দশে বদিশেরে খবর

Des-Bideser Khobor copy

এবার জনপ্রতি সর্বনিম্ন ফিতরা ৬০ টাকা
এবার ঈদুল ফিতরে ন্যূনতম ফিতরা ৬০ টাকা ও সর্বোচ্চ ১৬৫০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। বধুবার সকাল সাড়ে ১০টায় ইসলামিক ফাউন্ডেশন বায়তুল মোকাররম সভাকক্ষে ফিতরা নির্ধারণী সভায় এর হার নির্ধারণ করা হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন দ্বীনি ও দাওয়া বিভাগের পরিচালক এ এম সিরাজুল ইসলাম।
সভায় সর্বসম্মতভাবে সিদ্ধান্ত হয়, ইসলামি শরিয়াহ মতে গম/আটা, খেজুর, কিসমিস, পনির ও যব ইত্যাদি পণ্যগুলোর যে কোনো একটি দিয়ে ফিতরা প্রদান করা যায়। গম বা আটা দিয়ে ফিতরা আদায় করলে এক কেজি ৬৫০ গ্রাম অথবা এর বর্তমান বাজার মূল্য ৬০ টাকা আদায় করতে হবে। এছাড়া খেজুর দিয়ে আদায় করলে তিন কেজি ৩০০ গ্রাম কিংবা এর বাজার মূল্য ১ হাজার ৬৫০ টাকা, কিসমিস দিয়ে আদায় করলে তিন কেজি ৩০০ গ্রাম কিংবা এর বাজার মূল্য ১ হাজার ২০০ টাকা। পনির দিয়ে আদায় করলে তিন কেজি ৩০০ গ্রাম কিংবা এর বাজার মূল্য ১ হাজার ৬০০ টাকা এবং যব দিয়ে আদায় করলে তিন কেজি ৩০০ গ্রাম অথবা বাজার মূল্য ২০০ টাকা ফিতরা আদায় করতে হবে।
গত বছর সর্বনিম্ন ফিতরা ধরা হয়েছিল জনপ্রতি ৬৫ টাকা, সর্বোচ্চ ২০০০ টাকা। চীনে মুসলমানদের  রোযা রাখা নিষিদ্ধ
এবার রমজানে রোজা রাখতে পারছেন না চীনের জিনজিয়াং অঞ্চলের সংখ্যালঘু মুসলিম সম্প্রদায়। এ নিয়ে ইতোমধ্যেই নানা তৎপরতা শুরু করেছে বেইজিং সরকার। চীন সরকার এক ঘোষণায় জানিয়েছে, উইঘুর জনগোষ্ঠীর মুসলিমরা এবার পবিত্র রমজান মাসে কোনো রোজা রাখতে পারবে না। এ নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন উইঘুর নেতা দিলজাত রাজিত। এক বিবৃতিতে তিনি বলেছেন, এটি তাদের ধর্মীয় বিশ্বাসের ওপর হামলা এবং এ ধরনের কড়াকড়ি আরোপের কারণে উইঘুর জনগোষ্ঠী চীনা সরকারের বিরুদ্ধে ফুঁসে ওঠতে পারে।তিনি আরো বলেন, উইঘুরদের ধর্ম নিয়ে রাজনীতি শুরু করেছে চীন। ধর্ম পালনে এ ধরনের বিধি-নিষেধের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে ওঠতে পারে। এছাড়া মুসলিম মালিকানাধীন দোকানগুলোতে সিগারেট এবং মদ বিক্রি অব্যাহত রাখতে কড়া নির্দেশ দিয়েছে বেইজিং সরকার। এ নির্দেশ অমান্য করা হলে তাদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ করে দেয়া হবে বলেও হুমকি দেয়া হয়েছে।

পদত্যাগ করল ফিলিস্তিনি ঐক্য সরকার, হামাসের প্রত্যাখ্যান
সব জল্পনার অবসান ঘটিয়ে পদত্যাগ করেছে ফিলিস্তিনের জাতীয় ঐকমত্যের সরকার। গত বছরের এপ্রিল মাসে ফিলিস্তিনের ফাতাহ আন্দোলন এবং ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাস মতবিরোধ মিটিয়ে জাতীয় ঐক্যের সরকার গঠন করেছিল। কিন্তু বছর পার হতে না হতেই সে সরকার ভেঙে গেল।
এদিকে, সরকার ভেঙে দেয়ার বিষয়ে প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাসের ঘোষণাকে প্রত্যাখ্যান করেছে ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাস। সংগঠনের মুখপাত্র সামি আবু জুহরি বলেছেন, সব দলের সম্মতি ছাড়া একতরফাভাবে জাতীয় ঐকমত্যের সরকার ভেঙে দেয়ার সিদ্ধান্তকে প্রত্যাখ্যান করছে হামাস। তিনি বলেন, ঐকমত্যের সরকারে পরিবর্তন আনার বিষয়ে কেউ হামাসের সঙ্গে কোনো ধরনের পরামর্শ করে নি কিংবা এ নিয়ে কেউ কোনো কথাও বলে নি। এ বিষয়ে ফাতাহ দল একাই সব কিছু করছে।

