্তু বিমানটি যখন হাওয়াইয়ের মাওই বিমানবন্দরে নামে তখন তাকে অক্ষত অবস্থায় পাওয়া যায়।
চাকায় লুকিয়ে ছেলেটির সম্পূর্ণ অক্ষত বেঁচে যাওয়ার এ ঘটনাকে ব্যতিক্রম ও অলৌকিক বলে আখ্যায়িত করেছেন সংশ্লিষ্টরা। কপাল গুণে ছেলেটি বেঁচে আছে বলে মন্তব্য করেছেন মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা এফবিআই’র মুখপাত্র টম সিমন। ডাক্তারি পরীক্ষা শেষে সে সম্পূর্ণ অক্ষত আছে বলেও জানিয়েছেন সিমন। সিমন জানান, বেড়া ডিঙ্গিয়ে ছেলেটির ফ্লাইটটিতে উঠার ঘটনা সান জোস বিমানবন্দরের নিরাপত্তাবিষয়ক ভিডিও ফুটেজ দেখে নিশ্চিত হওয়া যায়।
মাওই বিমানবন্দরে অবতরণের পরপরই ছেলেটি হুইল ওয়েল থেকে লাফিয়ে পড়ে এবং উদ্দেশ্যহীনভাবে এদিক-ওদিক হাঁটতে থাকে। তখন নিরাপত্তাকর্মীরা তাকে আটক করে। নাটোরে শিশু কন্যাকে হত্যার পর মায়ের আত্মহত্যা
নাটোরে বিষপান করিয়ে নিজের তিন বছর বয়সী শিশু কন্যা রুমানা খাতুনকে হত্যার পর মা পেয়ারা বেগম (৩৬) আত্মহত্যা করেছেন। এ ঘটনায় গৃহবধূ পেয়ারা বেগমের পিতা শমসের আলী সোনার বাদী হয়ে গুরুদাসপুর থানায় আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেয়ার অভিযোগে জামাতার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন।
পেয়ারা বেগমের চাচাতো ভাই আসাদুজ্জামান জানান, তার বোনের প্রথম স্বামী হযরত আলী মারা গেলে, ৭-৮ বছর আগে পেয়ারা বেগমের গুরুদাসপুর উপজেলার চাপিলা ইউনিয়নের সাধুপাড়া গ্রামের খলিলুর রহমানের সাথে বিয়ে হয়। পারিবারিক কলহে তিন বছর বয়সী কন্যা শিশু রুমানা খাতুনকে বিষপান করিয়ে হত্যার পর মা নিজেও বিষপান করে। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাদের দু’জনকে স্বজনরা নাটোর আধুনিক সদর হাসপাতালে নিয়ে আসলে রাতে চিকিৎসকরা তাদের উভয়কে মৃত ঘোষণা করে।

পা-ফোলা রোগের কারণ মশা
ম্যালেরিয়া ছড়ানোর জন্য যে মশা দায়ী, এটা সবাই জানে। তবে পা-ফোলা রোগের কারণও যে মশা, সেটা হয়ত অনেকেই জানেন না।
বিশ্বের প্রায় ১২ কোটি মানুষ এই রোগে ভুগছেন। যার প্রায় ৬৫ শতাংশেরই বাস দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায়। এলিফ্যান্টাইটিস বা পা-ফোলা রোগ একজন রোগীর জীবন ধ্বংস করে দেয়।
ইন্দোনেশিয়ার চিকিৎসক ডা. মুহসীন জার্মানির বন বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে পা-ফোলা রোগ নিয়ে গবেষণা করছেন। তিনি রোগীদের জন্য আরো ভালো চিকিৎসার উপায় খুঁজছেন। তিনি জানান, লম্বা সাদা কৃমির জন্য এই রোগ হয়ে থাকে। যেটা মশার আক্রমণ থেকে বেশি সক্রামিত হয়। এই কৃমির তিনটি প্রজাতি রয়েছে, যেগুলো পা-ফোলা রোগের জন্য দায়ী। এই তিন প্রজাতি হলো- উখারিয়া বানক্রফটি, ব্র“গিয়া মালায়ি ও ব্র“গিয়া টিমোরি। একমাত্র ইন্দোনেশিয়াতেই এই তিন প্রজাতির কৃমি পাওয়া যায়।
ডা. মুহসীন বলেন, প্রাণীর দেহের মতো এই প্রক্রিয়াটা মানুষের শরীরের জন্যও প্রযোজ্য। এগুলো লার্ভা লসিকানালী ধমনীতে গিয়ে পূর্ণবয়স্ক কৃমিতে পরিণত হয়। সেখানে তারা লসিকানালী ধমনী ব্লক করে দেয়। ফলে পা, অণ্ডকোষের থলে বা মেয়েদের স্তন বড় হতে থাকে। যুগ যুগ ধরে কৃমি সেখানে থেকে যায়।
তিন বছর ধরে গবেষণা শেষে ডা. মুহসীন এখন একটা ওষুধের প্রোটোটাইপ উদ্ভাবন করেছেন। তার আশা, এটা শরীরের প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াবে এবং পা-ফোলা রোগের কারণ বিনষ্টে সহায়তা করবে।

বাংলাদেশের জমি চান বিজেপি নেতা
প্রায় ৫ কোটি অবৈধ বাংলাদেশির ভার ভারত বহন করছে দাবি করে এর ক্ষতিপূরণ হিসেবে বাংলাদেশের জমি চেয়েছেন বিজেপি নেতা সুব্রামনিয়াম স্বামী।
বিজেপি নেতা এল কে আদবানি থেকে শুরু করে এবারের প্রধানমন্ত্রী প্রার্থী নরেন্দ্র মোদি পর্যন্ত অনেক নেতাই বিভিন্ন সময় ‘বাংলাদেশি খেদাও’য়ের ডাক দিয়ে আসছেন।
সুব্রামনিয়াম বলেন, “বাংলাদেশি অনুপ্রবেশের বিষয়ে আমি ভীষণ হতাশ। আমার হিসেবে বাংলাদেশের জনসংখ্যার এক-তৃতীয়াংশ ভারতে বসবাস করে।
“যদি বাংলাদেশ তার নাগরিকদের ফিরিয়ে না নেয়, তাহলে ভারতকে জমি দিয়ে দেশটির ক্ষতিপূরণ দেয়া উচিত।”
বিজেপি নেতার বক্তব্যের বিষয়ে আসাম প্রদেশ কংগ্রেসের জ্যেষ্ঠ নেতা ভাগিরাত কারান বলেন, “সুব্রামনিয়ান এ সংখ্যাটি অত্যধিক বাড়িয়ে বলেছেন।
“মনে হচ্ছে, আসামে বসবাসকারী সব বাংলাভাষীকেই তিনি বাংলাদেশি হিসেবে চালিয়ে দেয়ার চেষ্টা করছেন।
সুব্রামনিয়াম অবশ্য বলেছেন, বাংলাদেশি অনুপ্রবেশের ক্ষতিপূরণ হিসেবে জমি চাওয়ার বিষয়টি একান্তই তার ব্যক্তিগত মত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Hit Counter provided by Skylight