কা’বার হজের চেয়েও বড় : মুহাম্মদ নূরুন নবী (রৌমারি)

একবার বিখ্যাত হাদিস-বিশারদ আবদুল্লাহ বিন মুবারক রহ. হজের উদ্দেশে যাত্রা করেন। পথিমধ্যে তিনি দেখতে পান একটি বালিকা আবর্জনার স্তূপ থেকে কী যেনো তুলে নিচ্ছে। কাছে গিয়ে দেখেন বেচারী আবর্জনার স্তূপ থেকে একটি মরা পাখি তুলে নিচ্ছে এবং দ্রুত কোনোকিছু দিয়ে সেটাকে আড়াল করার চেষ্টা করছে। ইবনে মুবারক রহ. সেখানে থেমে গেলেন এবং বিচলিত হয়ে দরিদ্র বালিকাটির কাছে গিয়ে জিজ্ঞেস করলেন, মা, তুমি এই মরা পাখি দিয়ে কী করবে? তখন জীর্ণ পোশাক-পরা বালিকাটির চোখে জল নেমে এলো। শোকার্ত কণ্ঠে বললো, চাচা, আমাদের বাবা নেই। জালিমরা আমাদের বাবাকে হত্যা করেছে। আমাদের সকল সম্পদ লুট করে নিয়েছে। সব জমিজমা হাতিয়ে নিয়েছে। এখন আমি ও আমার এক ভাই বেঁচে আছি। আল্লাহ ছাড়া আমাদের কোনো আশ্রয় নেই। এখন আমাদের ঘরে খাওয়ার মতো কিছু নেই, পরার মতো কোনো কাপড়ও নেই।  ছয় বেলা ধরে আমরা অনাহারে আছি। আমার ভাইটি না খেতে পেয়ে অচেতন হয়ে ঘরে পড়ে আছে। আমি বাইরে বেরিয়েছি কিছু যদি খুঁজে পেয়ে যাই এই আশা নিয়ে। এখানে এসে মরা পাখি পেলাম। আমাদের জন্য এটাও অনেক বড় নেয়ামত। এসব কথা বলে মেয়েটি ফুঁপিয়ে কাঁদতে লাগলো।
মেয়েটির কথা শুনে আবদুল্লাহ বিন মুবারকের হৃদয় ভারাক্রান্ত হলো। ওর মাথায় হাত রেখে তিনি নিজেও কাঁদতে লাগলেন। তিনি তাঁর সেবককে জিজ্ঞেস করলেন, এখন তোমার কাছে কী পরিমাণ অর্থ আছে? সেবল বললো, এক হাজার স্বর্ণমুদ্রা আছে। আবদুল্লাহ বিন মুবারক রহ. বললেন, আমাদের আবাসস্থল মারব-এ ফিরে যেতে কি বিশটি স্বর্ণমুদ্রা যথেষ্ট হবে? সেবক জবাব দিলো, জী হ্যাঁ, বাড়ি পর্যন্ত পৌঁছতে বিশটি স্বর্ণমুদ্রা যথেষ্ট। ইবনে মুবারক রহ. বললেন, তাহলে তুমি বিশটি স্বর্ণমুদ্রা রেখে অবশিষ্ট সব মুদ্রা এই বালিকাটির হাতে দিয়ে দাও। আমরা এ-বছর হজে যাবো না। আমাদের এই হজ কা’বার হজের চেয়েও বড়।
ইবনে মুবারকের নির্দেশে সেবক সমুদয় অর্থ বালিকাটির হাতে তুলে দিলো। অনাহারকিষ্ট বালিকাটির চেহারা মুহূর্তেই ঝলমল করে উঠলো এবং তার চোখে আনন্দের অশ্রু খেলা করতে লাগলো। সে দ্রুত পায়ে হেঁটে নিজের বাড়ি চলে গেলো। হযরত আবদুল্লাহ বিন মুবারক রহ. আল্লাহর কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করলেন এবং তাঁর সেবককে বললেন, চলো, আমরা এখান থেকেই আমাদের ঘরে ফিরে যাই। আল্লাহ তাআলা এখানেই আমাদের হজ কবুল করে নিয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Hit Counter provided by Skylight