ওমরা ভিসায় আদম পাচারের অভিযোগে ৪৯ হজ এজেন্সিকে শোকজ
মানবপাচারের অভিযোগে সরকার ৪৯টি ওমরাহ হজ এজেন্সিকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়েছে। ওমরাহ ভিসায় পবিত্র ওমরাহ হজ পালনের নামে মানুষকে সৌদি আরব পাঠিয়ে ভিসার মেয়াদের মধ্যে তাদের ফেরত না আনায় এ নোটিশ জারি করা হয় বলে জানা গেছে। এ ৪৯টি এজেন্সির মাধ্যমে পবিত্র ওমরাহ হজ পালনের জন্য ভিসা নিয়ে সৌদি আরবে গিয়ে ১১,৪১৭ ব্যক্তি দেশে ফেরেননি বলে অভিযোগ রয়েছে।
জানা গেছে, গত বছরের ডিসেম্বর থেকে চলতি বছরের মার্চের মাঝামাঝি পর্যন্ত বাংলাদেশ থেকে ৫১,৩২১ জন ওমরাহ ভিসায় সৌদি আরব যান। এদের বেশির ভাগকেই ৩০ দিনের ভিসা দেওয়া হয়। নিয়ম অনুযায়ী ওমরাহ পালন শেষে ও ভিসার মেয়াদ শেষ হওয়ার আগেই তাদের ফিরে আসার কথা। কিন্তু তাদের একটি বড় অংশ দেশে ফিরে আসেননি।
এই ৪৯ এজেন্সির মধ্যে মেগাটপ ট্রাভেল ইন্টারন্যাশনালের ১০৪ জন, গোল্ডেন বেঙ্গল ট্যুরস অ্যান্ড ট্রাভেলসের ৬৭ জন, মুনা ট্রাভেলস অ্যান্ড ট্যুরসের ২১৪, হাসিম এয়ার  ইন্টারন্যাশনালের ১৮, মাসুদ ট্রাভেলস অ্যান্ড ট্যুরসের ৬৮৯, রয়েল এয়ার সার্ভিস সিস্টেমের ১৫৬, খাদেম এয়ার সার্ভিসের ৮৬, আল নূর ইন্টারন্যাশনালের ২১৯, সবুজ বাংলা ইন্টারন্যাশনালের ৬২২, গোল্ডেন বেঙ্গল ট্যুরস অ্যান্ড ট্রাভেলসের ৪২০, এলাইট ট্রাভেলসের ৯৯২, জেমিনি ট্রাভেলসের ৯৩৯, রওশন ট্রাভেলসের ২৫৩, ফ্লাই হোম ট্রাভেলসের ২১৫, রব্বানী ওভারসিজ সার্ভিসেসের ৩১১, ইজিওয়ে ট্রাভেলসের ৩৩৮, ইউনাইটেড স্টারস ট্যুরসের ২১৩, থ্রি-স্টার ট্রাভেলসের ২৪১, অঞ্জন এয়ার ট্রাভেলসের ১৮২, কেএসপি ট্রাভেলসের ১৮২, টপকন ওভারসিজের ৩৭১, মল্লিক ট্রাভেলসের ৩১৮, এডমায়ার এয়ার ট্রাভেলসের ২১৯, মারুফ ট্রাভেলসের ৫৮১, গালফ ট্রাভেলস অ্যান্ড ট্যুরসের ১৪১, আলহাজ ট্রাভেলস ট্রেডের ৯, এয়ার এক্সপ্রেসের ১৯৮, আভিয়া ওভারসিজের ১৮৬, বাংলাদেশ ওভারসিজ সার্ভিসেসের ১১৮, কনকর্ড ইন্টারন্যাশনালের ২০৮, লাব্বাইক ওভারসিজের ১৯৭, এম এম আর এভিয়েশনের ২১২, এম পি ট্রাভেলসের ১৭৯, পারাবত ট্রাভেলস অ্যান্ড ট্যুরসের ২১৫, উইংস ট্রাভেলসের ১০৩, ওয়েসিস এয়ার সার্ভিসেসের ১৮৭, সিটি নিয়ন ট্রাভেলসের ২১৩, পারপল এভিয়েশনের ১৯৯, এভারগ্রীন ট্রাভেলসের ২৮৭, রাজশাহী ট্রাভেলস অ্যান্ড ট্যুরসের ৩৭, হাসিস ওভারসিজের ৯৬, ইস্টার্ন ট্রাভেলসের ৫৯, ফারহান এভিয়েশন সার্ভিসেসের ৬০, কামিজ ট্রাভেলসের ১৬, লর্ড ট্রাভেলসের ৭৭, মদীনা এয়ার ট্রাভেলস লিমিটেডের ৬৩, মিমস ট্রাভেলস অ্যান্ড ট্যুরসের তিনজন ও শরীফ এয়ার সার্ভিস লিমিটেডের ৩৬ জন ওমরাহ ভিসায় গিয়ে ফেরেননি। ওমরাহ ভিসায় গিয়ে বিপুলসংখ্যক বাংলাদেশি দেশে না ফেরায় গত ২২ মার্চ থেকে সৌদি আরব বাংলাদেশে ওমরাহ ভিসা বন্ধ করে দেয়। এখন পর্যন্ত ওমরাহ ভিসা চালু হয়নি।

