দেশ-বিদেশের খবর

Des-Bideser Khobor copy

‘আমি আল্লাহকে সব বলে দেবো’ : এক শিশুর ফরিয়াদে কোটি হৃদয়ে রক্তক্ষরণ:
সারা বিশ্বের মুসলমানদের নিপীড়নের বিরুদ্ধে আল্লাহর কাছে এক সিরীয় শিশুর ফরিয়াদ বিবেকবান মানুষকে আবেগাপ্লুত করেছে। সোস্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়া তার সেই করুণ ফরিয়াদ কোটি কোটি মানুষের হৃদয়ে রক্তক্ষরণ ঘটিয়েছে।
তিন বছরের যুদ্ধাহত এক শিশু সম্প্রতি মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ার ঠিক আগ মুহূর্তে বলেছিল, ‘আমি আল্লাহকে সব বলে দিবো!’ শিশুটির রক্তমাখা ছবিটির দিকে তাকালেই বোঝা যায় সে আল্লাহর কাছে কী বলবে।
একজন ব্লগার লিখেছেন, ‘আল্লাহর কাছে সে নালিশ করবে! যারা তাকে মেরেছে, যারা তাকে রক্তাক্ত করেছে, যারা তাকে বুলেট ছুড়ে মেরেছে, তাদের বিরুদ্ধে সে আল্লাহর কাছে নালিশ করবে। এছাড়া আর কীইবা করার আছে ছোট্ট এই শিশুটির!’ তিনি লিখেছেন, ‘পৃথিবীর কারও কাছে সে অভিযোগ করেনি। কারও কাছে সে তাকে মারার বিচার চায়নি।’ শিশুটির করুণ ফরিয়াদের মাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে বিশ্বের নিপীড়িত কোটি কোটি মানুষেরই মনের কথা।
বিশ্বের বেশিরভাগ দেশেই মুসলমানরা তাদের ওপর চেপে বসা জালিম শাসকদের দ্বারা নিপীড়িত হচ্ছেন। শাসকরা তাদের রক্ষশোষণ করছে। ক্ষমতায় টিকে থাকার জন্য হাজার হাজার এমনকি লাখ লাখ মানুষকে হত্যা করেছে।
সিরিয়ার সরকার ও বিদ্রোহীদের যুদ্ধে এখন পর্যন্ত অন্তত ১ লাখ ৩০ হাজার মানুষ মারা গেছে বলে জানিয়েছে জাতিসংঘ। উদ্বাস্তু হয়ে শরণার্থী শিবিরে মানবেতর দিন কাটাচ্ছেন লাখ লাখ সিরীয় নাগরিক।
সিরিয়ার জালিম আসাদ সরকারের স্টাইলে বর্তমানে দানবীয় শাসন চলছে মিসর, নাইজেরিয়া, আফগানিস্তান, সুদানসহ বহু দেশে। এসব দেশের শাসকদের বর্বরতার শিকার হচ্ছে বহু শিশুও। সিরিয়ার ওই নাম না জানা শিশুটির ফরিয়াদ প্রতি মুহূর্তে ধ্বনিত হচ্ছে এসব দেশের কোটি কোটি মজলুম মানুষের কণ্ঠে।

আকাশে উড়ছে কুয়েট ছাত্র দীপের তৈরি স্বয়ংক্রিয় ড্রোন!
খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুয়েট) তড়িৎ ও ইলেকট্রনিক কৌশল বিভাগের ০৮ ব্যাচের ছাত্র আব্দুল্লাহ আল মামুন খান দীপের তৈরি মানববিহীন বিমান (ড্রোন) সফলভাবে আকাশে উড়তে পারছে। এটি ছিল দীপের ৪র্থ বর্ষের থিসিস প্রজেক্ট যার সুপারভাইজার ছিলেন সেই বিভাগের প্রফেসর ড. মো. শাহাজাহান। যন্ত্রটি পূর্ণাঙ্গ অটোনোমাস ড্রোন হিসাবে তৈরি করা হয়েছে। এই কাজে তার সাথে আরও ছিলেন রিজভি, রানা, রেজওয়ান প্রমুখ।
দীপ জানান, এই ড্রোন দিয়ে অ্যামাজনের পণ্য পরিবহনের মতোই জরুরি পণ্য পরিবহন সম্ভব হবে। তবে এজন্য সিক্যুরড ওয়েবসাইটের পাশাপাশি ড্রোনের নিরাপত্তা ব্যবস্থায়ও আরও উন্নয়ন আনতে হবে।
দ্বিতীয় বিমানবাহী রণতরী তৈরি করছে চীন
আগামী ছয় বছরের মধ্যেই চীন দ্বিতীয় বিমানবাহী রণতরী পানিতে নামাবে বলে আশা করছে। দ্বিতীয় এই রণতরীটি এখন নির্মাণের পর্যায়ে রয়েছে।
ক্রমবর্ধমান অর্থনৈতিক স্বার্থ ও উপকূলীয় সাগরগুলোর মালিকানা নিয়ে বিতর্কিত এলাকাগুলো নিয়ে বিরোধ বাড়তে থাকায় মুখে ধরনের চারটি রণতরীর মালিক হওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে চীন।

লালমোহনে ইমাম-মুয়াজ্জিনকে মারপিট, ক্ষমা চাওয়ার পরও চাকরিচ্যুত :
মসজিদে জুমার নামাজের খুতবার আগে সরকারবিরোধী সমালোচনার অভিযোগে ইমাম ও মুয়াজ্জিনকে লাঞ্ছিত করেছে এক আওয়ামী লীগ সমর্থিত ইউপি সদস্য ও তার লোকজন। এ সময় বেধড়ক মারপিট করে ইমাম ও মুয়াজ্জিনকে একটি ঘরে আটকে রাখা হয়। শুক্রবার জুমার নামাজের সময় উপজেলার বদরপুর ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের ফজলু চেয়ারম্যান বাড়ির দরজায় এ ঘটনা ঘটে। পরে বিকালে ইউপি চেয়ারম্যান তাদেরকে দিয়ে ক্ষমা প্রার্থনার পর ওই মসজিদ থেকে চাকরিচ্যুত করেন।
৫ বছরের মধ্যে মহাশূন্যে টেলিযোগাযোগ উপগ্রহ পাঠাবে ইরান
আগামী ২০১৮ সালের মধ্যে মহাশূন্যে টেলিযোগাযোগ স্যাটেলাইট পাঠাবে ইসলামী প্রজাতন্ত্র ইরান। দেশটির মহাকাশ গবেষণা কেন্দ্র- আইএসআরসি’র প্রধান হাসান কারিমি এ তথ্য জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, কৌশলগত পরিকল্পনার অংশ হিসেবে ইরান দেশে তৈরি টেলিযোগাযোগ উপগ্রহ মহাশূন্যে পাঠানোর লক্ষ্যে কাজ করছে।
২০০৯ সালে ইরান প্রথম নিজস্ব প্রযুক্তিতে তৈরি ‘উমিদ’ বা ‘আশা’ উপগ্রহ মহাকাশে পাঠায়। ওই উপগ্রহটি প্রতি ২৪ ঘণ্টায় ১৫ বার পৃথিবীকে প্রদক্ষিণ করে এবং ভূ-পৃষ্ঠে স্থাপিত কেন্দ্রে তথ্য-উপাত্ত পাঠায়। এরপর ইরান ২০১১ সালের মার্চে মহাকাশে জীবন্ত প্রাণী পাঠাতে সক্ষম হয়।

সুন্দরবনের বাদাবনে খোঁজ মিলল নতুন ম্যানগ্রোভের
