কবিতাগুচ্ছ

সংঘাত চাই না
সৈয়দা সুফিয়া খাতুন
.
চাই না যুদ্ধ চাই শান্তি
চাই না ধ্বংস চাই নির্মাণ
চাই না হিংসা চাই ভালবাসা
মানুষে মানুষে নেই কোন ব্যবধান
সবাই তো এক আল্লাহর সৃষ্টি
আল্লাহকে মানলে হয়ে যাবে
সব সমাধান এসে যাবে শান্তি
চারদিকে সংঘাত বোমবাজ
কি হচ্ছে কি হবে জানি না
ভয়ে ভয়ে কম্পন করে আমার মন
ভাল লাগে না কি হবে কখন
খবরের কাগজে পত্রিকার পাতাতে
ফেইসবুক আর ইন্টারন্যাটে কি হচ্ছে কি হবে
মানবতা মরে গেছে
স্বাধীনতা হারিয়ে গেছে
কাধে মানুষ কাধে পৃথিবী
বন্ধ কর যুদ্ধ এসো সবাই
হাতে হাত মিলিয়ে
বুকে বুক লাগিয়ে
হয়ে যাই ভাই ভাই
অত্যাচার আর অবিচার বন্ধ কর
আর নয় আর নয়।
………………………..
চেতনা
ফাতেমা আক্তার সিক্তু
.
মিথ্যে দিয়ে যায় কি ঢাকা সত্যটা?
প্রকাশ পাবে একদিন সঠিক তথ্যটা
মুখোশ পরা মুখগুলো সব প্রকাশ্যে
আসবে যেদিন থাকবে তারা সহাস্যে?
ফুলগুলো সব ঝরবে যখন যাতনায় ,
বিবেক কি আর জাগবে ওদের চেতনায়?
কুঁড়ি গুলো তখন কি আর ফুটবে ফুল?
ভালোবাসার সার ছিটাতে করলে ভুল?
স্নেহ, মায়া, মমতাতে ধরলে হাত ,
বাঁচবে জীবন, থামবে অনেক অপঘাত।
………………………………….
দীর্ঘশ্বাস
মোস্তফা আল হোসাইন আকিল
.
এখানে ভোরগুলো আর পাখির গানে আসে না,
এখানে ভরা পূর্ণিমাতেও শশী কলকলিয়ে হাসে না।
ভোরের বাতাসে দোল খায় রক্তভেজা পাঞ্জাবি,
এক টুকরো ভূমির জন্য পেট্রোলে পুড়ে মরে বৃদ্ধ দম্পতি।
লোভের লালসা বাড়তে বাড়তে আকাশের নীলটুকু ঢাকা পরে যায়;
যেদিকে যাই চোখে পড়ে একদল শকুন আর স্বার্থের কামড়,
কি এক নিদারুণ সময় চলছে মানুষগুলো রূপান্তরিত হচ্ছে অদ্ভুত জীবে!
যাদের দয়া-মায়া-স্নেহ, দায়িত্ব-কর্তব্য নেই।
শিক্ষার্থী : আধুনগর ইসলামিয়া ফাজিল মাদরাসা, লোগাগাড়া, চট্টগ্রাম।
……………………………………………..
মিনার
খালেদা আক্তার অনন্যা
.
ঐ মিনার হতে না আসলে ভেসে
বেলালের আযানের সুর,
ধরণীর বুকে আর হতো না
আঁধার কেটে ভোর।
প্রভুর অশেষ দয়াতে নবী
হলেন তা অবগত,
বেলাল দিলেন আযান কাটলো
আঁধার ঘোর যত।
ইসলামের তরে সাহাবানরা
সয়েছেন কত কষ্ট,
তবু চাননি তারা কিছুতেই হোক
মানবসন্তান পথভ্রষ্ট।
……………………………………
আযান
আয়েশা সিদ্দিকা আতিকা
.
মিনার হতে ভেসে আসে
আযানের মধুর সুর
কার ধ্বনিতে ছড়িয়ে পড়ছে
দূর হতে বহুদূর।
বেলালের মধুর ধ্বনিতে সবার
ভেঙ্গে যায় ঘুম
আলসে ঝেড়ে উঠে দেখ
সব ছেড়ে উম।
আল্লাহর সন্তুষ্টি অর্জনের জন্য
ছেড়ে সব কাজ
অজু হয়ে পবিত্র হয়ে
পড়ি যে নামাজ।
নামাজ পড়ে ক্লান্তি সব
পালিয়ে যায় দূরে
মিনার হতে আজানের সুর
ছড়ায় দূরে বহুদূরে।

……………………………
মস্ত আকাশ
সা’দ জামিল
.
মাথার ওপর মস্ত আকাশ
ছাদের মত লাগে
চাঁদ-সেতারা, তারার মেলা
ফোটে আকাশ-বাগে ।
খুঁটি ছাড়া আকাশখানা
কেমন করে থাকে !
আকাশটা কি ফেরেস্তারা
মাথায় করে রাখে ?
খুকুর মনে প্রশ্ন জাগে
ডেকে বলে মা-কে
মা হেসে কয়- নেই কোন ভয়
দেখো-আকাশটাকে
তোমার-আমার ¯্রষ্টা যিনি
মহান আল্লাহ্-পাকে
খুঁটি ছাড়া আকাশটাকে
উঁচু করে রাখে।

……………………………….
ফরে এসো বাবা
এইচ এম শহীদুল ইসলাম মামুন
.
বাবা তুমি সবচেয়ে প্রিয়
পথ চেয়ে তাই থাকি এই হৃদয়ে
তোমার স্নেহের কত্ত ছবি আঁকি।
তোমার আদর তোমার স্নেহ
হয় না এখন পাওয়া
যখন তখন তোমার কাছে
হয় না কিছু চাওয়া।
আমার সুখে তোমার ঠোঁটে
ফুটতো মধুর হাসি
ফিরে এসো বাবা তুমি
তোমায় ভালোবাসি ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Hit Counter provided by Skylight