ইসরাইল থেকে পালিয়ে যাওয়া ঠেকাতে তাদেরকে অর্থ ঘুষ দেয়ার উদ্যোগ
পালিয়ে যাওয়া ঠেকাতে তাদেরকে অর্থ ঘুষ দেয়ার উদ্যোগ নিয়েছে ইসরাইল । ইসরাইলি দৈনিক মাআরিভ এ খবর ফাঁস করেছে। দক্ষিণ ফিলিস্তিনে বা গাজার কাছাকাছি অঞ্চলে গড়ে তোলা অবৈধ ইসরাইলি বসতিগুলোতে থেকে যেতে ইহুদিবাদীদের উৎসাহ দেয়ার জন্য দখলদার কর্তৃপক্ষ নগদ অর্থ দিচ্ছে বলে ইসরাইলি সংসদের এক সদস্য জানান। কয়েকটি যুদ্ধে ফিলিস্তিনি সংগ্রামীদের ক্ষেপণাস্ত্রগুলো এই অঞ্চলে সহজেই আঘাত হানায় আতঙ্কগ্রস্ত দখলদার ইহুদিবাদীরা ব্যাপক হারে এখানকার অবৈধ বসতিগুলো ছেড়ে পালিয়ে যাচ্ছে।
মাআরিভ লিখেছে, গাজা যুদ্ধের পর এই অঞ্চলের ইসরাইলি বসতিগুলো থেকে এ পর্যন্ত শত শত ইসরাইলি পালিয়ে গেছে।

মোদির কণ্ঠে ইসলামের প্রশংসা
ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ইসলামে শিক্ষার গুরুত্ব বোঝাতে গিয়ে বলেছেন, ‘কোরআনে ‘ইলম’ (শিক্ষা/জ্ঞান) শব্দটি ৮০০ বার ব্যবহৃত হয়েছে। আল্লাহর পর এটাই সবচেয়ে ব্যবহৃত শব্দ।  এই ধর্মে শিক্ষার এমনই গুরুত্ব।’
টাইমস অব ইন্ডিয়া এই খবর প্রকাশ করেছে। পত্রিকাটি তাদের খবরে বলেছে, প্রধানমন্ত্রীর নিজ বাসভবনে বইয়ের মোড়ক উন্মোচনের মতো অনুষ্ঠান সাধারণত হয় না। তবে প্রথমবারের মতো মুসলমান সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশগুলোর হাইকমিশনারদের চায়ের দাওয়াত দিয়ে এ ধরনের অনুষ্ঠানের আয়োজন করলেন মোদি।

 রোহিঙ্গা মুসলমানদের ওপর গণহত্যা :

মিয়ানমারকে একঘরে করতে আসিয়ানভুক্ত দেশগুলোর হস্তক্ষেপের আহবান মাহাথিরের সংখ্যালঘু রোহিঙ্গাদের মুসলমানদের ওপর মিয়ানমারে গণহত্যা চালানোর অভিযোগ করেছেন মালয়েশিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ।
গণহত্যার কারণে দেশটিকে (মিয়ানমার) একঘরে করা উচিত বলেও একই সঙ্গে মন্তব্য করেন আধুনিক মালয়েশিয়ার এই রূপকার। তিনি গণহত্যা বন্ধে মালয়েশিয়াসহ দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার জোট আসিয়ানের সদস্য দেশগুলোর হস্তক্ষেপ করা উচিত বলেও মন্তব্য করেন। শুক্রবার কুয়ালালামপুরে একটি আন্তর্জাতিক সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।
মিয়ানমার থেকে নারী, শিশুসহ হাজারো রোহিঙ্গা সম্প্রতি মৃত্যুর ঝুঁকি নিয়ে নৌকায় করে মালয়েশিয়া ও থাইল্যান্ডের দিকে পাড়ি জমায়। মানব পাচারকারীদের শিকার হওয়া ছাড়াও দমনপীড়নের কারণে তারা দেশ ছাড়তে বাধ্য হচ্ছে বলে অভিযোগ আছে।