সুন্দরবনের বিস্তীর্ণ বাদাবনে বেশ কিছুদিন ধরে বিভিন্ন প্রজাতির ম্যানগ্রোভের হাল হকিকতের খোঁজ নেওয়া হচ্ছিল। অজগ্র নদী-নালা-খাঁড়ির আড়ালে কোন পরিবেশে, কী ধরনের ম্যানগ্রোভ পাওয়া যায় খোঁজ চলানো হচ্ছিল।
চেহারা-চরিত্র, জলের তাপমাত্রা, লবণের তারতম্যের নিরিখে তাদের জীবন ধারণ ঠিক কীরকম, মাস ছয়েক ধরে সে ব্যাপারে সমীক্ষা চালানোর সময়ে চামটা দ্বীপের খাঁড়িতে আচমকা চোখে পড়েছিল সুঁচালো পাতা, ঝাঁকড়া সাদা ফুলের একেবারে নতুন প্রজাতির এক ম্যানগ্রোভের। তাঁর অভিজ্ঞ চোখে মনে হয়েছিল, ‘নব্য প্রজাতি’ নিশ্চয়। নিশ্চিত হতে ‘নেচার, এনভায়রনমেন্ট অ্যাণ্ড ওয়াইল্ড লাইফ সোসাইটি’র পরিবেশবিদ বিশ্বজিৎ রায়চৌধুরী ওই বিশেষ প্রজাতির ম্যানগ্রোভের নমুনা পাঠিয়েছিলেন বোটানিক্যাল সার্ভে অফ ইণ্ডিয়ায় (বিএসআই)।
মাস দেড়েক পরীক্ষার পরে সম্প্রতি বিএসআই-এর বিজ্ঞানীরা জানান, বিশ্বজিৎবাবুর অনুমান নির্ভুল। সুন্দরবনের কোর এলাকায় চামটা দ্বীপে পাওয়া অচেনা প্রজাতিটি সুন্দরবনের ম্যানগ্রোভের তালিকায় শেষ সংযোজন।
বিশ্বে তেলের দৈনিক চাহিদা বাড়বে ১৩ লাখ ব্যারেল
২০১৪ সালের মধ্যে পৃথিবীতে জ্বালানি তেলের দৈনিক চাহিদা ১৩  লাখ ব্যারেল বৃদ্ধি পাবে বলে জানিয়েছে ইন্টারন্যাশনাল এনার্জি এজেন্সি (আইইএ)। মঙ্গলবার সংস্থাটি কর্তৃক প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়েছে। খবর রয়টার্স বার্তা সংস্থার।
আইইএ জানায়, চলতি বছরের মধ্যে পৃথিবীতে তেলের দৈনিক চাহিদা ১৩ লাখ ব্যারেল বৃদ্ধি পেয়ে ৯ কোটি ২৫ ব্যারেলে পৌছাবে, যা পূর্ববর্তী বছরের তুলনায় ১ দশমিক ৪ শতাংশ বেশি। পশ্চিমা দেশগুলোতে মন্দা কাটিয়ে স্বাভাবিক অবস্থা ফিরে আসার কারণে তেলের চাহিদার এই বৃদ্ধি ঘটবে বলে জানিয়েছে সংস্থাটি।
সংস্থাটি আরো জানায়, বিগত বছর যুক্তরাষ্ট্রে তেলের দৈনিক চাহিদা বৃদ্ধি পেয়েছ ৩ লাখ ৯০ হাজার ব্যারেল, যা পূর্ববর্তী বছরের তুলনায় ২ শতাংশ বেশি। ১৯৯৯ সালের পর এই প্রথম যুক্তরাষ্ট্রে তেলের চাহিদা বৃদ্ধির ক্ষেত্রে চিনকেও ছাড়িয়ে গেছে। ২০১৩ সালে চিনে তেলের দৈনিক পেয়েছিল বৃদ্ধি পেয়েছিল ২ লাখ ৯৫ হাজার ব্যারেল।
কানাডায় বৃদ্ধাশ্রমে অগ্নিকাণ্ডে নিহত ৫, নিখোঁজ ৩১
কানাডার কুইবেকে একটি বৃদ্ধাশ্রমে অগ্নিকাণ্ডে অন্তত ৫ জন নিহত হয়েছেন। এখনো ৩১ জন নিখোঁজ রয়েছেন। তাই নিহতের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে আশঙ্কা করা হচ্ছে।
কানাডার প্রধানমন্ত্রী স্টিফেন হার্পার বলেছেন, লিসলে-ভার্টে নামক স্থানের ডু হার্ভের ওই বৃদ্ধাশ্রমে প্রাণহানি যে ‘লক্ষ্যণীয়’ হবে তাতে কোনো সন্দেহ নেই।
