কোথায় আজ সভ্যতা মানবতা? আজমল হুসেন

চোখের পানি নয়, এখন প্রয়োজন জিহাদের আগুন! কলমের কালি নয়, এখন প্রয়োজন বুকের তাজা খুন। দুুর্বলের ফরিয়াদ নয়, এখন প্রয়োজন বজ্রের গর্জন।
কিন্তু! আমার মত ভীরু-কাপুরুষ ফরিয়াদ ও আর্তনাদ ছাড়া আর কি করতে পারে? আমার বুকে তো নেই ঈমানের কুওয়ত, আমার দিলে তো নেই মুজাহিদের হিম্মত। আমার শিরায় তো নেই রক্তের সেই উচ্ছাস!
আমি শুধু কাঁদতে পারি আর লিখতে পারি। তাই ভাবছি আজ এই নিঃসঙ্গ রাতে শুধু নিজেকে সান্ত¦না দিতে অশ্রুর কালিতে আমি কিছু লিখবো! আমি লিখবো আজ মায়ানমার, বার্মা ও সিরিয়ায় নির্যাতিত মুসলিম ভাইদের কথা! যারা আজ অন্যায়ভাবে নির্যাতিত, সকল মুসলিমদেরকে হত্যা করছে পাষ- হৃদয়ের হায়েনারা।
যেখানে জীবন্ত মানুষকে আগুনে পুড়িয়ে মারা হয়, নিষ্পাপ শিশুকে ত্রিশুলে গেঁথে হত্যা করা হয়। যেখানে আমার মা-বোনকে… নাহ, আর পারি না, আর সহ্য হয় না!
কলমও যেন অবশ হয়ে আসে আর কিছু লিখতে! শুশীল সমাজ আজ অন্ধ, ওদের চোখে এসব পড়ে না। আমাদের সমাজ আজ হলি খেলা নিয়ে ব্যাস্ত! সমাজ আজ লজ্জিত! আমি লিখবো আফগানিস্তানের নিঃসঙ্গ মুজাহিদদের কথা, রক্তের সফরে যাদের সঙ্গী হলো না মুসলিম বিশ্বের কোন দেশ ও নেতা!
তবু তারা শরীরের জখম এবং ত নিয়ে অবিচল রয়েছে জিহাদের পথে। অস্ত্র নেই, আশ্রয় নেই, অন্ন নেই, বস্ত্র নেই, দুনিয়ার কোন উপায় উপকরণ নেই!
তবু তারা পড়ে রয়েছিল পাহাড়ে-পর্বতে, গুহায়-গহ্বরে শুধু আল্লাহর উপর ভরসা করে। আমি লিখবো ফিলিস্তিনের মজলুম মুসলমানদের কথা, যাদের জান-মাল, ইজ্জত-আবরু এবং শহর ও জনপদ ধ্বংস হয়ে গেছে ইহুদী হায়েনাদের হাতে। যাদের বাঁচার কোন উপায় নেই আত্মঘাতী হামলা ছাড়া। কিন্তু মানবতার মোড়লদের চোখে তারা সন্ত্রাসী, আর ইহুদী হায়েনারা হল শান্তিবাদী। আজ মুসলিম বিশ্ব নির্বিকার। আর যারা আজ মানবতার দাবিদার, কোথায় তাদের সভ্যতা? কোথায় তাদের মানবতা ও মানবাধিকার?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Hit Counter provided by Skylight