সিরিয়া যুদ্ধে ২ লাখ ৩০ হাজার মানুষ নিহত
সিরিয়ায় গত চার বছরের বেশি সময় ধরে চলা যুদ্ধে এ পর্যন্ত দুই লাখ ৩০ হাজার মানুষ নিহত হয়েছে। ব্রিটেন-ভিত্তিক সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস এ কথা জানায়। সংস্থা জানায়, তারা ২০১১ সালের মার্চে যুদ্ধ শুরু হওয়ার পর থেকে এ পর্যন্ত দুই লাখ ৩০ হাজার ছয়শ’ ১৮ জনের মৃত্যু নথিভুক্ত করেছে। এদের মধ্যে ৬৯ হাজার চারশ’ ৯৪ জন বেসামরিক নাগরিক।
সংস্থার হিসেব অনুযায়ী, নিহত বেসামরিক নাগরিকদের মধ্যে ১১ হাজার ৪শ’ ৯৩টি শিশু এবং ৭ হাজার তিনশ’ ৭১ জন নারী রয়েছে। অবজারভেটরি জানায়, যুদ্ধে সরকার পক্ষে ৪৯ হাজার একশ’ ছয়জন সৈন্য এবং ৩৬ হাজার চারশ’ ৬৪ জন সরকার অনুগত মিলিশিয়া নিহত হয়েছে। নিহত সরকার অনুগত যোদ্ধাদের বেশির ভাগই স্থানীয় মিলিশিয়া বাহিনীর সদস্য। তবে এদের মধ্যে আটশ’ ৩৮ জন লেবাননের শক্তিশালী হেজবুল্লাহ’র সদস্য এবং বিভিন্ন দেশ থেকে আগত ৩ হাজার ৯৩ জন শিয়া যোদ্ধা রয়েছে। সংস্থা আরো জানায়, যুদ্ধে ৪১ হাজার একশ’ ১৬ জনের বেশি বিদ্রোহী যোদ্ধা নিহত হয়েছে। এদের মধ্যে সিরিযান জিহাদি এবং কুর্দি মিলিশিয়ারাও রয়েছে। সংস্থার পরিচালক রামি আবদুল রহমান বলেন, এই পরিসংখ্যান সম্পূর্ণ নয়। তিনি বলেন, আমরা বিরাট সংখ্যক মানুষের নিখোঁজ হওয়ার কথা জানি, যাদের ভাগ্য অজানা। সংস্থার পরিসংখ্যানে গেফতারের পর নিখোঁজ হওয়া ২০ হাজার লোক, সরকারের হাতে আটক থাকা নয় হাজার লোক এবং আইএস জিহাদি গ্রুপের হাতে আটক চার হাজার লোকের হিসাব অন্তর্ভুক্ত করা হয়নি।

ব্লগারকে দোররা মারার শাস্তি বহাল রাখলো সৌদি আরব
সৌদি আরবের সুপ্রিম কোর্ট সেখানকার একজন ব্লগারের এক হাজার দোররা এবং ১০ বছরের কারাদণ্ডের রায় বহাল রেখেছে।ব্লগার রাফি বাদাওযড় কে এই সাজা দিলে কয়েকটি দেশ এই রায়ের কঠোর সমালোচনা করেছিল। তবে মার্চ মাসে করা ঐ আন্তর্জাতিক সমালোচনার প্রেক্ষিতে সৌদি রাজতন্ত্র “আশ্চর্য ও হতাশা” প্রকাশ করে। এই রায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করে অনেকে সেই সময় দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রী এক বিবৃতিতে বলেন দেশটির অভ্যন্তরীণ বিষয় আন্তর্জাতিক মহলের নাক গলানোকে তারা গ্রহণ করছে না। তার বিরুদ্ধে ইলেকট্রনিক চ্যানেলের মাধ্যমে ইসলামকে অপমান করার অভিযোগ আনা হয়।

ব্রিটেনে নারীদের জন্য স্বতন্ত্র মসজিদ নির্মাণের পরিকল্পনা
ব্রিটেনের ব্রাডফোর্ডে শুধুমাত্র নারীদের জন্যই একটি স্বতন্ত্র মসজিদ নির্মাণের পরিকল্পনা করছেন শহরটির মুসলিম নারীরা।
কারণ প্রচলিত মসজিদগুলোয় নারীদের নামাজ পড়ার উপযুক্ত ব্যবস্থা নেই। তবে এর বিরোধিতা করে মুসলিম পুরুষরা বলছেন, এটি মুসলমানদের মধ্যে বিভেদ তৈরী করবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Hit Counter provided by Skylight