স্থানীয় সময় ২৪ জানুয়ারী শুক্রবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে কুইবেক শহরের ২২৫ কিলোমিটার পূর্বে অবস্থিত এই বৃদ্ধাশ্রমে অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়।
কলম্বাসের ৫শ’ বছর আগে আমেরিকার খোঁজ পান এক মুসলিম
সারা দুনিয়ার মানুষ এতদিন ধরে জেনে এসেছে স্প্যানিশ নাবিক কলম্বাসই আবিস্কার করেছিলেন আমেরিকা। কিন্তু সবকিছু গোলমল পাকিয়েছে একটি নিবন্ধ। তাতে দাবি করা হয়েছে, কলম্বাসের ৫০০ বছর আগেই আমেরিকা আবিস্কার করেছিলেন এক মুসলিম মণীষী। তার নাম আবু রাইহান আল-বেরুনী। নিবন্ধ বলছে, মুসলিম মণীষী আবিস্কার করলেও পাদপ্রদীপের আলোয় আসে কলম্বাসের নাম।
ইতিহাস লেখক এস ফ্রেডরিক স্টার তার ‘আজকের ইতিহাস’ নিবন্ধে দাবি করেছেন, ১৪৯৮ সালের অনেক আগেই আমেরিকা আবিস্কার করেন আবু রাইহান। নিবন্ধ অনুসারে ৯৭৩ সালে, আজকের মধ্য এশিয়ার দেশ উজবেকিস্তানে জন্ম তার। ওই ইতিহাস লেখকের মতে, আবু রাইহানই এশিয়া-ইউরোপসহ পৃথিবীর অজানা ভূমি আবিস্কারের প্রথম পথ প্রদর্শক। আমেরিকা যে আমেরিকার জায়গায় ছিল সেটার বাস্তবসম্মত ধারণা দেন এই মুসলিম ভূ-গোলবিদ।
মধ্যপাচ্য, উত্তর-পশ্চিম ও ভারতসহ অনেক দেশের ভাষা জানতেন রাইহান। দক্ষ ছিলেন গণিত, জোতিবিদ্যা, খনি বিদ্যা, ভূগোল, মানচিত্রাঙ্কন বিদ্যা, জ্যামিতি ও ত্রি-কোনোমিতিতে।
ফ্রেডরিক তার নিবন্ধে দাবি করেছেন, আবু রাইহানা আল-বেরুনীই পৃথিবীর প্রথম ব্যক্তি যিনি, নতুন পৃথিবী (নিউ ওয়ার্ল্ড) শব্দটার ধারণা দিয়েছেন।
মৃত্যুদণ্ডের ৭০ বছর পর পুনর্বিচারের আবেদন
যুক্তরাষ্ট্রের সাউথ কালোলিনায় ১৪ বছর বয়সী এক কৃষ্ণাঙ্গ কিশোরের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করার ৭০ বছর পর তার পুনর্বিচারের আবেদন করা হয়েছে। আবেদনে বলা হয়েছে, যখন তাকে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয় তখন সেখানে বর্ণবিদ্বেষ ছিল চরমে এবং কৃষ্ণাঙ্গদের পৃথক করে রাখা হতো।
স্টিনি নামের ওই কিশোরের বিরুদ্ধে ১১ বছর বয়সী বেটি বিনিকার এবং ৭ বছর বয়সী মেরি এমা টেমস নামের দুজন শেতাঙ্গ শিশুকে হত্যার অভিযোগ আনা হয়েছিল। ঘটনাটি ঘটেছিল সাউথ ক্যারোলিনার আলকলু শহরে।
এক দিনেরও কম সময়ের বিচারে তাকে মৃত্যুদণ্ড দেয়া হয়। ইলেকট্রিক চেয়ারে বসিয়ে ১৯৪৪ সালে স্টিনির মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়।
স্টিনির ছোট বোন, সেই সময় যার বয়স ছিল মাত্র ৭ বছর, আদালতে সেই সময়কার ঘটনার মর্মস্পর্শী বর্ণনা দিয়েছেন।
বিশ্বের প্রথম কৃত্রিম হৃৎপিণ্ড সংযোজন সম্পন্ন
বিশ্বে প্রথমবারের মতো সফলভাবে কৃত্রিম হৃৎপিণ্ড সংযোজন সম্পন্ন হয়েছে। একটি ফরাসি প্রতিষ্ঠান ক্যারমেটের তৈরি করা হৃদপিণ্ড ৭৫ বছর বয়স্ক এক ব্যক্তির দেহে সংযোজন করা হয়েছে। এর ফলে লোকটি আরো পাঁচ বছর বাঁচবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।
হৃৎপিণ্ডটি চলবে লিথিয়াম-আয়ন ব্যাটারির শক্তিতে। এটা দেহের বাইরে ধারণ করা যাবে।
কৃত্রিম হৃৎপিণ্ডটি রোগাক্রান্ত হৃৎপিণ্ডের বদলে লাগানো যাবে। এটি প্রায় পাঁচ বছর কাজ করবে।
মুসলমানদের সমস্যার জন্য উগ্র গোষ্ঠীগুলো দায়ী: আয়াতুল্লাহ কাশানি
ইসলামী প্রজাতন্ত্র ইরানের শীর্ষস্থানীয় আলেম আয়াতুল্লাহ মোহাম্মদ ইমামি কাশানি মুসলিম বিশ্বের বর্তমান সমস্যার জন্য উগ্র তাকফিরি ও সালাফি গোষ্ঠীগুলোকে দায়ী করেছেন। তিনি রাজধানী তেহরানে জুমার নামাজের খোতবায় এ কথা বলেছেন।
আয়াতুল্লাহ মোহাম্মদ ইমামি কাশানি শিয়া ও সুন্নি মুসলমানদের মধ্যকার অভিন্ন বৈশিষ্ট্য ও মিলের কথা উল্লেখ করে বলেছেন, ইসলামের শত্রুরা ইরাক ও সিরিয়ায় ততপর উগ্র তাকফিরি ও সালাফি গোষ্ঠীগুলোর মাধ্যমে মুসলমানদের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টির চেষ্টা চালাচ্ছে। এ গোষ্ঠীগুলো বিশ্বের কাছে ইসলামকে বিকৃতভাবে তুলে ধরার চেষ্টা করছে উল্লেখ করে তিনি বলেছেন, মুসলমানদের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টি করে এমন  যে কোন কর্মকাণ্ড থেকে সবারই বিরত থাকা উচিত।
মস্তিষ্কে বৈদ্যুতিক শক দেয়া হলে অপরাধ ততপরতা কমে যায়
মস্তিষ্কে বৈদ্যুতিক শক দেয়া হলে অপরাধ ততপরতা কমে যায় বলে গবেষকরা দেখতে পেয়েছেন। মানব মস্তিষ্কের যে অংশ সামাজিক বিধি বিধান মেনে চলার সিদ্ধান্ত নেয় সে অংশটি সুনির্দিষ্টভাবে শনাক্ত করতে পেরেছেন বিজ্ঞানীরা।
তারা আরো দেখতে পেয়েছেন, মস্তিষ্কের  এ  অংশে বেদনাহীন মৃদু বৈদ্যুতিক শক দেয়ার মধ্য দিয়ে নিউরন বা পূর্ণ স্নায়ু কোষরাজিকে নিয়ন্ত্রণ করা যায়। খুলিতে ইলেক্ট্রোড বসিয়ে এ শক দেয়া হয়।
দেশে চালু হলো
ইসলামী ক্রেডিট কার্ড
প্রাইম ব্যাংক লিমিটেড বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো ইসলামী ক্রেডিট কার্ড চালু করেছে। গতকাল বুধবার রাজধানীর রূপসী বাংলা হোটেলে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে এ কার্ড চালুর ঘোষণা দেন ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এহসান খসরু।
অনুষ্ঠানে জানানো হয়, ইসলামী ক্রেডিট কার্ডের গ্রাহকরা সমপূর্ণ সুদমুক্ত ও শরিয়াসম্মতভাবে ব্যাংকিং সেবা পাবেন।
এতে কোনো লুকায়িত মাশুলও (হিডেন চার্জ) নেই।এই কার্ড ব্যবহার করে দেশের ১০ হাজার বিপণিবিতান থেকে বিভিন্ন ধরনের পণ্য কেনা যাবে। আন্তর্জাতিকভাবেও এই কার্ড স্বীকৃত। আয়োজকরা জানান, এই কার্ড ব্যবহার করে বিশ্বের দুই কোটি বিপণিবিতান থেকে কেনাকাটা করার সুযোগ রয়েছে। তাছাড়া বিশ্বের ১০ লাখ এটিএম বুথেও এই কার্ড ব্যবহার করা যাবে।
সূর্যের মত আরো একটি গ্রহের সন্ধান লাভ
নতুন তিনটি গ্রহের সন্ধান পাওয়া গেছে। এর মধ্যে একটি প্রায় সূর্যের মতোই।
ইউরোপীয়ান সাউদার্ন অবজার্ভেটরির (এসো) কর্মকর্তারা এই তথ্য জানিয়েছেন। চিলি এবং বিশ্বের অন্যান্য স্থানে এসোর নতুন হার্পস টেলিস্কোপের মাধ্যমে নতুন এই তিনটি গ্রহের সন্ধান পাওয়া যায়। এসোর এই আবিস্কারটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কারণ, এখন পর্যন্ত ১০০০ এর বেশি এক্সোপ্লানেট (পৃথিবী ব্যতীত যেসব গ্রহ সূর্যকে ঘিরে আবর্তিত হয়) আবিস্কৃত হলেও এর কোনোটিই ঠিক সূর্যের মতো নয়।
অতিমানবীয় এক রোবট তৈরি করছে ইইউ
এতদিন ধরে বিজ্ঞানীরা মানুষের গুণাবলি সম্পন্ন রোবট তৈরিতে ব্যস্ত ছিলেন। তবে এবার তারা জোর দিচ্ছেন ভিন্ন ধরনের এক রোবট নির্মাণে। মানুষের পক্ষে সম্ভব নয়, এমন পরিস্থিতিতে যারা অনায়াসে কাজ করবে।
কেমন হবে ভবিষ্যতের রোবট? ইউরোপীয় ইউনিয়নের নতুন আন্তর্জাতিক প্রকল্প কিন্তু এটাই। অর্থাৎ নতুন ধরনের রোবট তৈরি। আগুনের মধ্যে দিয়ে চলাফেরা করতে পারবে এরা, হয়তো পারবে জলের ওপর দিয়ে হাঁটতে। এমনকি কোথায় কোথায় ‘ল্যান্ডমাইন’ পোঁতা রয়েছে, তাও ধরে ফেলতে পারবে এ উন্নত অতিমানবীয় রোবট।
ওজন কমানোর অস্ত্রোপচার
এখন নিরাপদ
শরীরের ওজন কমানোর জন্য অনেকেই অস্ত্রোপচার করান। আবার অনেকের মনে অস্ত্রোপচার পরবর্তী জটিলতা নিয়ে আশঙ্কা থাকায় তারা ও পথ মাড়ান না। কিন্তু কোনটা ঠিক?
এটা বোধ হয় অধিকাংশ মানুষেরই প্রশ্ন? সামপ্রতিক এক গবেষণা বলছে, এ ধরণের অপারেশনের কারণে মৃত্যুর হার আগের চেয়ে কমেছে। আর আশার কথা হচ্ছে, অস্ত্রোপচারের কারণে ওজন কমিয়ে ফেলা সম্ভব হওয়ায় অনেক রোগের উপদ্রব কমে যাচ্ছে। তবে জটিলতার ঝুঁকি কিন্তু কিছুটা আছেই। প্রায় ১০ বছরের তথ্য ঘেঁটে গবেষণাটা করা হয়েছে। অবশ্য এটাকে গবেষণা না বলে ‘রিভিউ’ বলা যেতে পারে, কেননা গবেষকরা আসলে গত ১০ বছরের প্রায় ১৬৪টি গবেষণার তথ্য পর্যালোচনা করে প্রতিবেদনটি তৈরি করেছেন। এসব গবেষণায় ১ লক্ষ ৬১ হাজার ৭৫৬ জন রোগীর উপর জরিপ চালানো হয়।
তথ্যসূত্র : বিবিসি, আমার দেশ, প্রথম আলো, আরটি এন এন, ইরান বার্তা, ইত্তেফাক, রেডিও তেহরান

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Hit Counter provided by Skylight